সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৫০ পূর্বাহ্ন

স’রকারি পোশাকে গণবি’রোধী মা’স্তানি, কুষ্টিয়ার এসপিকে ব’রখাস্তের দা’বি হেফাজতের

স’রকারি পোশাকে গণবি’রোধী মা’স্তানি, কুষ্টিয়ার এসপিকে ব’রখাস্তের দা’বি হেফাজতের

ভা’স্কর্য ভাং’চুরের স’মর্থকদের হুঁ’শিয়ারি দেওয়া কুষ্টিয়ার পু’লিশ সু’পার এস এম তানভীর আরাফাতকে ব’রখাস্ত করতে স’রকারের প্রতি দা’বি জানিয়েছে হেফাজতে ইসলাম।শুক্রবার রাতে হেফাজতের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ই’সলামাবা’দীর গণমাধ্যমে পাঠানো একটি বিবৃতিতে এই দা’বি করা হয়।বি’বৃতিতে বলা হয়, “কুষ্টিয়ার এস’পি এস এম তানভীর আরাফাত কর্তৃক তথাকথিত মৌ’লবাদের ধু’য়া তু’লে হা’ত ভে’ঙে দেওয়ার হু’মকি স’রকারি পোশাকে গণবি’রোধী মা’স্তানি।

“পু’লিশের দায়িত্ব অ’পরাধ ঠেকানো এবং অ’পরাধীদের গ্রে’প্তার করে আ’দালতে বি’চারপ্রক্রিয়ায় পাঠানো। আর বি’চার করবে আ’দালত। কিন্তু পু’লিশ কোনো অ’পরাধীর হা’ত ভে’ঙে দিতে পারে না, কিংবা কোনো অ’পরাধীকে বি’নাবিচারে জে’ল খা’টাতেও পারে না। স’রকারের কাছে আমরা অ’বিলম্বে উক্ত এস’পিকে ব’রখাস্ত করার আহ্বান জানাই।”

কুষ্টিয়ায় ভা’স্কর্য ভা’ঙার প্র’তিবাদে গত সপ্তাহে আয়োজিত এক স’মাবেশে সেখানকার পু’লিশ সুপার তানভীর আরাফাত বলেন, “আমি সত্যি দুঃ’খিত, ল’জ্জিত, আবেগাপ্লুত, রা’গান্বিত। আমি এখানকার পুলিশ সু’পার। খুবই ল’জ্জিত যে আমাদের এখানে দুটি দু’র্ঘটনা ঘটেছে। একটি জাতির পিতার ভা’স্কর্য আরেকটি বাঘা যতীনের আবক্ষ।”

ভা’স্কর্য ভাং’চৃরকারীদের হুঁ’শিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, “বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। জাতির পিতার ভা’স্কর্য আপনারা ভা’ঙেন, আপনাদের স্প’র্ধা কত বড়! যাদের ধ’রা হয়েছে তাদের ক’ঠোর শা’স্তির মু’খোমুখি হতে হবে। ক’ঠোরভাবে বলতে চাই, পরবর্তীতে এমন কোনো ঘটনা যদি ঘটে, স’রকারকে একদম দু’র্বল মনে করবেন না মৌ’লবা’দী চ’ক্র। হা’ত কিন্তু ভে’ঙে দিব।

বাংলাদেশ যদি পছন্দ না হয়, তাহলে পাকিস্তানে চলে যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে তানভীর আরাফাত বলেছিলেন, “কোরআন আমরাও পড়েছি। কোরআন শরীফ চারবার খতম দিয়েছি। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আমিও পড়ি। আপনি বলার কে আমি বেহেস্ত যাব, কি যাব না? বেহেস্তে যাওয়ার টিকেট কি আপনি আমারে দিবেন?”

হেফাজতের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মামুনুল হক রাজধানীর ধোলাইপাড়ে বঙ্গবন্ধুর ভা’স্কর্য স্থাপনের বি’রোধিতা করার পর হেফাজতের নতুন আমির জুনাইদ বাবুনগরীও ভা’স্কর্য বসালে তা ‘টে’নেহিঁ’চড়ে’ ফে’লে দেওয়ার হু’মকি দেন হাটহাজারীর এক মাহফিলে।

এরপর কুষ্টিয়ায় রাতের আঁধারে বঙ্গবন্ধুর নির্মাণাধীন ভা’স্কর্য ভা’ঙা হয়। সবশেষ বিপ্লবী বাঘা যতীনের ভা’স্কর্যও ভাঙা হয় কুষ্টিয়ার কুমারখালীর কয়া এলাকায়।

বিবৃতিতে হেফাজত নেতা আজিজুল জক ই’সলামাবা’দী বলেন, “আমরা মনে করি, ভা’স্কর্য ভা’ঙার মত এ ধরনের স্যাবোট্যাজ ঘটিয়ে আ’লেম-ও’লামার ও’পর দায় চা’পিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা লু’টার চে’ষ্টা চলছে।

“সেইসাথে মৌ’লবাদ ও ধ’র্ম ব্যবসার জিগির তুলে আ’লেম-স’মাজকে ছোট করার সং’ঘবদ্ধ প্র’পাগান্ডা চলছে, যার পরিণতি কখনোই ভালো হবে না। যতই ক্’ষমতা থাকুক, আল্লাহর গ’জব আসলে দুনিয়ার কোনো ক্ষ’মতা দিয়েই তা ঠে’কানো যাবে না।”

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com