আমেরিকায় বসে দেশের সরকারি বিদ্যালয়ে চাকরি করছেন জেসমিন! - বাংলা একাত্তরআমেরিকায় বসে দেশের সরকারি বিদ্যালয়ে চাকরি করছেন জেসমিন! - বাংলা একাত্তর

বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:১৬ পূর্বাহ্ন

আমেরিকায় বসে দেশের সরকারি বিদ্যালয়ে চাকরি করছেন জেসমিন!

আমেরিকায় বসে দেশের সরকারি বিদ্যালয়ে চাকরি করছেন জেসমিন!

বাংলা একাত্তর ডেস্কঃ আমেরিকায় বসে দেশের একটি সরকারি প্রাইমারি বিদ্যালয়ে চাকরি করছেন জেসমিন সুলতানা। শুধু তাই নয়, তিনি ব্যাংক থেকে নিয়মিত সরকারি বেতনও উত্তোলন করছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। জেসমিন সুলতানা সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ রায়গড় সরকারি প্রাইমারি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। তার বিরুদ্ধ এসব অভিযোগের পর শুরু হয়েছে তদন্ত।

জেলা শিক্ষা অফিসে দেওয়া অভিযোগ ও বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ২০১৩ সালের ২১ এপ্রিল যোগদানের পর মাত্র এক বছর বিদ্যালয়ে নিয়মিত উপস্থিত ছিলেন জেসমিন সুলতানা । ২০১৫ সালের ১২ নভেম্বর থেকে তিনি অনুপস্থিত। ২০১৭ সালের ১৫ জানুয়ারি ও ২০১৮ সালের ৫ সেপ্টেম্বর তিনি সোনালী ব্যাংক ঢাকা দক্ষিণ শাখা থেকে মোট ৪ লাখ টাকা উত্তোলন করেছেন বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তদন্ত কর্মকর্তা রুমান মিয়া গণমাধ্যমকে বলেন, আমি এসে বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটি সদস্যদের বক্তব্য শুনেছি এবং খাতাপত্র দেখেছি। প্রধান শিক্ষিকা জেসমিন বিদ্যালয়ে যে অনুপস্থিত তার সত্যতা পাওয়া গেছে। খুব শিগগিরই আমি এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে রিপোর্ট পাঠাব।
অভিযুক্ত জেসমিন সুলতানার বড় ভাই রায়হান আহমদ জানান, স্বামীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জেসমিন সপরিবারে আমেরিকায় বাস করছেন।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আজিজুর রহমান খান গণমাধ্যমকে জানান, প্রধান শিক্ষিকা জেসমিন সুলতানা প্রতিষ্ঠানের কিছু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, হাজিরা খাতা ও স্লিপের টাকা নিয়ে প্রায় ৫ বছর ধরে লাপাত্তা। শুনেছি সপরিবারে আমেরিকায় আছেন। তবে ২০১৭ সালে এসে ব্যাংক থেকে সরকারি বেতন উত্তোলন করার সময় কয়েক দিন বিদ্যালয়ে এসেছিলেন।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নিয়তী রানী চন্দ জানান, প্রধান শিক্ষিকার অনুপস্থিতির বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে অনেক আগেই জানানো হয়েছে। এছাড়াও জেসমিন বেগম আমাকে চাপ প্রয়োগ করে গ্রান্টার করে তিনি ব্যাংক থেকে ঋণ নেন। সেই টাকাও তিনি দেননি। ব্যাংক আমাকে চাপ দিচ্ছে।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার দেওয়ান নাজমুল আলম জানান, জেসমিন সুলতানা কয়েক বছর আগে তৎকালীন শিক্ষা অফিসারের কাছ থেকে তিন মাসের চিকিৎসাজনিত ছুটি নিয়েছিলেন। এখন তিনি কোথায় আছেন আমার জানা নেই।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com