মানবপাচারকারী মুদি দোকানদার এখন ওভারসিজ প্রতিষ্ঠানের মালিক! - বাংলা একাত্তরমানবপাচারকারী মুদি দোকানদার এখন ওভারসিজ প্রতিষ্ঠানের মালিক! - বাংলা একাত্তর

শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৩:২৮ পূর্বাহ্ন

মানবপাচারকারী মুদি দোকানদার এখন ওভারসিজ প্রতিষ্ঠানের মালিক!

মানবপাচারকারী মুদি দোকানদার এখন ওভারসিজ প্রতিষ্ঠানের মালিক!

মুদি দোকানদার থেকে ওভারসিজ প্রতিষ্ঠানের মালিক বনে যাওয়া মধ্যপ্রাচ্যে মানবপাচারকারী চক্রের অন্যতম হোতা টুটুল ও সহযোগী তৈয়বসহ ৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৪)।

গতকাল মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) রাত ০১ টার দিকে রাজধানীর বাড্ডা ও সাভার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। আজ বুধবার (১৩ অক্টোবর) সকালে এতথ্য নিশ্চিত করেন র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান।

তিনি জানান, মধ্যপ্রাচ্যে মানবপাচারকারী চক্রের অন্যতম হোতা টুটুল ও সহযোগী তৈয়বসহ ৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ বিষয়ে আজ দুপুরে কারওয়ানবাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানানো হবে।

পূজামণ্ডপে নেচে সমালোচনার মুখে নায়ক ফেরদৌস!

পূজামণ্ডপ পরিদর্শনকালে নৃত্যশিল্পীদের সঙ্গে নেচে উৎসাহ দিয়েছেন ফেরদৌস। তার নাচ ও বক্তব্য উপস্থিত দর্শনার্থীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলে। এসময় তার সহপাঠী ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াও তার নাচ উপভোগ করেন।

ফেরদৌস বলেন, এখানে এসে আমি খুব ইমোশনাল হয়ে পড়েছি। আমার সেই ছোট বেলার স্মৃতিতে চলে গিয়েছিলাম। বিশ্বাসই হচ্ছিল না আমি আজকে নারায়ণগঞ্জ আসবো। আমার বন্ধু ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াকে ধন্যবাদ। আসলে ও মাঝে মধ্যে এমন সব কাজ করে আমি বিস্মিত হয়ে যাই। যেমন আজকে বলল তোকে একটা পূজায় নিয়ে যাবো। আমাকে বলেনি কোথায়। বিকাল থেকেই সে প্রচন্ড ব্যস্ত নির্বাচন নিয়ে।

এছাড়াও তিনি বলেন , নারায়ণগঞ্জ আমার ছোট বেলার শহর। অত্যন্ত প্রাণের শহর। আমার বেড়ে ওঠার সঙ্গে আজকে আমি ফেরদৌস হওয়ার পেছনে বড় ভূমিকা রেখেছে এ শহর। কারণ শিল্প সংস্কৃতির দিক দিয়ে নারায়ণগঞ্জ অনেক ধনী। নারায়ণগঞ্জের মানুষ ভীষণ সংস্কৃতমনা। আমি নিজেও ছোটবেলায় বুঝতাম না হিন্দু, মুসলমানের কী তফাত। ঈদে আমার হিন্দু বন্ধুরা আমাদের বাড়িতে আসতো পূজায় আমরা তাদের বাড়িতে যেতাম। আমরা বিশ্বাস করি ধর্ম যার যার উৎসব সবার।

উল্লেখ্য, বর্তমানে এ অভিনেতার হাতে আটটি সিনেমা রয়েছে। করোনাকালেও অভিনয়ে নিয়মিত কাজ করেছেন ফেরদৌস। পর্যায়ক্রমে তিনটি সিনেমার কাজ শেষ করেছেন তিনি। সিনেমাগুলো হলো- জি এম ফারুকের ‘যদি আরেকটু সময় পেতাম’, মাহমুদ দিদারের ‘বিউটি সার্কাস’ এবং এখলাস আবেদিনের ‘হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি’।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com