সেই দিন তাদের মধ্যে কী কী ঘটেছে, ২ জনকে খুঁজছে পুলিশ - বাংলা একাত্তরসেই দিন তাদের মধ্যে কী কী ঘটেছে, ২ জনকে খুঁজছে পুলিশ - বাংলা একাত্তর

বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:১০ পূর্বাহ্ন

সেই দিন তাদের মধ্যে কী কী ঘটেছে, ২ জনকে খুঁজছে পুলিশ

সেই দিন তাদের মধ্যে কী কী ঘটেছে, ২ জনকে খুঁজছে পুলিশ

দেশের আলোচিত নায়িকা পরীমনির সঙ্গে ডিএমপি’র সাবেক গোয়েন্দা কর্মকর্তা এডিসি গোলাম সাকলায়েনের জন্মদিনে উপস্থিত থাকা আরও দু’জনকে খুঁজছে পুলিশ। গোলাম সাকলায়েনের সরকারি বাসভবনে ১৮ ঘণ্টার ভিডিও ফুটেজে ওই দুইজনকেও দেখা গেছে। তদন্তের স্বার্থে ওই অনুষ্ঠানে যারা উপস্থিত ছিলেন তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য খুঁজছেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা।

জন্মদিনের অনুষ্ঠানে মোট কতজন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। কারা ভিডিও করেছেন এবং ভিডিও ফুটেজ কীভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসেছে পুরো বিষয়টি সম্পর্কে স্পষ্ট হতে তাদেরকে খোঁজা হচ্ছে বলে জানায় সূত্র। তদন্ত সংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তা বলেন, আমাদের তদন্ত প্রায় শেষ পর্যায়ে থাকলেও সাক্ষী হিসেবে ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা দুই সদস্যের মতামত এক্ষেত্রে জরুরি হয়ে উঠেছে। এ ছাড়া আরও কিছু আনুষঙ্গিক বিষয় নতুন করে যুক্ত হয়েছে।

সূত্র জানান, পরীমনি ও সাকলায়েনের মধ্যকার প্রথম দফায় একটি ভিডিও প্রকাশের পর তাকে দায়িত্ব থেকে সরানো হয়েছে। এর পর পরই আরও একটি ভিডিও ফাঁস হয়।

সেই ভিডিওতে পরীমণি ও সাকলায়েন ছাড়া আর কে কে উপস্থিত ছিলেন সেটা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত দু’জনের নাম জানা গেছে। পরীমনির কস্টিউম ডিজাইনার জিমি ও কথিত মামা আশরাফুল ইসলাম দিপু জন্মদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বলে জানায় সূত্র। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে আটকের পর তারা দু’জনেই বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন। এ ছাড়া তদন্তের স্বার্থে পরীমনিকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে।

সূত্র জানায়, পরীমনির সঙ্গে এডিসি গোলাম সাকলায়েনের কী ধরনের সম্পর্ক ছিল, তাদের দু’জনের মধ্যে কী কী ঘটেছে সেটাও তদন্তের আওতাধীন। তদন্তের স্বার্থে পরীমনির কথিত মামা আশরাফুল ইসলাম দিপু এবং তার কস্টিউম ডিজাইনার জিমির জবানবন্দি এখানে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

বর্তমানে তারা দু’জনেই কারা হেফাজতে থাকায় তাদের বক্তব্য নিতে প্রয়োজনে কারাগারে যাওয়া হতে পারে বলে জানায় তদন্ত সূত্র। সূত্র জানায়, তদন্ত কমিটিকে শুরুতে ১৫ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়। সাক্ষ্য নেয়ার কাজ বাকি থাকায় সম্প্রতি আরও ১৫ দিনের সময় চেয়ে পুলিশ সদর দপ্তরের ডিসিপ্লিনারি বিভাগে চিঠি দিয়েছে তদন্ত কমিটি। এবং সে অনুযায়ী সময় বাড়ানো হয়েছে।

তদন্ত কমিটির প্রধান পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি মাসুদ করিম মানবজমিনকে বলেন, নির্দিষ্ট দুটি ভিডিওকে কেন্দ্র করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এক্ষেত্রে তদন্ত সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে ভিডিও সংশ্লিষ্ট বিষয় থেকে শুরু করে পুরো ঘটনার সঙ্গে যারা যুক্ত রয়েছেন তাদের সাক্ষ্যপ্রমাণ এখানে বড় একটি বিষয়। এক্ষেত্রে আরও একাধিক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। সূত্রঃ মানবজমিন

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com