নির্বাচনের ছয়দিন পর স্কুল খুলে মিললো ব্যালটবক্স, প্রিজাইডিং অফিসারকে গণপি’টুনি - বাংলা একাত্তর নির্বাচনের ছয়দিন পর স্কুল খুলে মিললো ব্যালটবক্স, প্রিজাইডিং অফিসারকে গণপি’টুনি - বাংলা একাত্তর

শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:০৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
নির্বাচনের ছয়দিন পর স্কুল খুলে মিললো ব্যালটবক্স, প্রিজাইডিং অফিসারকে গণপি’টুনি

নির্বাচনের ছয়দিন পর স্কুল খুলে মিললো ব্যালটবক্স, প্রিজাইডিং অফিসারকে গণপি’টুনি

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় কাচারীভিটা স’রকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে নির্বাচনের ছয়দিন পর একটি ব্যালটবাক্স উ’দ্ধার করা হয়েছে। এ সময় গণপি’টুনির শি’কার হয়েছেন প্রিজাইডিং অফিসার প্রভাষ চন্দ্র মন্ডল।শনিবার কোটালীপাড়া উপজে’লার কান্দি ইউনিয়নে এ হা’মলার ঘটনা ঘটে। কোটালীপাড়া থানার এসআই আব্দুল করিম ঘটনার বি’ষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, গত ২৬ ডিসেম্বর কোটালীপাড়া উপজে’লার কান্দি ইউনিয়নে ৬ নং ওয়ার্ডের ভোটকেন্দ্র কাচারীভিটা স’রকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন কাজী মন্টু কলেজের প্রভাষক প্রভাষ চন্দ্র মন্ডল। নির্বাচনের দিন তিনি ভু’ল করে একটি ব্যালটবাক্স ওই কেন্দ্রে ফে’লে আসেন।

শনিবার স্কুল খোলার পর শিক্ষকরা এক ফাঁকা ব্যালটবাক্স দেখতে পেয়ে প্রশাসনকে খবর দেয়। পরে প্রিজাইডিং অফিসার প্রভাষ চন্দ্র মন্ডল ব্যালট বাক্সটি আনতে ওই স্কুলে যান। কিন্তু বি’ষয়টি এলাকায় ছিড়িয়ে পড়লে পরাজিত সদস্য প্রার্থী ফরুক বেপারীর সমর্থকেরা বিদ্যালয় চত্বরে এসে জড়ো হয়। পরে প্রিজাইডিং অফিসার প্রভাষ চন্দ্র মন্ডলকে ধরে গণপি’টুনি দেয়। পরে খবর পেয়ে কোটালীপাড়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রিজাইডিং অফিসারকে উ’দ্ধার করে নিয়ে আসে।

হা’মলার শি’কার প্রিজাইডিং অফিসার প্রভাষ চন্দ্র মন্ডল জানান, তিনি কারও দ্বারা প্রভাবিত না হয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ করেছেন। এই ভোটে নুরুল হক হাওলাদার সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ভোট কেন্দ্রে ৬টি ব্যালটবাক্স এনেছিলেন। ভোট গণনা শেষে চলে যাওয়ার সময় বিদ্যালয়ের অফিসকক্ষে একটি বাক্স ভু’লে থেকে যায়। এই বাক্সটি আজকে নিতে আসলে পরাজিত সদস্য প্রার্থীর লোকজন তাকে মা’রধর করেন।

পরাজিত সদস্য প্রার্থীর মো. ফারুক বেপারী বলেন, প্রিজাইডিং অফিসার প্রভাষ চন্দ্র মন্ডল আমার প্রতিদ্ব’ন্দ্বী প্রার্থী নুরুল হক হাওলাদারের কাছ থেকে টাকা খেয়ে আমাকে পরাজিত করেছেন। তিনি এই ওয়ার্ডে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি জানান।

জয়ী মেম্বার প্রার্থী নুরুল হক হাওলাদার বলেন, গত ২৬ ডিসেম্বর কান্দি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কাচারীভিটা স’রকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ভোটে তিনি জয়লাভ করেছেন। আমি টাকা পয়সা দিয়ে কাউকে প্রভাবিত করিনি।

কোটালীপাড়া থানার এসআই আব্দুল করিম বলেন, কাচারীভিটা স’রকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রিজাইডিং অফিসার প্রভাষ চন্দ্র মন্ডল ও একটি ব্যালট বাক্স উ’দ্ধার করে রিটানিং অফিসার ও উপজে’লা কৃষি অফিসার নিটুল রায়ের কাছে পৌঁছে দিয়েছি।

কোটালীপাড়া উপজে’লা নির্বাচন অফিসার খায়রুল হাসান জানান, এ বি’ষয়ে রিটার্নিং অফিসারই ভালো বলতে পারবেন। তাকে জিজ্ঞেস করলে প্রকৃত তথ্য পাওয়া যাবে।তবে রিটানিং অফিসার ও উপজে’লা কৃষি অফিসার নিটুল রায় এ বি’ষয়ে কোনো প্রকার মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

উল্লেখ্য, গত ২৬ ডিসেম্বর কোটালীপাড়া উপজে’লার কান্দি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী তুষার মধু বিনা প্রতিদ্ব’ন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে শুধুমাত্র সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে নুরুল হক হাওলাদার ৪৬৯ ভোট পেয়ে মেম্বার নির্বাচিত হয়েছেন। অপরদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্ব’ন্দ্বী মো. ফারুক বেপারী পান ৪০৯ ভোট। সূত্রঃ বাংলাদেশ জার্নাল

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com