বাল্যবিবাহ ঠেকাতে বিনা সুদে পাওয়া যাবে লোন - বাংলা একাত্তর বাল্যবিবাহ ঠেকাতে বিনা সুদে পাওয়া যাবে লোন - বাংলা একাত্তর

রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৫:১৫ পূর্বাহ্ন

বাল্যবিবাহ ঠেকাতে বিনা সুদে পাওয়া যাবে লোন

বাল্যবিবাহ ঠেকাতে বিনা সুদে পাওয়া যাবে লোন

বাংলাদেশ ও তথা বিশ্বের অন্যতম প্রধান সমস্যা হল বাল্যবিবাহ। একবিংশ শতাব্দীতে এসে কন্যা সন্তানকে এখনো আর্থিক ও সামাজিক বোঝা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। করোনা মহামারীর কারণে এ সমস্যা আরো প্রকট আকার ধারণ করেছে। কারণ করোনায় মানুষের আয় কমে গেলেও খরচ কমেনি। এ খরচের অজুহাতেই দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে বেড়েই চলছে বাল্যবিবাহ।

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, মেয়েকে বড় করা ও তার পড়াশুনার আর্থিক খরচ কমাতে প্রাপ্তবয়ষ্কের অনেক আগেই বিয়ে দিয়ে দিচ্ছেন অনেক অভিভাবক।

এ সমস্যা সমাধানে খ্যাতনামা বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আমাল ফাউন্ডেশন এবং অন্যতম বৃহত্তম আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইপিডিসি ফাইন্যান্স এগিয়ে এসেছে। শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে বাল্যবিবাহ ঠেকাতে প্রতিষ্ঠান দুটি ঋণ সুবিধা দিচ্ছে। গত মাসে বগুড়ায় আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঋণ কার্যক্রম শুরু হয়।

মূলত তিনটি সহজ শর্তে সুবিধাবঞ্চিত পরিবারকে ব্যবসা গড়ে তোলার জন্য বিনাসুদে ঋণ দেয়া হবে। ঋণের জন্য আবেদনকারীর কন্যা সন্তানের বয়স ১২-১৮ বছরের মধ্যে হতে হবে, কন্যা সন্তান প্রাপ্তবয়স্ক হবার পূর্বে তাকে বিয়ে দেয়া যাবে না এবং কন্যা সন্তানের সর্বনিম্ন উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে।

আবেদন যাচাইয়ের পর সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আবেদনকারী সবার সামনে শপথ গ্রহণের মাধ্যমে আমাল ফাউন্ডেশন এবং আইপিডিসির কাছ থেকে ঋণ গ্রহণ করবেন। ঋণ প্রাপ্তির পর আমাল ফাউন্ডেশন আবেদনকারীকে নিজস্ব ব্যবসা গড়ে তোলার সকল প্রশিক্ষণ ও সুযোগ-সুবিধা পেতে সহযোগিতা করবে।

৩০ দিনের গ্রেস পিরিওডের পর আইপিডিসির পক্ষ থেকে আমাল ফাউন্ডেশন আবেদনকারীর কন্যা সন্তানের শিক্ষাব্যবস্থার উপর বিশেষ নজরদারি রেখে কিস্তি গ্রহণ করতে শুরু করবে।

আমাল ফাউন্ডেশন এবং আইপিডিসি মনে করে, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে এ ঋণ সমাজে কন্যা সন্তানকে বোঝা হিসেবে দেখার দৃষ্টিভঙ্গি রোধ করে গ্রামীণ আর্থিক উন্নয়নের পথ সুগম করবে।
সূত্র : ইউএনবি

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com