ফেসবুকের মডেল-অভিনেতাদের দেখে দ্বিধায় মিশা সওদাগর - বাংলা একাত্তর ফেসবুকের মডেল-অভিনেতাদের দেখে দ্বিধায় মিশা সওদাগর - বাংলা একাত্তর

বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৫৯ পূর্বাহ্ন

ফেসবুকের মডেল-অভিনেতাদের দেখে দ্বিধায় মিশা সওদাগর

ফেসবুকের মডেল-অভিনেতাদের দেখে দ্বিধায় মিশা সওদাগর

বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় খলনায়ক মিশা সওদাগর। একইসাথে তিনি দায়িত্ব পালন করছেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি হিসেবেও। আর সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মডেল অভিনেত্রীদের নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের চলচিত্র অঙ্গনের পরিচিত এই মুখ।

মিশা সওদাগর বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এখন মডেল-অভিনেতার ছড়াছড়ি। মাঝেমধ্যে নিজেই দ্বিধায় পড়ে যাই। আমাকে যারা ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠায়, সবাই অভিনেতা! প্রোফাইলে দেখি আর্টিস্ট লেখা। ফেসবুকে সবাই মডেল অভিনেতা, অথচ সিনেমা করতে গেলে আমরা শিল্পী খুঁজে পাই না’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রযুক্তির কল্যাণে এসব হচ্ছে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে প্রযুক্তিকে আমরা গ্রহণ করব। যেমন ওটিটি। এখানে স্টার কাস্ট ছাড়াই অভিনয়ের সুযোগ থাকে। গল্পই স্টার হয়ে থাকে। তবে ওটিটির আধিক্য দেখা গেলেও সিনেমা হল কখনও বন্ধ হবে না।’

ওটিকে তিনি স্বাগত জানান দাবি করে মিশা বলেন, ওটিটি সময়ের সঙ্গে এসেছে বলে এটাকে তিনি ওয়েলকাম করেন। ওটিটি অনেক অভিনেতাকে তুলে আনছে। গ্ল্যামার ও বেশি পারিশ্রমিক ছাড়াই অনেকে ভালো কাজ করছে। পশ্চিমবঙ্গের অনেক ওটিটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। শাহরুখ খান নিজের প্রডাকশন থেকে ওটিটির সঙ্গে কাজ করছেন। এগুলো সময়ের চাহিদা।

ওটিটি কখনও বড় পর্দার জায়গা নিতে পারবে না দাবি করে বাংলা সিনেমার সবচেয়ে জনপ্রিয় এই খল অভিনেতা আরও বলেন, ‘আমাদের দেশে ১৮ কোটি মানুষ। ওটিটির সব সেটিংস ঠিক করে এই মাধ্যমে দেখার মতো শিক্ষিত মানুষ এখনও হয়ে ওঠেনি। কিন্তু কোটির ওপর মানুষ হল থেকে ছবি দেখে। তাছাড়া ওটিটি আর সিনেমা হলে ছবি দেখার ফিলটাই পুরোটা ভিন্ন। একসময় থার্টি ফাইভে শুটিং করতাম। সেখান থেকে ডিজিটাল ফরম্যাট। তাই বলে বড় পর্দা হারিয়ে যায়নি, যাবেও না। ওটিটির পর হয়তো আগামীতে আরও অনেক কিছু আসবে। তবে সিনেমা তার জায়গায় থাকবে। সময় ও প্রযুক্তির কল্যাণে হয়তো মাধ্যমটা পরিবর্তন হবে।’

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com