বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ০৭:২৬ পূর্বাহ্ন

মেয়ের বিয়ের দিন প্রতিবেশীর কোদালের কোপে প্রাণ গেল বাবার

মেয়ের বিয়ের দিন প্রতিবেশীর কোদালের কোপে প্রাণ গেল বাবার

বাংলা একাত্তর ডেস্কঃ চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে কোদাল দিয়ে কুপিয়ে এক কৃষককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটক জমির উদ্দিন (৪৫) একই এলাকার মৃত ইব্রাহিম মণ্ডলের ছেলে। ৪৫ বছর বয়সী নিহত বাবলুর রহমানের বাড়ি উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের গঙ্গাদাসপুর গ্রামে।

জীবননগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল খালেক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। স্থানীয়দের বরাতে তিনি জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাবলুরের মেয়ে খাদিজা খাতুনের বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে। মেয়ের বিয়েতে দাওয়াত দিতে তিনি একই গ্রামের ভায়রা ভাই মিন্টু রহমানের বাড়ি যাচ্ছিলেন।

জানা যায়, চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিবেশীর কোদালের কোপে বাবলু নিহত হয়েছেন। বিভিন্ন সময় অভিযুক্ত জমির উদ্দিন তার মা ফাতেমা খাতুনকে (৯০) মারধর করতেন। প্রতিবারই প্রতিবেশী বাবলু রহমান মারধরের প্রতিবাদ করে আসছিল। এতে জমিরের মনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এরই জের ধরে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই এলাকার ফজলুর চায়ের দোকানের আশপাশে ওৎ পেয়ে থাকে জমির উদ্দিন। সকাল ১০টার দিকে বাবলু দোকানের সামনে পৌঁছালে কোদাল দিয়ে মাথায় কোপ দিয়ে পালিয়ে যায় জমির।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পরে স্থানীয়রা বাবলুকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এরপরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত জমিরকে আটক করে। সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে মরদেহ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

ওসি আব্দুল খালেক বলেন, ‘৫৫ বছর বয়সী জমিরকে প্রায়ই তার পরিবারের সদস্যরা বেঁধে রাখেন। বৃহস্পতিবার সকালে তিনি ছাড়া পেয়ে কোদাল দিয়ে কোপ দেন। জমিরকে আটক করা হয়েছে। বাবলুর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2022 banglaekattor.com