রবিবার, ১৩ Jun ২০২১, ০২:০১ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
দিনদুপুরে মা-ছে’লেসহ তিন জনকে গু’ লি করে পা’লানোর সময় সেই ঘা’ তককে ধরে পুলিশে দিলেন জনতা প্র’কাশ্যে দোকানে ঢুকে স্বামী-স্ত্রীসহ ছেলেকে গু” লি করে হ’ ত্যা ই’সরাইলি ড্রো’ন তৈরির ফ্যাক্টরি দ’খলে নিয়েছে ফি’লিস্তিনিরা! নেতানিয়াহু বি’রোধী বি’ক্ষো’ভে উত্তাল ই’সরায়েল ‘ফোন দিলে অবস্থা খারাপ হবে’ বলেই সার্জেন্টকে মা’র’ধ’র, নিজেকে ছাত্রলীগ কর্মী বলে পরিচয় বে’ইজ্জতি চ’রমে পৌঁছে গেছে, ভ’য়ে ফোন ধরছি না: পাপন নে’তানিয়াহুর জন্য ১০ বছরের কা’রাদ’ণ্ড অপেক্ষা করছে: ই’সরাইলি আইনজীবী ফি’লি’স্তিন না’রীকে গু ’লি করে ফেলে রাখল ই’স’রাইলি সে’নারা আ.লীগ থেকে বাদ পড়ডে যাচ্ছেন বিতর্কিতরা
ঝালমুড়ি খাওয়ার কথা বলে দুই বা’ন্ধবীকে ধ” র্ষ’ণ করল ২ প্রে’মিক

ঝালমুড়ি খাওয়ার কথা বলে দুই বা’ন্ধবীকে ধ” র্ষ’ণ করল ২ প্রে’মিক

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজে’লায় ঝালমুড়ি খাওয়ার কথা বলে এক বন্ধুর বাড়িতে ডেকে নিয়ে দুই প্রে’মিক কর্তৃক দুই বা’ন্ধবী ধ”ণের শি’কার হয়েছেন। এ ঘটনায় চারজনকে গ্রে’ফতার করেছে পুলিশ।মঙ্গলবার (৮ জুন) দিবাগত রাতে উপজে’লার নবীগঞ্জ ইসলামবাগস্থ আলাউদ্দিন মিয়ার বাড়িতে এ ধ”ণের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গ্রে’ফতার চারজনসহ পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে বন্দর থানায় তারা মা’মলা করেন। গ্রে’ফতাররা হলেন-নারায়ণগঞ্জ সদর থানার এম সার্কেস এলাকার গোপাল মিয়ার ভাড়াটিয়া টিটু মিয়ার ছেলে সিফাত হোসেন (১৮), হাজীগঞ্জ এলাকার রাজু মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া আব্দুল মান্নান সরদারের ছেলে সিফাত (২১), বন্দর থানার নবীগঞ্জ ইসলামবাগ এলাকার

আলাউদ্দিন মিয়ার ছেলে সাকিব হোসেন (২৪) ও একই এলাকার মৃ’ত বাহাউদ্দিন মিয়ার ছেলে নাইম (২৪)। অপর আ’সামি শাকিল (২২) প’লাতক।বুধবার (৯ জুন) ধ”ণের শি’কার দুই ত’রুণীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। পাশাপাশি তারা আ’দালতে জ’বানব’ন্দি দিয়েছেন।

মা’মলার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ৮ দিন আগে অ’ভিযুক্ত সিফাত হোসেন ও সিফাতের সঙ্গে পরিচয় হয় মা’মলার বা’দী ও তার বান্ধবীর। পরে তারা মোবাইল ফোন নম্বর আদান-প্রদান করেন। পরবর্তীতে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এর ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে মাজার দেখার জন্য নবীগঞ্জ ঘাটে আসেন ওই দুই ত’রুণী।

ওইসময় সিফাত ও সিফাত হোসেনসহ তাদের বন্ধু সাকিব হোসেন, নাঈম ও শাকিলের সঙ্গে দেখা হয়। তারা ঝালমুড়ি খাওয়ার কথা বলে দুই ত’রুণীকে নবীগঞ্জ ইসলামবাগ এলাকার আলাউদ্দিন মিয়ার বাড়িতে নিয়ে যান। পরে সিফাত ও সিফাত হোসেন তাদের ধ”ণ করেন।বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিপক চন্দ্র কুমার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com