মঙ্গলবার, ২৮ Jun ২০২২, ০৫:৩৮ অপরাহ্ন

রোনালদোর মতো প্রতিপক্ষ পেলে মেসির গোল হতো অগণিত

রোনালদোর মতো প্রতিপক্ষ পেলে মেসির গোল হতো অগণিত

এস্তোনিয়ার বিপক্ষে ৫ গোল করে একাই পরাজিত করে দিয়েছেন লিওনেল মেসি। এ নিয়ে নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে চলছে আলোচনা সমালোচনা। লিও মেসি নাকি দুর্বল প্রতিপক্ষের সঙ্গে গোল করতেই সিদ্ধহস্ত। অথচ তার ক্যারিয়ারের ৮৩ শতাংশ গোল এসেছে বড় দলগুলোর বিপক্ষে।

অন্যদিকে, এস্তোনিয়ার বিপক্ষে চার ম্যাচে সমান চার গোল রোনালদোর। এমন প্রতিপক্ষের সঙ্গে রনের স্কোর প্রায় ৪০ শতাংশ। দু-জনের স্কোরিংয়ের তুলনামূলক চিত্র থাকছে প্রতিবেদনে।লিওনেল মেসি গোল করলেই যেনো ফোসকা পড়ে রোনালদো ভক্তদের গায়ে।

এস্তোনিয়ার বিপক্ষে ফুটবল গ্রেটের পাঁচ গোলের পর গা জলুনি যেনো থামছেই না হেটারদের। র‌্যাঙ্কিংয়ে পেছনের সারির দল বলেই না’কি তার এমন কীর্তি! তাহলে চলুন ঘুরে আসি জাতীয় দলের রোনালদো নামা থেকে।

পর্তুগালের জার্সি গায়ে চপিয়ে ১৮৮ ম্যাচে সি আর সেভেনের গোল ১১৭। যে কীর্তি তাকে বসিয়েছে ইতিহাসের সর্বকালের সেরা স্কোরারের সিংহাসনে। তবে মজার বিষয় হলো এই এস্তোনিয়া মার্কা দলের বিপক্ষে রোনালদো গোল করেছেন ৪৬টি। যা তার মোট গোলের প্রায় ৪০ শতাংশ। শুধু তাই নয় এস্তোনিয়ার বিপক্ষে যেখানে এক ম্যাচেই মেসি করেছেন পাঁচ গোল, সেখানে চার ম্যাচে গোল সমান চার।

বিশ্লেষনে দেখা যায়, রোনালদোর সবচেয়ে পছন্দের প্রতিপক্ষ লুক্সেমবার্গ। র‌্যাঙ্কিংয়ে ১০০’র আশেপাশে থাকা এই দলটির বিপক্ষে ৯ গোল পর্তুগিজ তারকার। এর পরেই অবস্থান লিথুয়ানিয়ার। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের ১৩৮ নম্বরের দলের বিপক্ষে সাত গোল রোনালদোর। আর ১৫৩-তে থাকা অ্যানডোরার সঙ্গেও তার ছয় গোল নিয়ে উচ্ছ্বাসের কমতি নেই রোনালদো ভক্তদের।

পাঁচ গোল করা র‌্যাঙ্কিংয়ের ৯২ এ থাকা আরমেনিয়া যেমন তেমন। লাটভিয়া, ফেরো আইল্যান্ড, সাইপ্রাস, আজারবাইজান, কাজাখস্তানের মত দলগুলো ফুটবল বিশ্বে আলোচনায় রোনালদোর কল্যানেই। একবার তবে চোখ বন্ধ করে ভাবুন, এস্তোনিয়ার বিপক্ষে এক ম্যাচেই মেসির পাঁচ! রনের মত বাকি প্রতিপক্ষদের পেলে লিও কোথায় নিতেন নিজের গোল সংখ্যা?

অবশ্য এক পাক্ষিক কথা বলার সুযোগ নেই। দুর্বল প্রতিপক্ষের সঙ্গে গোল আছে লিওনেল মেসিরও। তার ১৫ গোল এসেছে র‌্যাঙ্কিংয়ে একশ’র নিচে থাকা দলের বিপক্ষে। যা তার মোট গোলের প্রায় ১৭ শতাংশ। গুয়েতেমালা, হাইতির বিপক্ষে তার গোল সমান তিনটি করে। আর নিকারাগুয়া হংকংয়ের বিপক্ষে আছে দুটি করে গোল। বাকি সব ইউরোপ, আমেরিকা, এশিয়ার বাঘা বাঘা প্রতিপক্ষের সঙ্গে।

হাঙ্গেরিয়ান কিংবদন্তি ফেরেন্স পুসকাসকে পেছনে ফেলে ৮৬ গোল নিয়ে মেসি এখন সেরা গোলদাতার তালিকায় শীর্ষ চারে। তার প্রথম গোল ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে। যদিও সেই ম্যাচে হেরেছিলো আর্জেন্টিনা। লিও স্কোর করেছেন এমন ম্যাচে আর্জেন্টিনা হেরেছে এর বাইরে আর মাত্র দুই ম্যাচ।

এদিকে জাতীয় দলের হয়ে প্রথম গোল পাওয়া ম্যাচে রোনালদো’ও জেতাতে পারেননি পর্তুগালকে। গ্রিসের কাছে সেই ম্যাচ সেলেকাওরা হেরে গিয়েছিলো ২-১ ব্যবধানে। এছাড়াও পর্তুগালের আরো আছে ছয় ম্যাচ। যেসব খেলায় গোল পেয়েছেন রোনালদো কিংন্তু জেতেনি তার দল।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2022 banglaekattor.com