মঙ্গলবার, ২৮ Jun ২০২২, ০৫:৩৭ অপরাহ্ন

গোপনে আখাউড়া দিয়ে ভারতের ত্রিপুরায় গেলো এলপিজিবাহী ট্যাংক

গোপনে আখাউড়া দিয়ে ভারতের ত্রিপুরায় গেলো এলপিজিবাহী ট্যাংক

ফাইল ছবি

উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোর চাহিদা মেটাতে আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভারতের ত্রিপুরায় গেলো তরল পেট্রোলিয়াম (এলপিজি) গ্যাসবাহী দু’টো ট্যাংক।অত্যন্ত গোপনীয়তা বজায় রেখে মঙ্গলবার (৩১ মে) দুপুরে ১৮ টন ধারণক্ষমতা সম্পন্ন দুটি ট্যাংকারে

করে ইন্ডিয়ান অয়েল করপোরেশনের ত্রিপুরা রাজ্যের বিশালগড়ের প্লান্টে এলপিজি সরবরাহ করা হয়েছে। বাংলাদেশ-ভারত দু’দেশের সমঝোতা চুক্তির আওতায় ওই গ্যাস ভারতে রফতানি করে বাংলাদেশের ওমেরা পেট্রোলিয়াম লিমিটেড। সিএন্ডএফ এজেন্ট আখাউড়া স্থলবন্দরের মৌ এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মহসিন আহমেদ সরকার।

চুক্তি অনুযায়ী ভারতের ত্রিপুরায় ৪৯ হাজার ২৫৬ মেট্রিক টন তরল পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে সরবরাহ করা হবে। মঙ্গলবার ১৮ টন ধারণক্ষমতার দু’টো ট্যাংকারে করে ইন্ডিয়ান অয়েল করপোরেশনের ত্রিপুরা রাজ্যের বিশালগড়ের প্লান্টে ৩৬ মেট্রিক টন এলপিজি গ্যাস নিয়ে যাওয়া হয়। এর আগে, ভারতের ত্রিপুরাসহ উত্তর-পূর্বাঞ্চল রাজ্যগুলোতে গ্যাস পৌঁছে দিতে পরিবহন খরচ অনেক বেশি পড়ায় বাংলাদেশের কাছ থেকে গ্যাস নেয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল ভারত।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ৫ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিল্লি সফরে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাতের সময় উভয় দেশের মধ্যে এক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। সমঝোতা স্মারক অনুয়ায়ী বাংলাদেশ ত্রিপুরার ইন্ডিয়ান করপোরেশনের বিশালগড় বটলিং প্লান্টে ট্যাংকারে করে এলপিজি সরবরাহে সম্মত হয়।

ওই সমঝোতা অনুসারে, বাংলাদেশের ওমেরা পেট্রোলিয়ামের মাধ্যমে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলোর জন্য এলপিজি আমদানি করছে ইন্ডিয়ান অয়েল করপোরেশন। কোলকাতার হলদিয়া বন্দর থেকে শিলিগুড়ি পার হয়ে আগরতলায় তরল গ্যাস পরিবহনের ১৬৪০ কিলোমিটার পথের বদলে বাংলাদেশে থেকে উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোর এলপিজি সরবরাহ করতে মাত্র ২৫০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে হবে। এতে অর্থ ও সময় উভয় লাভবান হবে ভারত। সূত্রঃ যমুনা টিভি

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2022 banglaekattor.com