বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৫:৪০ অপরাহ্ন

ধানমন্ডিতে বাসার নিচে ত”রু’ণীর র”ক্তা’ক্ত লা’শ, অ’ভিযোগের তীর বাড়ির মালিকের ছে’লের দিকে

ধানমন্ডিতে বাসার নিচে ত”রু’ণীর র”ক্তা’ক্ত লা’শ, অ’ভিযোগের তীর বাড়ির মালিকের ছে’লের দিকে

ক’রোনার সময়ে দেশে এসে আ’টকা পড়েছিলেন মালয়েশিয়ার এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের (এপিইউ) ছা’ত্রী তাজরিয়ান মোস্তফা মৌমিতা (২০)। পরিবারের সঙ্গে থাকতেন ধানমন্ডির ৮ নম্বর রোডের ভাড়া বাসায়। শুক্রবার বিকেলে ওই বাসার নিচ থেকেই র’’ক্তা’ক্ত অবস্থায় তার ম”রদে’হ উ’দ্ধার করা হয়। স্বজনরা বলছেন, মৌমিতাকে সাততলার ছাদ থেকে ফে”লে হ’’.. করা হতে পারে। তাদের অ’ভিযোগের তীর বাড়ির মালিকের ছে’লের দিকে। পুলিশ বলছে, বি’ষয়টি ত’দন্ত করে দেখা হচ্ছে। ঘটনার পর আদনান নামে এক ত’রুণকে আ”টক করে জি’জ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ওই তরুণ বাড়ি মালিকের ছে’লে ফাইজারের বন্ধু।

স্বজনরা জানিয়েছেন, তিন বো’নের মধ্যে মেজ ছিলেন মৌমিতা। তিনি অনেকটা চা”পা স্বভাবের হলেও সব সময় হাসিখুশি থাকতেন। ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করে শিক্ষাবৃত্তি নিয়ে মালয়েশিয়ায় পড়ালেখা করছিলেন। মে’য়ের জন্য বাবা-মাও সেখানে বসবাস করতেন। গত বছরের ১৮ জুলাই ঢাকায় এসে আ”টকা পড়লেও বাসা থেকে অনলাইনে ক্লাস করছিলেন মৌমিতা।

মৌমিতার বাবার অ’ভিযোগ- বাড়ির মালিকের একমাত্র ছে’লে ফাইজার তার মে’য়েকে বিভিন্ন সময়ে উ”ত্ত্য’ক্ত করত। বাইরে থেকে নিজের বন্ধুদের নিয়ে ছাদে ও সিঁড়িতে মৌমিতাকে পেলেই উ’ল্টাপা’ল্টা বলত। এ নিয়ে গত সপ্তাহে মৌমিতার মা ফাইজারের মা’য়ের কাছে অ’ভিযোগও দিয়েছিলেন। এতে তিনি উ’ল্টো প্র’তিক্রিয়া দেখিয়েছিলেন।

তিনি আরও বলেন, তার মেয়ে শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে ছাদে ওঠে। তিনি জানতে পেরেছেন, ওই সময়ে বাড়ি মালিকের ছে’লে ফাইজার, তার বন্ধু আদদানসহ আরও কয়েকজন ছিল। তারা এক পর্যায়ে ছাদের দরজা আ”টকে দেয়। সন্ধ্যা ৬টার দিকে জানতে পারেন, মে’য়ের নি’থর দে’হ নিচে পড়ে আছে। এটি প’রিকল্পিত হ’’..।

মৌমিতার একজন স্বজন হুমায়ুন কবির বলেন, আশপাশের বাড়ির লো’কজন দেখেছে শুক্রবার বিকেলে বাড়ি মালিকের ছে’লেসহ অনেকেই ছাদে ছিল। সেখানে তারা মৌমিতার সঙ্গে উ’ল্টাপা’ল্টা আ’চরণও করেছে। হয়তো তাকে ধা’ক্কা দিয়ে ফে’লে দিয়েছে অথবা নিজেকে র’ক্ষা করতেই মৌমিতা ছা’দ থেকে পা’লাতে চেয়েছিল। তারা ঘটনার সুষ্ঠু ত’দন্ত চান।

অপর একজন স্বজন জানিয়েছেন, পুলিশ বাড়িওয়ালার ছে’লের বন্ধুকে আ’টক করেছে। কিন্তু বাড়ির মালিকের ছে’লেকে আ’টক করে জি’জ্ঞাসাবাদ করলেই সবকিছু পাওয়া যাবে। কিন্তু পুলিশ সেদিকে যাচ্ছে না।

গতকাল শনিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ ম’র্গে মৌমিতার ম”রদেহ ম’য়নাত’দন্ত শেষে স্ব’জনের কাছে হ’স্তান্তর করা হয়েছে। ঢাকা মেডিকেল কলেজের ফ’রেনসিক বিভাগের একটি সূত্র জানিয়েছে, ও’পর থেকে পড়ার কারণে ওই ত’রু’ণীর মৃ’ত্যু হয়েছে বলে মনে হয়েছে। তার শ’রীরে ধ’স্তাধ’স্তির আ’লামত পাওয়া যায়নি। তবে মে’য়েটি মৃ’ত্যুর আগে ধ”ণের শি’কার হয়েছিল কিনা বা বি’’ষা’ক্ত কিছু খাওয়ানো হয়েছিল কিনা, তা জানতে র”ক্ত, ভি’সেরা ও হা’ইভেজনাল সোয়াবের নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।

কলাবাগান থানার ওসি পরিতোষ চন্দ বলেন, মৌমিতার পরিবার শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত থানায় কোনো লিখিত অ’ভিযোগ দে’য়নি। তবে পুলিশ ঘটনাটি গুরুত্ব দিয়ে ত’দন্ত করছে। এরই মধ্যে এক ত’রুণকে আ’টক করে জি’জ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তার মৃ’’ত্যুর প্রকৃত কারণ ত’দন্ত শেষ হলে এবং ম’য়নাত’দন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পরই জানা যাবে।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com