বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৬:০৮ অপরাহ্ন

সেই মা’দ্রাসা শি’ক্ষকের শা’স্তি চা’ন না নি’র্যাতনের শি’কার শি’শুটির বা’বা-মা!

সেই মা’দ্রাসা শি’ক্ষকের শা’স্তি চা’ন না নি’র্যাতনের শি’কার শি’শুটির বা’বা-মা!

চট্টগ্রামের হাট’হাজারীতে এক শি’শু শিক্ষা’র্থীকে বে’ধড়ক পি’টুনির ঘ’টনায় অ’ভিযু’ক্ত মা’দ্রাসা শি’ক্ষ’কের শা’স্তি চান না শি’শুটির মা-বাবা। ওই শিক্ষ’ককে আ’টকের পর উপজে”লা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে তারা এ বি’ষয়ে আই’নগত ব্যব’স্থা না নিতে লিখি’ত অনু’রোধ করেন। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) বিকাল ৫টার দিকে হাটহা’জারী উপজে’লার মারকা’যুল কো’রআন ইসলা’মিক অ্যাকা’ডেমিতে এই ঘটনায় ঘটে। ওই মাদ্রা’সার শিক্ষ’ক হা’ফেজ ইয়া’হিয়া হেফ’জ বিভাগের ছাত্র মো. ইয়াসিন ফর’হাদকে বে”ধড়ক পি’টিয়েছেন বলে জা’নিয়েছেন স্থা’নীয়রা।

মা’য়ের কাছে যা’ওয়ার অ’পরাধে ওই শিক্ষা’র্থীকে নি”র্মমভাবে পি”টিয়েছে মাদ্রাসা শিক্ষক। নি’র্যা’তনের ভিডিও ফে’সবুকে ছড়িয়ে পড়লে প্র’তিবাদের ঝড় উঠে। ভিডিওটিতে দেখা যায়, শিক্ষক ইয়াহিয়া তার ছাত্র ইয়াসিন ফরহাদকে মাদ্রা’সার বাইরে থেকে ধরে একটি কক্ষে নিয়ে বেত দিয়ে নি”র্মমভাবে পে’টাচ্ছেন। ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ার পর মঙ্গ’লবার রাত ১টার দিকে হাটহা’জারী পৌর’সভার ফটিকা গ্রামের মারকাজুল কোরআন ইসলামিক একাডেমিতে অ’ভিযান চা’লিয়ে অ’ভিযুক্ত মাদ্রা’সাশিক্ষক হাফেজ ইয়াহিয়াকে আ’টক করে পুলি’শ।

তবে ওই শিক্ষা’র্থীর বাবা-মা অ’ভিযুক্ত ওই মাদ্রা’সাশি’ক্ষককে ক্ষ’মা করে দি’য়েছেন মর্মে একটি লিখিত বক্তব্য দেওয়ায় প্র’শাসন এ ঘটনায় দো’ষী শি’ক্ষকের বি’রুদ্ধে আই’নানুগ ব্যবস্থা গ্রহ’ণ করতে পারেনি। এ বি’ষয়ে হাটহা’জারী উপজে’লা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রুহুল আমিন গণমা’ধ্যমকে বলেন, ‘মাদ্রাসা শিক্ষক হাফেজ ইয়াহিয়া তার এক ছা’ত্রকে বে’ধড়ক পি’টিয়েছেন। ওই ঘট’নার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। বি’ষয়টি নজরে আসার পর মঙ্গ’লবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে আমি থানা পুলিশসহ ওই মাদ্রা’সায় গিয়ে হাফে’জ ইয়া’হিয়াকে আ’টক করি।’

শি’শুটির মা-বাবা ওই শি’ক্ষকের বি’রুদ্ধে শা”স্তিমূলক কোনও ব্যবস্থা নিতে রা’জি হননি জানিয়ে ইউএ’নও বলেন, ‘অ’ভি’যুক্ত মাদরাসা শিক্ষককে আ’টক করার পরপরই নি’র্যাতিত শি’শুটির মা-বাবা আমার কাছে এসে কা’ন্নাকা’টি শুরু করেন। দুইজন আমার অফিসে এসে ওই শিক্ষককে ছেড়ে দিতে অনুরোধ করেন। তারা ওই শিক্ষককে ক্ষমা করে দিয়েছেন জানিয়ে মা’মলা করবেন না বলে জানান। আমি তাদের অনেক বো’ঝানোর পরও তারা মা’মলা করতে রাজি হননি। উল্টো তারা ওই শিক্ষকের বি’রুদ্ধে ব্যবস্থা না নিতে আমাকে লি’খিতভাবে অনুরোধ করেছেন। পরে আমরা ওই শিক্ষ’ককে ছেড়ে দিয়েছি।’

উল্লেখ্য, হাটহাজারীর পৌর এলাকার মারকাজুল কোরান ইসলামি একাডেমি মাদরাসার হেফজ বিভাগের শিক্ষার্থী শি’শু ইয়াসিন। সোমবার (৮ মার্চ) বিকেলে মা পারভিন আক্তার ও বাবা মোহাম্ম’দ জয়নাল মাদরা’সায় তাদের স’ন্তানকে দে’খতে যান। কিন্তু ফেরার সময় ছো’ট্ট শি’শুটি মা-বাবার সঙ্গে বাড়ি যাও’য়ার বায়না ধরে। এক পর্যায়ে সে মা-বাবার পিছু পিছু মাদরা’সার মূ’ল ফ’টকের বা’ইরে চলে আসে। আর এতেই ক্ষি’প্ত হয়ে ওঠেন মাদরা’সার হুজু’র ইয়াহিয়া।

মা-বা’বার সঙ্গে মূল ফ’টকের বা’ইরে কে’ন গিয়েছে শুধু এই কার’ণেই শি”শুটিকে বে’ত দিয়ে বে”ধড়ক পে’টান তিনি। শিক্ষা’র্থীদের কেউ একজন ওই ঘটনা’র ভি’ডিও ফেস’বুকে আপ’লোড করলে, এই নি’র্মম নি’র্যাতনে প্র’তি’বাদে সরব হয়ে উঠে’ন নেটি’জেনরা। সুত্রঃ কালের কণ্ঠ

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com