সাকিবের ফাঁ’দে পরে অ’ন্তঃসত্ত্বা স্কু’লছাত্রী, আত্মহ’’ত্যার চে’ষ্টা - বাংলা একাত্তরসাকিবের ফাঁ’দে পরে অ’ন্তঃসত্ত্বা স্কু’লছাত্রী, আত্মহ’’ত্যার চে’ষ্টা - বাংলা একাত্তর

শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৫৬ পূর্বাহ্ন

সাকিবের ফাঁ’দে পরে অ’ন্তঃসত্ত্বা স্কু’লছাত্রী, আত্মহ’’ত্যার চে’ষ্টা

সাকিবের ফাঁ’দে পরে অ’ন্তঃসত্ত্বা স্কু’লছাত্রী, আত্মহ’’ত্যার চে’ষ্টা

প্রতীকী ছবি

সারাদেশ: প্রেমের ফাঁ’দে ফে’লে বিয়ের প্রলোভনে নবম শ্রেণীর ছাত্রীর সাথে শা’রীরিক সম্পর্ক গড়েছেন মো. সাকিবুল হাসান। ওই ছাত্রী এখন তিন মাসের অন্ত:সত্ত্বা। কিন্তু সাকিবকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। উপায়অন্তু না দেখে থানায় ধ”ণের মা’মলা করা হয়েছে। কিন্তু আ’সামি ধরতে পারছেন না পুলিশ। এই অবস্থায় অনাগত স’ন্তানের পিতৃপরিচয় কী হবে তা ভেবে আত্মহ’’ত্যার চেষ্টা করেছেন ছাত্রী।

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজে’লায় এই ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ বলছেন, অ’ভিযুক্ত সাকিব মা’মলা দা’য়েরের আগেই বাড়ি ছেড়ে পা’লিয়েছে। আ’সামি গ্রে’ফতারে পুলিশের সব রকমের চেষ্ঠা চালাচ্ছে। ভু’ক্তভোগী ও মা’মলা সূত্রে জানা গেছে, উপজে’লার কিচক ইউনিয়নের গাংগইট গ্রামের হোটেল শ্র’মিক হতদারিদ্র্য বাবা ছফির উদ্দিনের মেয়ে কিচক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী সুমাইয়া (১৪)। তার সাথে একই গ্রামের মৌলভী শাহজানা আলীর ছেলে মো. সাকিবুল হাসান (১৮) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে।

সাকিব ধারিয়া গাংগইট ইসলামীয়া দাখিল মাদরাসার নবম শ্রেণীর ছাত্র। তার বাবাও ওই মাদরাসার মৌলভী শিক্ষক। ভু’ক্তভোগীর পরিবারের অ’ভিযোগ, মো. সাকিবুল হাসান রাস্তা-ঘাটে একা পেয়ে ওই স্কুলছাত্রীকে ভ’য়ভীতি দেখিয়ে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ফুসলিয়ে উ’ত্ত্যক্ত করতে থাকে। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে শা’রীরিক সম্পর্ক গড়ে উঠে। চিকিৎসকের দেয়া আলট্রাসোনগ্রামের রিপোর্ট অনুযায়ী সুমাইয়া নামের ওই ছাত্রী সাড়ে তিন মাসের অন্ত:সত্ত্বা।

ভু’ক্তভোগী জানায়, সাকিব তাকে প্রেমের ফাঁ’দে ফে’লে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বিভিন্ন সময় একাধিকবার তার ইচ্ছের বি’রুদ্ধে দৈহিক মেলামেশা করেছে। আমি তাকে বিয়ের জন্য চা’প দিলে সে ভ’য়ভীতি দেখায়। আমি নিরুপায় হয়ে সাকিবের বি’রুদ্ধে শিবগঞ্জ থানায় মা’মলা দা’য়ের করেছি। সে আরো জানায়, সেই মা’মলা তুলে নিতে সাকিবের বড় ভাই সাহাদত দলীয় ক্যাডার নিয়ে বগুড়ার পীরগাছায় তার বাবার কাছ থেকে জো’র করে সাদা কাগজে স্বাক্ষর গ্রহণের চেষ্ঠা করে। ভাই শফিকুলকে টাকার লোভ দেখিয়ে মা’মলা আপষো করতে ভ’য়ভীতি দেখানো হচ্ছে।

এদিকে পরিবারের প্রতি এমন জু’লুম আর ভ’য়ভীতি সহ্যকরতে না পেরে মাত্র ১৪বছর বয়সী সুমাইয়া গত শনিবার (১১সেপ্টেম্বর) বি’ষের বোতল গিলিয়ে আত্মহ’’ত্যা করতে চেয়েছিল। পরিবারের লোকজন হাসপাতালে পৌছেঁ চিকিৎসাসেবায় সুমাইয়া অনেকটা সুস্থ্য। শিবগঞ্জ উপজে’লা হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে।

হাসপাতালের বেডে সুমাইয়া সাংবাদিকের জানান, গরীব ঘরের স’ন্তান হলেও মেধাবী ছাত্রী ছিলেন সে। চোখে মুখে স্বপ্নের আভায় শিক্ষা জীবন শেষ করে বড় চাকরি করার প্রবল ইচ্ছে আজ তার ম্লান হয়েছে সাকিবের কারণে। ছাত্রীর খাতার নাম কাটিয়ে সে এখন মা ! পেটের স’ন্তানের পরিচয় আর জীবনের আ’ঘাত সহ্যকরার চেয়ে মৃ’ত্যু অনেক আনন্দের তাই সে নিজের জীবন আত্মহুতি দিতে চান। মানবীয় বগুড়ার পুলিশ সুপার মহোদয়ের নিকট আকুল নিবেদনে সুমাইয়া এই অন্যয়ের বিচার চান। তবে অ’ভিযুক্ত মাদরাসাছাত্র সাকিবের বাবা শাহজাহান আলীর দাবী ‘ঘটনা মি’থ্যা।

গ্রামবাসী অনেকেই ঘটনা সঠিক বলে জানিয়েছেন। তারা জানান, ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে বিয়ের মাধ্যমে আপস-মীমাংসার চেষ্টা চা’লানো হয়েছে কিন্তু শাহজাহান মৌলভী কোনোভাবেই তাতে রাজি হননি। এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার ওসি মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, ওই ঘটনায় থানায় ধ”ণের মা’মলা হয়েছে। আ’সামি গ্রে’ফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com