মঙ্গলবার, ২৮ Jun ২০২২, ১১:৪২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
কাঁচা বাদামের পর এবার ভাইরাল ‘মাছ কাকু’ ‘মন ভালো নেই’ লেখা সেই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে তদন্তসাপেক্ষে ব্যবস্থা পদ্মা সেতু হয়ে ফরিদপুর থেকে বাস যাচ্ছে ঢাকায় সিজার দিয়ে স্বা’মীর পু’রুষাঙ্গ গোড়া থেকে অর্ধেক কে’টে দিলেন স্ত্রী মোংলা বন্দর থেকে পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকায় পণ্য যাচ্ছে সাড়ে ৩ ঘণ্টায় দাওয়াত দিয়ে বন্ধুদের রেখেই বিয়ে করতে গেলেন বর! ৬০ লাখ টাকার মানহানির মামলা পদ্মা সেতু নিয়ে ফেসবুকে ‘কটূক্তি’ অভিযোগে বিএনপি নেতা গ্রেফতার সিলেটে বানভাসী মানুষকে ১৫ হাজার কাঁঠাল উপহার দিলেন কাপাসিয়ার এমপি রিমি গোটা বিশ্ব চমকে গেছে, সেই পদ্মা সেতুর নকশা করেছেন কে? জানলে অবাক হয়ে যাবেন পদ্মা সেতুতে দাঁড়িয়ে ছবি তুলে তোপের মুখে সাফা কবির
১২০ ভরি স্বর্ণ উদ্ধার করে চেপে যাওয়ার চাকরি হারালেন এসপি

১২০ ভরি স্বর্ণ উদ্ধার করে চেপে যাওয়ার চাকরি হারালেন এসপি

১২০ ভরি স্বর্ণ উ’দ্ধারের পর বি’ষয়টি চে’পে গিয়ে স্বর্ণ কারবারির বি’রুদ্ধে মা’দকের মা’মলা করেছিল পুলিশ। সাড়ে পাঁচ বছর আগে সাতক্ষীরার পা’টকেলঘাটা থানার এ ঘটনায় চাকরি হা’রিয়েছেন পুলিশ সুপার (এসপি) আলতাফ হোসেন। বুধবার ট্যুরিস্ট পুলিশের সিলেট অঞ্চলে দায়িত্বরত আলতাফ হোসেনকে চাকরি থেকে অপসারণের তথ্য জানিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে স্ব’রা’ষ্ট্র ম’ন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ।

আলতাফ হোসেন ২০১৬ সালের ২৩ জুলাই থেকে পরের বছর ডিসেম্বর পর্যন্ত সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার ছিলেন। তার দায়িত্ব পালনের সময় ২০১৬ সালের ৬ অক্টোবর বিপ্লব চ্যাটার্জি নামে এক স্বর্ণ চোরাকারবারি আ’টক হন। তার কাছ থেকে ১২০ ভরি স্বর্ণ উ’দ্ধার করা হয়েছিল। পা’টকেলঘাটা থানায় উ’দ্ধার করা সোনার জ’ব্দ তালিকাও করা হয়েছিল।

কিন্তু সোনা চোরাচালানের মা’মলা না হয়ে এ ঘটনায় মা’দকের মা’মলা রেকর্ড করা হয়।স্ব’রা’ষ্ট্র ম’ন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, এসপি আলতাফ হোসেন স্বর্ণ উ’দ্ধারের ঘটনা মা’দক উ’দ্ধারের ঘটনায় সাজানোর বি’ষয়টি জানার পরও দায়ীদের বি’রুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেননি। এ বি’ষয়ে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অসত্য প্রতিবেদন পাঠান তিনি।

পুলিশের পক্ষ থেকে ঘটনাটি ত’দন্ত করে সত্যতা পাওয়ায় ২০১৯ সালে আলতাফ হোসেনের বি’রুদ্ধে বিভাগীয় মা’মলা হয়। এরপর আলতাফ হোসেনের ব্যাখ্যাও নেওয়া হয়। পরে পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি আতাউল কিবরিয়া এ বি’ষয়ে অধিকতর ত’দন্ত করেন। সেখানে আলতাফ হোসেনের বি’রুদ্ধে আনা অ’ভিযোগ প্রমাণিত হয়। পরে দ্বিতীয় দফায় আলতাফ হোসেনের ব্যাখ্যা চাওয়া হয়। সুত্রঃ সমকাল

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2022 banglaekattor.com