ক্লাসে পড়া না পারায় শিক্ষার্থীদের দিয়ে জুতা পরিষ্কার করালেন প্রধান শিক্ষক - বাংলা একাত্তর ক্লাসে পড়া না পারায় শিক্ষার্থীদের দিয়ে জুতা পরিষ্কার করালেন প্রধান শিক্ষক - বাংলা একাত্তর

মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১১:৪৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
দেশে রেমিট্যান্স পাঠানোর প্রক্রিয়া সহজ করলো কেন্দ্রীয় ব্যাংক ব্রেকিং নিউজঃ মুশফিক লিটনকে অবিশ্বাস্য সম্মাননা দিল আইসিসি কান উৎসবে দীপিকার নেকলেসে লেখা ‘ফি-আমানিল্লাহ’! প্যারিসে ইমরানের কণসার্টে অশান্তির ঝড়, গান না করেই ছাড়তে হলো স্টেজ স্ত্রীর বড় বোনকে শয্যাশায়ী করে ভিডিও ধারন, ছোট বোনের জামাই গ্রেফতার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের হাতে আলাদীনের চেরাগ, বাড়ি গাড়িসহ কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরির পর যে স্ট্যাটাস দিলেন মুশফিকের স্ত্রী যত খুশি ডলার আনা যাবে, লাগবেনা জবাবদিহিতা যানচলাচলের জন্য প্রস্তুত স্বপ্নের পদ্মা সেতু কাপাসিয়ায় দুই বেকারির মালিককে এক লাখ টাকা জরিমানা
ক্লাসে পড়া না পারায় শিক্ষার্থীদের দিয়ে জুতা পরিষ্কার করালেন প্রধান শিক্ষক

ক্লাসে পড়া না পারায় শিক্ষার্থীদের দিয়ে জুতা পরিষ্কার করালেন প্রধান শিক্ষক

সাতক্ষীরায় ক্লাসে পড়া না পারায় শিক্ষার্থীদের দিয়ে জুতা পরিষ্কার করানোর অ’ভিযোগ উঠেছে প্রধান শিক্ষকের বি’রুদ্ধে। সোমবার (১১ এপ্রিল) সকালে সাতক্ষীরা সদর উপজে’লার বারপোতা স’রকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। এতে ভু’ক্তভোগী শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি সুকুমার স’রকার সাতক্ষীরা জে’লা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অ’ভিযোগ দিয়েছেন।

অ’ভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ সকালে পঞ্চম শ্রেণির বাংলা ক্লাস নেওয়ার জন্য যান বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহা’না আক্তার। এ সময় কয়েকজন শিক্ষার্থী পড়া না পারায় শা’রীরিকভাবে নি’র্যাতন করেন তিনি। এরপর তাদের দিয়ে বিদ্যালয়ে পড়ে থাকা ময়লা জুতাও পরিষ্কার করান। বি’ষয়টি জানাজানি হলে তোপের মুখে পড়েন ওই শিক্ষক। শিক্ষার্থীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে অ’ভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের বি’রুদ্ধে সাতক্ষীরা জে’লা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অ’ভিযোগ দেন বিদ্যালয়টির পরিচালনা কমিটির সভাপতি সুকুমার স’রকার।

এ বি’ষয়ে সুকুমার স’রকার দাবি করেন, ‘অ’ভিযুক্ত শিক্ষকের কারণে বিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ন’ষ্ট হচ্ছে। তার অ’ত্যাচারে বিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষার্থী ঝরে গেছে। এ নিয়ে একাধিকবার সংশ্লিষ্ট শিক্ষা দফতরে অ’ভিযোগ করেও কোনও প্রতিকার হয়নি।’

তিনি অ’ভিযোগ করে আরও বলেন, ‘অ’ভিযুক্ত শিক্ষকের বি’রুদ্ধে একাধিক বিভাগীয় মা’মলা, জাতীয় দিবস পালন না করা, সময় মতো বিদ্যালয়ে না আসা, স্লিপের টাকা আ’ত্মসাৎসহ বিদ্যালয়ের সরঞ্জাম চু’রি করে বিক্রয় করার অ’ভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়াও দরিদ্রতার সুযোগ নিয়ে ৯ বছর বয়সী এক শিক্ষার্থীকে দিয়ে নিজের নিত্যপ্রয়োজনীয় কাজ করান ওই শিক্ষক। এতে করে ওই শিক্ষার্থী স্কুলে আসতে পারে না।’

অ’ভিযুক্ত শাহা’না আক্তার বলেন, ‘পড়া না পারলে কী মা’রাটা অ’পরাধ? অভিভাবকরা যদি তাদের স’ন্তানদের শাসন করতে পারেন, তাহলে শিক্ষকরা কেন নয়? আমরা শিক্ষকরা যদি শিক্ষার্থীদের শাসন করার ক্ষমতা না রাখি তাহলে শিক্ষকতা কীসের জন্য? পড়া না পারায় ওই শিক্ষার্থীদের বেত দিয়ে মা’রা হয়েছে।’

শিক্ষার্থীদের দিয়ে জুতা পরিষ্কার করানো বি’ষয়ে তিনি বলেন, ‘ক’রোনায় বিদ্যালয় দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। এ কারণে বিদ্যালয়ে পড়ে থাকা নিত্যপণ্য সামগ্রী ময়লা হয়ে গিয়েছিল। এ কারণে শিক্ষার্থীদের দিয়ে বিদ্যালয়ে পড়ে থাকা জুতা পরিষ্কার করানো হয়েছে, যাতে পরে সেটা ব্যবহার উপযোগী হয়।’

বিদ্যালয় পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য দফতরি রয়েছেন। শিক্ষার্থীদের দিয়ে কেন করানো হলো? জবাবে প্রধান শিক্ষক বলেন, ‘দফতরি আমার কোনও কথা শোনে না। আমি অ’সুস্থ থাকি সবসময়। নিজে কোনও কাজ করতে পারি না। এ কারণে বা’ধ্য হয়ে ওই শিক্ষার্থীদের দিয়ে জুতা পরিষ্কার করিয়েছি।’

জে’লা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্ম’দ রুহুল আমীন বলেন, ‘এ বি’ষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি একটি লিখিত অ’ভিযোগ দিয়েছেন। অ’ভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে একজন সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তাকে ঘটনাটি ত’দন্তের জন্য দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ত’দন্ত রিপোর্ট পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com