সোমবার, ২৬ Jul ২০২১, ০৫:৫১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
২৯ বছর কোমায় থেকে জ্ঞান ফিরতেই রাতারাতি ১৩০ কোটি টাকার মালিক! অনলাইন নিবন্ধন ছাড়াই ৭ আগস্ট থেকে গ্রামে দেওয়া হবে করোনার টিকা মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রীর সুপারিশে হেলেনা উপকমিটিতে? করোনার টিকা নিয়ে উপহাস করা সেই ব্যক্তির কোভিডেই মৃত্যু রিফান্ড ও চেক ইস্যু নিয়ে যা বললেন ইভ্যালির রাসেল সুযোগ দিন, ৬ মাসে পুরনো সব অর্ডার ডেলিভারি দেব : রাসেল ম্যাসেঞ্জারে বুয়েটের চার শিক্ষার্থীর নির্লজ্জতায় তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া তিন দিনে ৬ কাশ্মীরিকে গুলি করে হত্যা করলো ভারতীয় বাহিনী বন্দুক নিয়ে সেলফি তুলতে গিয়ে তরুণীর মৃত্যু রাতে ঘর থেকে তুলে নিয়ে ধ”র্ষ’ণ, ভোরে মিলল মা’দরাসাছা’ত্রীর লা’শ
বাবার সঙ্গে এ কেমন আচারণ?

বাবার সঙ্গে এ কেমন আচারণ?

ঘটনাটি ঘটেছে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজে’লার চরমোন্তাজ ইউনিয়নের দক্ষিণ চরমোন্তাজ গ্রামে। বৃহস্পতিবার রাতে সেই ঘটনার ৩৭ সেকেন্ডের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাই’রাল হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, বাড়ি থেকে বাবাকে টে’নে হি’চড়ে জ’বরদস্তি করে রাস্তায় ফেল দিচ্ছে তার ছে’লে। হা’ত ধরে করছে টা’না হেঁচরা। পি’ঠ ও ঘা’ড় ধরে একের পর এক ধা’ক্কা দেয় ছে’লে। গা’য়ের গে;ঞ্জিটাও টা’নতে টা’নতে ছিঁ’ড়ে; ফে’লে। এ সময় ছে’লেকে বলতে শোনা যায়, ‘এ মহিষ কের? মহিষ ব্যাচ্চে কেডা? মহিষের ধারে লইয়া যামু।’

এ সময় কয়েকজন না’রীও ছিল সেখানে। এদের মধ্যে এক না’রীকে বলতে শোনা যায়, ‘ফিরোজ ভাই ছাড়েন।’ কিন্তু তা শুনছিলে না ছে’লে। ধা’ক্কা দিতে দিতে সামনের দিকে নিয়ে যাচ্ছিলেন বাবাকে।

জানা গেছে, নি;র্যা;ত;নের শি;কার ওই বাবার নাম দেলোয়ার ফরাজী (৭০)। আর ;নি;র্যাত;ন;কারী ছে’লে হলেন ফিরোজ ফরাজী। তাদের বাড়ি দক্ষিণ চরমোন্তাজ গ্রামে। গত ১৪ জুন সকাল ৮টায় তাদের নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার গলাচিপা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আ’দালতে একটি মা’মলা দায়ের করা হয়। বাবা দেলোয়ার ফরাজী বাদী হয়ে তিন ছে’লে এবং এক পুত্রবধূর বি;রুদ্ধে; মা;মলা;টি করেন। বিচারক এ মা’মলা’টি আমলে নিয়ে তাদের নামে গ্রে;প্তা;রি প;রো;না জারি করেছে বলে জানায় সংশ্লিষ্টরা।

স্থানীয় লোকজন জানায়, ১৫-১৬ বছর আগে দেলোয়ার ফরাজী তার স্ত্রী’ রওশনা বেগমের না;মে সব জমি;জমা লিখে দেন। তিন বছর আগে হারুন ফরাজী নামের এক ছে’লেকে ব;ঞ্চিত করে ফিরো;জ, আল;মাছ ও আজম;লের নামে সেই জমি দলিল করে দেন তা;দের মা। এ জমি;জমা নিয়েই তিন ভাইয়ের সঙ্গে হারুনের দ্ব;ন্দ্ব শুরু হয়।

ওই ঘ;টনার আগ থেকেই হারুনের ঘরে বসবাস করতো তার বাবা। ফলে অন্য তিন ছে’লের সঙ্গে বাবার দূরত্ব বাড়তে থাকে। প্রতিবেশীরা বল;ছেন, ওইদিন মহি;ষ চো;র বলায় বাবার ওপর ক্ষু;ব্ধ হয়ে এ কা;ণ্ড ঘ;টায় ছে;লে।

দেলোয়ার ফরাজীর বড় ছে’লে আলমাছ ফরাজী বলেন, আমা’র স্ত্রী’ মেম্বার। আমা’র বি;রো;ধী লোকেরা বাবা;কে উ;স্কানি দেয়। একারণে বাবা পাগ;লামী করে। বাবাকে মা;রে নাই, ছোট ;ভাই শুধু হা;ত ধরছে।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com