মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ০৩:০৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মা’রা গেলেন চিত্রনায়ক শাহিন আলম মায়ের দেওয়া ৫৫ টাকার ব্যবসা থেকে গ্রুপ অব কোম্পানীর মালিক! হাসপাতালের অনিয়মের নিউজ করায় ঠিকাদারের মার প্যাচে সাংবাদিকের কারাদন্ড রাস্তায় ফেলা ময়লা তুলে সরকারি কর্মকর্তাদের বাসার গেটে রেখে গেলেন মেয়র আতিক চার প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে অবশেষে লটারির করে বিয়ে গোপনে ৮ বিয়ে! যেভাবে সুন্দরী মেয়েদের টার্গেট করতো নক্সবন্দী প্রথম সংবাদ পাঠের আনন্দে কাঁদলেন ট্রান্সজেন্ডার তাসনুভা স্ত্রীকে ৭ টুকরা করে কাজে যান স্বামী ভাড়া কম, চ’লন্ত বাস থেকে না’রীকে রা’স্তায় ছু’ড়ে ফে’লে দিল হেলপার, ভাইরাল ভিডিও এদেশে অ’ন‍্যায়ের বি’রুদ্ধে অবস্থান নেয়াটাই অ’ন‍্যায় : সারোয়ার আলম
শীঘ্রই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে অবৈধ মোবাইল ফোন

শীঘ্রই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে অবৈধ মোবাইল ফোন

দেশে মোবাইল ফোনের ক্ষেত্রে শীঘ্রই শুরু হতে যাচ্ছে ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেনটিটি রেজিস্টার (এনইআইআর)। এর ফলে অবৈধ পথে দেশে আসা, ক্লোন বা চুরি করা হ্যান্ডসেট আর ব্যবহার করা সম্ভব হবে না। এসকল ফোনে চলবে না কোনো অপারেটরের সিমকার্ড। সরকারের ইচ্ছে রয়েছে ২০২১ এর এপ্রিল থেকেই এ প্রক্রিয়াটি চালু করার তবে প্রক্রিয়াটি বাস্তবায়নকারী সংস্থা জানিয়েছে করোনা পরিস্থিতির কারণে আরও কয়েক মাস বেশি সময় লাগতে পারে।

সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এটি বাস্তবায়নের জন্য বিটিআরসি একটি কেন্দ্রীয় প্ল্যাটফর্ম বা কমন সার্ভার করবে যেখানে দেশের আইএমইআই ডাটাবেজ (কম্পিউটারে সংরক্ষিত তথ্যভান্ডার) এবং দেশের সব মোবাইলফোন অপারেটরে সক্রিয় থাকা সিমের সঙ্গে হ্যান্ডসেটগুলোর ডাটার সিঙ্ক্রোনাইজ করে তা যাচাই-বাছাই করতে পারবে। একন পর্যন্ত এনইআইআর
নক অটোমেশন অ্যান্ড আইএমইআই ডাটাবেজ (এনএআইডি) সিস্টেমে এখন পর্যন্ত প্রায় ১৪ কোটি আইএমইআই নম্বর সংযোজন হয়েছে।

এই সিস্টেমের আইএমইআইসমূহ, মোবাইল অপারেটরের ইআইআর এবং বিটিআরসিতে স্থাপিত জাতীয় পর্যায়ের কেন্দ্রীয় এনইআইআর একটি সমন্বিত সিস্টেম হিসেবে কাজ করবে। এনইআইআর সিস্টেমটি সরাসরি প্রত্যেক মোবাইল অপারেটরের নিজ নিজ ইআইআরের সঙ্গে সংযুক্ত থাকবে। এক্ষেত্রে গ্রাহকদের মোবাইল ফোন হ্যান্ডসেট স্বয়ংক্রিয়ভাবে মোবাইল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে নিবন্ধিত হয়ে চালু হবে এবং এনইআইআর সব হ্যান্ডসেটের বৈধতা যাচাইয়ের মাধ্যমে মোবাইল ফোন হ্যান্ডসেট চালুর বিষয়ে তাত্ক্ষণিক সিদ্ধান্ত দেবে।

বর্তমানে আমাদের দেশের হ্যান্ডসেট আমদানিকারকরা তাদের আমদানির অনাপত্তিপত্র নিয়ে থাকেন অনলাইনেই। আর এটি চালু হলে এই পদ্ধতিতে কাস্টম হাউসের জন্য আলাদা মডিউল এবং একটি ডিভাইস থাকবে, যা দিয়ে কমিশনের অনাপত্তিপত্রে থাকা আইএমইআই নম্বর যাচাই করে শুল্কায়ন করা যাবে। এতে ভুল আইএমইআই নম্বরের মোবাইল ফোন দেশে আসতে পারবে না। এখন পর্যন্ত ১৪ কোটি আইএমইআই নম্বর এই ডাটাবেজে নিবন্ধিত হয়েছে।

এছাড়া আরও জানা গেছে, এই সিস্টেম চালু হলে মোবাইলে থাকা সিমের রেজিষ্ট্রেশন অনুযায়ী ফোনটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে রেজিস্ট্রেশন হয়ে যাবে এবং কেউ যদি জানতে চায় বিটিআরসির ডাটাবেজে তার ফোনের আইএমইআই নম্বর আছে কিনা তাহলে তাকে # /, . ইত্যাদি বিশেষ চিহ্ন বাদ দিয়ে শুধু ১৫ সংখ্যার ফোনের আইএমইআই নম্বর ১৬০০২ নম্বরে এসএমএসের করতে হবে। ফিরতে এসএমএসে বিটিআরসি জানিয়ে দিবে তার ফোন বৈধ কিনা। এছাড়া যারা বিদেশ থেকে ফোন আনবে তারাও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখিয়ে বৈধতা অর্জন করতে পারবে।

প্রসঙ্গত, এই প্রকল্পে প্রযুক্তি সরবরাহ ও পরিচালনাকারী কম্পানি হলো ‘সিনেসিস আইটি’। কম্পানিটির সাথে এই কাজে জয়েন্ট ভেঞ্চারে সঙ্গে রয়েছে র‌্যাডিসন টেকনোলজি ও কম্পিউটার ওয়ার্ল্ড। এটি বাস্তবায়িত হলে শুধু অবৈধ ফোন ব্যবহার ই বন্ধ হবে না সরকার প্রতি বছর ৪ হাজার কোটি টাকার রাজস্বও পাবে

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    অ!

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com