বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ০৭:৩৬ পূর্বাহ্ন

স্বামী-স্ত্রীর মতো অন্তরঙ্গ সময় কাটিয়েও সারাদিন বারান্দায় অবস্থান, রাতে বধূবেশে ঘরে গেল চৈতী

স্বামী-স্ত্রীর মতো অন্তরঙ্গ সময় কাটিয়েও সারাদিন বারান্দায় অবস্থান, রাতে বধূবেশে ঘরে গেল চৈতী

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে সারাদিন অবস্থান করলেন তরুণী। শেষে রাতে স্থানীয় মাতব্বরদের হস্তক্ষেপে তাদের বিয়ে দেয়া হয়েছে। বধূ সেজে বিজয়ীর বেশে ঘরে প্রবেশ করলেন প্রেমিকা। ঘটনাটি ঘটেছে ফরিদপুরের সালথা উপজেলার যদুনন্দী ইউনিয়নের জগন্নাথদি গ্রামে।

জানা গেছে, ওই গ্রামের শুনীল মিত্রের ছেলে সুমন মিত্রের (২৮) বাড়িতে শুক্রবার অবস্থান নেন প্রেমিকা চৈতী বিশ্বাস (২০)। এর পরে শুক্রবার সন্ধ্যায় স্থানীয় মাতব্বররা বসে সিদ্ধান্ত নিলে তাদের দু’জনের বিয়ের আয়োজন করা হয়।

চৈতীর দাবি, সুমনের সাথে তার প্রায় এক বছরের প্রেমের সম্পর্ক চলছে। তারা অন্তরঙ্গ হয়ে অনেক ঘনিষ্ঠ সময়ও কাটিয়েছেন স্বামী-স্ত্রীর মতো। সুমনের পরিবার তাদের সম্পর্কের বিষয়টি আগে থেকেই জানতো।

চৈতী আরো জানান, তিনি বিবাহিতা ছিলেন। পূর্বের স্বামীকে তিনি তালাক দেন সুমনের বিয়ের আশ্বাসে। তবে আগের স্বামীকে তালাক দেয়ার পরপরই তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করছে সুমন। এর ফলে তিনি বিয়ের দাবি নিয়ে সুমনের বাড়িতে অবস্থান করছেন।

এদিকে বিষয়টি জানাজানি হলে গ্রামের মাতুব্বরেরা এ নিয়ে বৈঠকে বসেন। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা কাইয়ুম মোল্যা বলেন, মেয়েটি সকাল থেকে বিয়ের দাবিতে ছেলের বাড়িতে অবস্থান করছে বলে জানতে পারি। পরে মেয়েটির সাথে কথা বলে জানতে পারি তার সাথে এ ছেলের ঘনিষ্ঠতা হয়েছে। এ সংক্রান্ত বেশ কিছু তথ্য প্রমাণ আমাদের দিয়েছে।

ফরিদপুরের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (নগরকান্দা-সালথা সার্কেল) মো: সুমিনুর রহমান বলেন, পুলিশের কাছে এ ধরনের কোনো খবর আসেনি। তবে এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে দেখবেন বলে জানান তিনি।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2022 banglaekattor.com