সেই মসজিদে তারাবি পড়ান বিশ্বজয়ী হাফেজ - বাংলা একাত্তর সেই মসজিদে তারাবি পড়ান বিশ্বজয়ী হাফেজ - বাংলা একাত্তর

মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ০৫:১৭ পূর্বাহ্ন

সেই মসজিদে তারাবি পড়ান বিশ্বজয়ী হাফেজ

সেই মসজিদে তারাবি পড়ান বিশ্বজয়ী হাফেজ

চট্টগ্রাম শহর থেকে কিছুটা দূরে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের আবাসিক প্রকল্প ‘কল্পলোক’। নান্দনিক পরিবেশে গড়ে উঠেছে এই আবাসিক প্রকল্প। আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধা সেখানে রয়েছে। কল্পলোকে নির্মিত হয়েছে আধুনিক ও দৃষ্টিনন্দন প্রথম মডেল মসজিদ। এই মসজিদে তারাবি পড়াচ্ছেন বিশ্বসেরা হাফেজ আবু রায়হান।

চট্টগ্রাম নগরীর বেশিরভাগ মসজিদের তারাবির নামাজ শেষ হয় দশটার দিকে। তবে এই মডেল মসজিদে তারাবি শেষ হয় সাড়ে এগারোটার দিকে। বিশ্বজয়ী হাফেজ আবু রায়হানের কন্ঠে কোরআন তেলাওয়াত শুনতে অনেকেই দীর্ঘ সময় নিয়ে এই মসজিদে তারাবি আদায় করছে।

নগরীর অক্সিজেন নয়ারহাট এলাকা থেকে তারাবি নামাজ আদায় করতে আসেন ষাটোর্ধ্ব সিরাজুল ইসলাম। কোমরে ব্যথার কারণে দাঁড়িয়ে নামাজ আদায় করতে কষ্ট হয় তার। তাই চেয়ারে বসেই দীর্ঘ সময়ের তারাবির নামাজ আদায় করেন তিনি।

দৃষ্টিনন্দন এই মডেল মসজিদে পুরুষের পাশাপাশি মহিলাদের জন্য নামাজের সুব্যবস্থা রয়েছে। যেখানেও অর্ধ শতাধিক মহিলার দূর-দূরান্ত থেকে নামাজ আদায় করতে আসেন।কর্ণফুলী উপজেলার ফকিরনীর হাট শাহমীরপুর গ্রাম থেকে আসা নাজিম বলেন, বন্ধুদের কাছ থেকে শুনেছি এখানে আবু রায়হান তারাবি পড়াচ্ছেন। তাই একটু কষ্ট হলেও মোটরসাইকেল নিয়ে এখানে চলে আসি। আবু রায়হানের কণ্ঠে তেলাওয়াত শুনতেই হৃদয় জুড়িয়ে যায়।

হাফেজ আবু রায়হান ২০১৮ সালে কাতারে আয়োজিত তিজান আন নূর ইন্টারন্যাশনাল হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করেন। এ ছাড়াও কেরাত প্রতিযোগিতায়ও চতুর্থ স্থান অর্জন করেন তিনি।হাফেজ আবু রায়হান নারায়ণগঞ্জ আড়াইহাজারে মুফতি আবদুল কাইয়ুম প্রতিষ্ঠিত বল্লভদী আল ইসলাহ একাডেমির ছাত্র ছিলেন। এখন ঢাকার উত্তরায় মাদরাসাতুল ইহসানে পড়ছেন।

জানা গেছে, এই মডেল মসজিদ কমপ্লেক্সে লাইব্রেরি, গবেষণা কক্ষ, ইসলামিক সাংস্কৃতিক কার্যক্রম, শিশু শিক্ষা কার্যক্রম এবং পুরুষ ও মহিলাদের পৃথক নামাজ কক্ষ, মেহমানদের আবাসন ব্যবস্থা, বিদেশি পর্যটকদের পরিদর্শনের ব্যবস্থা রয়েছে। চারতলা বিশিষ্ট মসজিদে হজযাত্রী ও ইমাম প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা ছাড়াও রয়েছে মৃতদেহ গোসলের ব্যবস্থা। আধুনিক কারুকাজে নির্মিত এ মসজিদটি ধর্মীয় কার্যাদির পীঠস্থান। মসজিদটিতে একসঙ্গে ১ হাজার ২৫০ জন মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারবেন।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com