মঙ্গলবার, ২৮ Jun ২০২২, ০১:১৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
পদ্মা সেতুতে চুম্বন করে দুই হাত তুলে মোনাজাত করলেন এমপি অপু মা হতে পারবেন না নায়িকা মাহি, জানালেন নিজেই দ্বিতীয় বিয়ে করতে চাওয়ায় বাবার কান ও জিহ্বা কে’টে নিলেন ছেলে অবশেষে আমেরিকায় গ্রিন কার্ডের স্বপ্নপূরণ! মদিনায় পৌঁছেছেন প্রায় ৩ লাখ হজযাত্রী, সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়বা স্বামীকে পড়াবা, পুত্রবধূর জন্মদিনে ওমর সানীর উপদেশ কাঁচা বাদামের পর এবার ভাইরাল ‘মাছ কাকু’ ‘মন ভালো নেই’ লেখা সেই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে তদন্তসাপেক্ষে ব্যবস্থা পদ্মা সেতু হয়ে ফরিদপুর থেকে বাস যাচ্ছে ঢাকায় সিজার দিয়ে স্বা’মীর পু’রুষাঙ্গ গোড়া থেকে অর্ধেক কে’টে দিলেন স্ত্রী
১ জুন থেকে আবারো চালু হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত ট্রেন চলাচল

১ জুন থেকে আবারো চালু হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত ট্রেন চলাচল

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে প্রায় দুই বছর বন্ধ থাকার পর অবশেষে চালু হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল। এ রুটের যাত্রীবাহী ট্রেন তিনটি আগামী ১ জুন থেকে আবারও চলাচল করবে। মঙ্গলবার (১৭ মে) বার্তা সংস্থা টিএনএনের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

সূত্রের বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, আগামী মাসে বাংলাদেশ সফরে আসছেন ভারতের কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব। তার ওই সফরের সময় দুই দেশের মধ্যে মৈত্রী এক্সপ্রেস, বন্ধন এক্সপ্রেস ও নিউ জলপাইগুড়ি-ঢাকা মিতালী এক্সপ্রেস চলাচল আবার শুরু হবে।মহামারির আগে ঢাকা-কলকাতা রুটে মৈত্রী এক্সপ্রেস সপ্তাহে পাঁচদিন এবং খুলনা-কলকাতা রুটে বন্ধন এক্সপ্রেস দু’সপ্তাহ পরপর চলাচল করতো। কিন্তু করোনার প্রকোপে বন্ধ হয়ে যায় সেগুলো।

ট্রেন দুটি চালু করার সময় বাংলাদেশ ও ভারত একটি করে রেক দিয়েছিল। সবশেষ চালু হওয়া মিতালী এক্সপ্রেসের রেক দিয়েছে ভারত। ২০২১ সালের মার্চে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যৌথভাবে ঢাকা-নিউ জলপাইগুড়ি রুটের ট্রেনটি উদ্বোধন করেছিলেন।

বাংলাদেশিদের কাছে মৈত্রী ও বন্ধন এক্সপ্রেস বেশ জনপ্রিয়। প্রতি বছর বাংলাদেশ থেকে ভারতে চিকিৎসা করাতে যান লাখ লাখ মানুষ। শারীরিক জটিলতার কারণে অনেকের প্লেনে চড়ায় নিষেধাজ্ঞা থাকে, অনেকের আকাশপথে যাওয়ার সামর্থ্য থাকে না। আবার সড়কপথে যাওয়ার ধকলও নিতে পারেন না অনেকে। এ পরিস্থিতিতে তাদের একমাত্র ভরসা দু’দেশের মধ্যে চলাচলকারী ট্রেনগুলো।

তাছাড়া আগামী কয়েক বছরে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে রেল যোগাযোগে যুগান্তরী পরিবর্তন ঘটবে বলে মনে করা হচ্ছে। পদ্মা সেতু চালু হয়ে গেলে ঢাকা থেকে কলকাতা যেতে সময় লাগবে মাত্র তিন থেকে সাড়ে তিন ঘণ্টা। তাছাড়া বনগাঁ লোকালকে পেট্রাপোল পর্যন্ত চালানোর পরিকল্পনা রয়েছে ভারতীয় রেলের। সেক্ষেত্রে সীমান্ত পার হয়ে সরাসরি ট্রেনে উঠতে পারবেন বাংলাদেশ থেকে যাওয়া মানুষেরা।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2022 banglaekattor.com