আপত্তিকর দৃশ্য, কি আছে ‘হাওয়া’র ভাগ্যে

| আপডেট :  ১৩ আগস্ট ২০২২, ১২:১৩ অপরাহ্ণ | প্রকাশিত :  ১৩ আগস্ট ২০২২, ১২:১৩ অপরাহ্ণ

দুই সপ্তাহ পেরিয়ে এখনো সমান দাপটে চলছে মেজবাউর রহমান সুমন পরিচালিত সিনেমা ‘হাওয়া’। অধিকাংশ প্রেক্ষাগৃহে যাচ্ছে হাউজফুল শো। দর্শকপ্রিয়তার এই জোয়ারে আরেকটি চমক দিলো সিনেমাটি। তালিকা থেকে জানা গেল, এ সপ্তাহ থেকে দেশের ৪৮টি প্রেক্ষাগৃহে চলবে ‘হাওয়া’। টানা তৃতীয় সপ্তাহেও হল বাড়ার নজির দেশের সিনেমার নিকট অতীতে নেই।

এরমধ্যে উঠলো ছবিটির বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ। সিনেমার পুরোটাজুড়ে একটি শালিক পাখিকে খাঁচায় প্রদর্শন করায় ‘বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন-২০১২’ লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলেছে ৩৩টি পরিবেশবাদী সংগঠন। সিনেমাটির প্রদর্শন বন্ধ করে আপত্তিকর দৃশ্য সংস্কারের দাবি জানায় তারা।

এখানেই শেষ নয় পরিবেশবাদীদের দাবি। তাদের সূত্র ধরে এবার সোজা সিনেমা হলে ঢুকে পড়লেন বন বিভাগের বন্য প্রাণী অপরাধ দমন বিভাগের চার কর্মকর্তা। তাদের নেতৃত্বে একটি ইউনিটে স্টার সিনেপ্লেক্সে চলচ্চিত্রটি দেখেন। হল থেকে বেরিয়ে তারা জানান, পরিবেশবাদীদের উৎকণ্ঠা ও দাবির সত্যতা পেয়েছেন তারা। আইন অমান্য করা হয়েছে এই সিনেমায়।

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বন্য প্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা রথীন্দ্র কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘আমরা দেখেছি, আইন লঙ্ঘিত হয়েছে। সিনেমায় একটি শালিক পাখিকে সারাক্ষণ একটি খাঁচায় বন্দী রাখা হয়েছিল। এটা দেখে দর্শক ধরে নেবেন, পাখি আটকে রাখা যাবে। সিনেমা দেখার অভিজ্ঞতার আলোকে একটি তদন্ত প্রতিবেদন বন বিভাগে দাখিল করা হবে। পরে মামলা করা হবে কি না, সে ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেবে।’

উল্লেখ্য, সমুদ্রে মাছ ধরার একটি ট্রলারকে ঘিরে এগিয়েছে ‘হাওয়া’র গল্প। এর সঙ্গে আছে মিথলজি ও সম্পর্কের অণুপ্রবেশ। সিনেমাটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী, নাজিফা তুষি, শরীফুল ইসলাম রাজ, সুমন আনোয়ার, নাসির উদ্দিন খান, সোহেল মণ্ডল, রিজভী রিজু, মাহমুদ হাসান ও বাবলু বোস। এটি প্রযোজনা করেছে সান মিউজিক অ্যান্ড মোশন পিকচার্স লিমিটেড।