শনিবার, ২৪ Jul ২০২১, ১২:৪১ পূর্বাহ্ন

দুর্নীতি ঢাকতে রাতের আধারে ইউএনওর কান্ড!

দুর্নীতি ঢাকতে রাতের আধারে ইউএনওর কান্ড!

মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছিলেন আর কোনো মানুষ আশ্রয়হীন থাকবে না। সরকারের উদ্যোগেই দেয়া হবে ঘর। আর সরকারের উপহারস্বরূপ দেয়া এই ঘর নির্মাণের দায়িত্ব দেয়া হয়েছিলো উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও)। কিন্তু সেই ঘর নির্মাণে ঘটেছে ব্যপক অনিয়মের ঘটনা।

আর এই দুর্নীতি আড়াল করতে এবার প্রধানমন্ত্রীর উপহারস্বরূপ দেয়া সাতটি ঘর ভেঙে ফেলেছেন এক ইউএনও। ঘটনাটি ঘটেছে সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলায়। সাবেক ইউএনওর দুর্নীতি ঢাকতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া মুজিববর্ষের আশ্রয়ণ প্রকল্পের সাতটি ঘর রাতের আঁধারে ভেঙে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়েছেন উপজেলার বর্তমান নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জোবায়ের আহমেদ।

জানা গেছে, সম্প্রতি দেশব্যাপী মুজিববর্ষের উপহার হিসেবে দেয়া ঘর নির্মাণে ত্রুটি-অনিয়মের অভিযোগের তদন্ত শুরু করা হয়েছে। ঠিক সেই মুহূর্তে সদ্য বিদায়ী ইউএনও মৌসুমি জেরিনকে রক্ষা করতেই এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন বর্তমান ইউএনও।

এ বিষয়ে কলারোয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘তৈলকুপি গ্রামের পুকুরপাড়ে সাতটি ঘর নির্মাণ করা হয়েছিলো। স্থানীয় লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল মাস্টারের যোগসাজসে এই ঘর নির্মানে দুর্নীতি করেছেন সদ্য বদলিকৃত ইউএনও মৌসুমি জেরিন।’

তিনি আরো বলেন, ‘পুকুরপাড়ে ঘর তৈরি হওয়ার সময় আমিসহ স্থানীয়রা বাঁধা দিয়েছিলো। কিন্তু এসব তোয়াক্কা না করে ঘর নির্মান করা হয়েছিলো। কাজে ত্রুটির কারণে অল্পদিনের মধ্যে ঘরগুলোতে ফাটল ও ধসে পড়ার আশঙ্কা দেখা দেয়। এর মধ্যে পুকুর ভরাটের জন্য আরো ৬ লাখ টাকা উপজেলা অফিস থেকে খরচ করা হয়। কিন্তু গত পাঁচদিন আগে বর্তমান ইউএনও ঘরগুলো অন্যস্থানে তৈরির জন্য ভেঙে ফেলেন।’

তবে ইউএনও জোবায়ের আহমেদ চৌধুরী বলেন, এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান, স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ উদ্ধর্তন কর্মকর্তারা অবগত আছেন এবং এসব ঘর ইতোমধ্যে সোনাবাড়ীয় ইউনিয়নের ভাদিয়ালিতে নির্মানের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com