মঙ্গলবার, ২৮ Jun ২০২২, ০৬:৪৩ অপরাহ্ন

এখনো খোঁজ মেলেনি ফায়ার ফাইটার শফিউলের, বাকরুদ্ধ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী

এখনো খোঁজ মেলেনি ফায়ার ফাইটার শফিউলের, বাকরুদ্ধ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী

চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভ’য়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার নাগরৌহা গ্রামের ফায়ার ফাইটার কর্মী শফিউল ইসলাম (২২) এখনো নিখোঁজ রয়েছেন। অ’গ্নিকাণ্ডেের ২ দিন পেরিয়ে গেলেও শফিউলের খোঁজ না মেলার কারণে পরিবার ও স্বজনদের মধ্যে উৎকন্ঠা বিরাজ করছে।

পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, শফিউল ইসলাম উপজে’লার সদর ইউনিয়নের নাগরৌহা গ্রামের আব্দুল মান্নান হোসেনের ছেলে। পরিবারের দুই স’ন্তানের মধ্যে শফিউল ইসলাম বড়। তিনিই একমাত্র উপার্জনের উৎস। গত বছর শফিউল ইসলাম বিয়ে করেছেন। বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন তাঁর পাঁচ মাসের অ’ন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী। নিখোঁজ হওয়ার আগে শফিউল ইসলাম কুমিরা ফায়ার স্টেশনে ফায়ার ফাইটার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

উল্লাপাড়া ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, সীতাকুন্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভ’য়াবহ বি’স্ফোরণের ঘটনায় পেশাগত দায়িত্ব পালনে কুমিরা ফায়ার স্টেশন কর্মীদের সঙ্গে শফিউল ইসলামও উ’দ্ধার অ’ভিযানে অংশ নেন। পরে অবস্থা আরও বেগতিক হলে ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিট উ’দ্ধার অ’ভিযানে অংশ নেয়।

এ ঘটনায় ৪৯ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে এবং শতাধিক দ’গ্ধ হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত শফিউল ইসলাম নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজের খবর শোনার পর ঢাকা ফায়ার সার্ভিসের হেড কোয়ার্টার, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও সীতাকুন্ডে শফিউলকে খোঁজার জন্য অবস্থান করছে তার পরিবারের লোকজন।

সোমবার দুপুরে নিখোঁজ শফিউলের বাবা আব্দুল মান্নান মুঠোফোনে বলেন, আমি ছেলের সন্ধানে বর্তমানে ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা হেড কোয়ার্টার অফিসে অবস্থান করছি। তিনি আরও বলেন, এই সময় যদি শফিউলের কোনো কিছু হয়ে যায় তাহলে আমরা একেবারে নিঃস্ব হয়ে যাব। আমি একজন তাঁত শ্র’মিক। বর্তমানে অ’সুস্থতায় ভুগছেন তিনি।

উল্লাপাড়া ফায়ার সার্ভিসের সহকারী স্টেশন অফিসার জালাল উদ্দিন বলেন, নিখোঁজের খবর পেয়ে শফিউলের বাড়িতে খোঁজ খবর নেয়ার জন্য আমরা গিয়েছিলাম। তার পারিবারিক অবস্থা বেশি ভালো না। শফিউল নিখোঁজে তাঁর পরিবার দিশেহারা হয়ে পড়েছে।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2022 banglaekattor.com