বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৭:০২ অপরাহ্ন

এফডিসিতে রীতিমতো ক্ষেপে গেলেন মান্নার স্ত্রী

এফডিসিতে রীতিমতো ক্ষেপে গেলেন মান্নার স্ত্রী

ইউটিউবারের ওপর রীতিমতো ক্ষেপে গেলেন চিত্রনায়ক মান্নার স্ত্রী শেলী। শনিবার বিকেলে রাজধানীর বিএফডিসির অভ্যন্তরে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কয়েকটি টেলিভিশন চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন শেলী। এসময় কয়েকজন ইউটিউবার ঢুকে পড়েন সেখানে। রীতিমতো বিরক্তিকর পরিস্থিতি তৈরি করেন। তবে এ কারণে রাগ হননি শেলী- তিনি একজন ইউটিউবারকে চিনে ফেলেন। যে মান্নাকে নিয়ে ‘মিথ্যা’ ভিডিও বানিয়ে ইউটিউবে ছেড়ে দিয়েছেন।

এরপর তাকে প্রশ্ন করতে শুরু করেন। শেলী বলেন, কেন আপনি মান্নাকে নিয়ে ওইসব বলেছেন, আপনি জানেন মান্নাকে এফডিসির গেটের দারোয়ান মেরেছিল? বলেন, আপনি জানেন? আপনারা এইসব মিথ্যা ভিডিও বানিয়ে ভিউ তৈরি করছেন, কেন? কেন মান্নার মতো একজনকে আপনারা এভাবে অসম্মান করেন, কেন? বলেন, এভাবে টিআরপির জন্য কেন এইসব করেন?

শেলী এসময় বেশ ক্ষোভ প্রকাশ করেন। সেখানে উপস্থিত মান্নার গণমাধ্যমকর্মীরাও বিষয়টিকে ভালোভাবে নেননি। পরে ওই ইউটিউবার কিছু না বলেই এফডিসি ত্যাগ করে।

শনিবার ফিল্ম ক্লাব লিমিটেডের নির্বাচন ছিল এফডিসিতে। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট কয়েকজন জানান, এদিন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শত শত বহিরাগত ঢুকে পড়েছিল। এর মাঝে বড় একটি শ্রেণী ছিল ইউটিউবার। যারা কোনো তারকা, বা চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট কাউকে পেলেই তার বক্তব্য নেওয়া শুরু করেন।

এ বিষয় বাংলাদেশ শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, ‘মান্না ভাইকে নিয়ে এরকম ভিডিও করা খুবই ঘৃণ্যতম কাজ। আমি বুঝি এফডিসির গেটে যারা থাকে, তারা কেন এদের ঢুকতে দেয়, এরা ঢুকে ক্রমেই বিশৃঙ্খলা তৈরি করে। যার তার বক্তব্য নিয়ে বড় ও সম্মানী শিল্পীদের অসম্মমান করে। আমিও বিষয়টা এফডিসির কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চাই, কেন এইসব বহিরাগত মানুষ ঢোকে?’

জানা গেছে, ইউটিউবাররা সাংবাদিক পরিচয়ে এফডিসিতে ঢুকে বিভিন্নজনের সাক্ষাৎকার নেওয়া শুরু করে। এক শ্রেণীর ইউটিউবাররা ‘প্রেস’ লেখা কার্ড ও জ্যাকেট শরীরে দিয়ে ঢুকে পড়েন। তবে শোনা যায় অধিকাংশরাই গেটে দারোয়ানদের ‘ম্যানেজ’ করে ঢুকে পড়েন। এফডিসিতে এরা বিশৃঙ্খলা তৈরি করেন। এদের অত্যাচারে গণমাধ্যমকর্মীরাও পিছিয়ে পড়েন।

দেশের একটি বেসরকারি খবরের টেলিভিশনের নারী সাংবাদিক বলেন, আমি একজনের সাক্ষাৎকার নিচ্ছি, এসময় একজনকে আমাকে প্রায় ধাক্কা দিয়ে ফেলেই দিতে ধরেন। পরে তাকিয়ে দেখি ক্যামেরার মধ্যে স্টিকার লাগানো এম এম টিভি না কি যেন। এদের জন্য আমরা নিজেদের কাজটাও ঠিক ঠাক করতে পারি না।

জায়েদ খান বলেন, এদের কারণে আমাদের মতো শিল্পীদের সম্মানহানি হচ্ছে। মরহুম মান্না ভাইকেও তারা ‘অপমান’ করেছে। এটা খুবই দুঃখজনক। আমি বেশকিছু টিউবারের তথ্য ও ছবি যোগাড় করেছি। শিগগির এদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবো। ইতোমধ্যে আমি চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির অফিসে সমস্ত ইউটিউবারদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করেছি।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com