সেই নবজাতককে স্বেচ্ছায় বুকের দুধ খাওয়াচ্ছেন হাসপাতালের প্রসূতিরা

| আপডেট :  ১৭ জুলাই ২০২২, ০২:৩১ অপরাহ্ণ | প্রকাশিত :  ১৭ জুলাই ২০২২, ০২:৩১ অপরাহ্ণ

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশালে ট্রাকচা’পায় মায়ের পেট ফে’টে জন্ম নেয়া ন’বজাতককে পালাবদল করে বুকের দুধ খাওয়াচ্ছেন ওই হাসপাতালে সন্তান প্রসব করা অন্যান্য প্রসূতি মায়েরা। শিশুটি ময়মনসিংহ মহানগরীর লাবিব প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

রোববার দুপুরে লাবিব হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহজাহান মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ট্রাকচাপায় মা-বাবা ও বোন হারানো নবজাতক আমার হাসপাতালে ভর্তি আছে। হাসপাতালের অন্যান্য প্রসূতি মায়েরা বুকের দুধ পান করাচ্ছেন। এতে বাচ্চাটির বুকের দুধের চাহিদা পূরণ হচ্ছে। আশা করছি বাচ্চাটি ১৫ থেকে ২০ দিনের মাঝে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবে।

একই হাসপাতালে পাঁচ দিন আগে কন্যা সন্তান প্রসব করেন সদর উপজেলার দাপুনিয়ার কানাপাড়ার আলমাসের স্ত্রী নাছিমা বেগম।তিনি বলেন, শুনেছি ওই শিশুটির জন্মের সময় সড়ক দুর্ঘটনায় মা, বাবা ও বোন মারা গেছে। আমি একজন মা হিসেবে আমার বুকের দুধ দিয়েছি।

লাবিব হাসপাতালের সেবিকা (নার্স) সুরাইয়া ইয়াসমিন বলেন, শনিবার রাতে এক প্রসূতি তার বুকের দুধ দিয়েছিল। সকালে তার ছুটি হয়ে গেছে। পরে নাছিমা বেগম নামে আরেক প্রসূতি তিনবার দুধ দিয়েছেন। আজ তারও ছুটি হয়ে যাবে। তবে হাসপাতালে আরো কয়েকজন প্রসূতি আছেন। তারা স্বেচ্ছায় ওই শিশুকে বুকের দুধ দেবেন বলেও জানান তিনি।এদিকে শিশুটিকে এক নজরে দেখার জন্য বিভিন্ন এলাকার মানুষ হাসপাতালে ভিড় করছে।

প্রসঙ্গত, শনিবার দুপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশালে ট্রাকচাপায় শিশুটির বাবা জাহাঙ্গীর আলম (৩৫), মা রত্না বেগম (২৬) ও বোন আড়াই বছর বয়সী জান্নাত আরা মারা যায়। তাদের বাড়ি ত্রিশাল উপজেলার মঠবাড়ি ইউনিয়নের রায়মনি গ্রামে। এ সময় ট্রাকের চাপায় রত্নার গর্ভে থাকা সন্তান বের হয়ে আসে।