বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ০৭:১২ পূর্বাহ্ন

ভোট নোয়াখালী, কেন্দ্র লক্ষ্মীপুর

ভোট নোয়াখালী, কেন্দ্র লক্ষ্মীপুর

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার হরনী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনের চারটি ভোটকেন্দ্র লক্ষ্মীপুরের রামগতির চরগাজী ইউনিয়নে স্থাপন করা হয়েছে। আগামী ১৫ জুন হরণী ইউপিতে নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। এ নিয়ে চরগাজীর বাসিন্দাদের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। যেকোনো সময় সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।এদিকে ভোটকেন্দ্র চারটি সরিয়ে নিতে চরগাজী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান তাওহীদুল ইসলাম সুমন সম্প্রতি ঢাকায় নির্বাচন কমিশনের সচিবের কাছে লিখিত আবেদন করেন। বিষয়টি সরেজমিন পরিদর্শন করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নোয়াখালী জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়।

গত বৃহস্পতিবার (২৬ মে) নোয়াখালী নির্বাচন কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন ভোটকেন্দ্র এলাকা পরিদর্শন করেছেন। এ সময় তিনি এলাকাবাসী, ভোটার ও জনপ্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলেছেন। শনিবার (২৮ মে) সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, লক্ষ্মীপুরের রামগতির চরগাজী ইউনিয়নের তিনটি মৌজা নিয়ে নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার সঙ্গে সীমানা বিরোধ রয়েছে। এ নিয়ে লক্ষ্মীপুর সাব-জজ আদালতে মামলা (৭৩৯/২১) চলমান।

মামলাটি নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বিরোধীয় এলাকায় স্থিতিবস্থা বজায় রাখার আদেশ দেন আদালত। এতে গেল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চরগাজী ইউনিয়নে বিরোধী এলাকায় ভোটকেন্দ্রের জন্য অস্থায়ী তাবু কেন্দ্র করা হয়। আগামী ১৫ জুন হাতিয়ার হরণী ইউপি নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। এ নিয়ে নির্বাচন কমিশন তফসিল ঘোষণা করেন। এতে বিরোধীয় এলাকায় ৪ ভোট কেন্দ্র স্থাপন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কেন্দ্রগুলো হলো- চরগাজীর টাংকি বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মোহাম্মদপুর তেগাছিয়া বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মোল্লা গ্রাম নূরানী মাদরাসা ও ফরেস্ট সেন্টার প্রাথমিক বিদ্যালয়।

ইউপি চেয়ারম্যান তাওহীদুল ইসলাম সুমন আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, গেজেট অনুযায়ী বিরোধীয় চরলক্ষ্মী, চরদরবেশ, দক্ষিণ টুমচর মৌজার অধিকাংশই ডিয়ারা এমআরআর ও হাল রিভিশনে রামগতির চরগাজীতে রেকর্ডভুক্ত। এসব এলাকার ৯৯ শতাংশ ভোটার চরগাজী ইউনিয়নের বাসিন্দা। একসময় সিডিএসপি জমি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে রামগতির কিছুসংখ্যক লোককে হরনী ইউনিয়নের ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। কিন্তু পরে তারা ফের রামগতি উপজেলা নির্বাচন অফিসে এসে চরগাজীর ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন।

বর্তমানে সাত থেকে আটশ’ নারী-পুরুষ চরগাজীর ভোটার হতে নির্বাচন অফিসে আবেদন করেছেন।স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মোহাম্মদপুর তেগাছিয়া বাজার ও টাংকি বাজারে লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশের তত্ত্বাবধানে দুটি ক্যাম্প রয়েছে। স্থিতাবস্থার পরও হরনী ইউনিয়নের ভোটকেন্দ্রগুলো স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয় নির্বাচন কমিশন। বিষয়টি সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে চরগাজী ইউনিয়নের ভোটকেন্দ্রগুলো হরনী ইউনিয়ন এলাকায় সরিয়ে নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের ইউনিয়নে হরনীর বাসিন্দা নেই। যেটা বলা হচ্ছে, তা উল্লেখযোগ্য নয়। নির্বাচন কর্মকর্তা সরেজমিন পরিদর্শন করেও আমাদের অভিযোগের সত্যতা পেয়েছেন। দ্রুত আমাদের এলাকা থেকে কেন্দ্রগুলো সরিয়ে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে কার্যকর সিদ্ধান্তের প্রত্যাশা করছি।

রামগতি উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াহেদ বলেন, ইউপি নির্বাচন হবে পাশের উপজেলা হাতিয়ায় আর কেন্দ্র হবে রামগতিতে, এটা হতে পারে না। এ নিয়ে আদালতেরও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। বর্তমানে ভোটকেন্দ্র নিয়ে শান্তিশৃঙ্খলা ভঙ্গের আশঙ্কা রয়েছে। বিষয়টি আমরা প্রশাসনকেও জানিয়েছি। এ ব্যাপারে নোয়াখালী জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন জানান, ভোটকেন্দ্রগুলো সরেজমিন পরিদর্শন করা হয়েছে। এ সময় সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলা হয়। ওই কেন্দ্রগুলো নিয়ে সরকারি গেজেট রয়েছে। চরগাজী থেকে হরনীর ভোটকেন্দ্র সরিয়ে নেওয়া হবে কি না, তা এখনও বলা যাচ্ছে না।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2022 banglaekattor.com