বিয়ে না করেও একসাথে থাকেন বাংলাদেশের যেসব তরুণ তরুণীরা - বাংলা একাত্তর বিয়ে না করেও একসাথে থাকেন বাংলাদেশের যেসব তরুণ তরুণীরা - বাংলা একাত্তর

সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:২৭ পূর্বাহ্ন

বিয়ে না করেও একসাথে থাকেন বাংলাদেশের যেসব তরুণ তরুণীরা

বিয়ে না করেও একসাথে থাকেন বাংলাদেশের যেসব তরুণ তরুণীরা

বিশ্বজুড়ে লিভ টুগেদার একটি বহুল পরিচিত বিষয় হলেও বাংলাদেশের রক্ষণশীল সমাজ এখনও এটি মেনে নেয়ার পক্ষে নয়। তবে এরপরও বাংলাদেশেও গত এক দশক ধরে উন্নত অনেক দেশের মতো বিয়ে বা সামাজিকভাবে স্বীকৃত সম্পর্কের বাইরে গিয়ে প্রাপ্তবয়স্ক ছেলে-মেয়েদের একত্রে বসবাস বা লিভ টুগেদারের চল দেখা যাচ্ছে।

তবে লিভ টুগেদারের বিষয়টি বাংলাদেশে এখনো খুবই সীমিত পরিসরে এবং গোপনে রয়েছে। যদিও সমাজবিজ্ঞানীরা বলছেন, বিশ্বায়ন ও দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তনের কারণে এ ধরনের সম্পর্কের সংখ্যা ধীরে হলেও বাড়ছে। এই বিষয়ে সম্প্রতি একটি গণমাধ্যমের পক্ষ থেকে কথা বলা হয়েছে বেশ কয়েকজনের সাথে।

‘ক’ গণমাধ্যমটিকে বলছিলেন, ”আমাদের বিয়ের ব্যাপারে দুই পরিবারই প্রাথমিক সম্মতি জানিয়েছে । কিন্তু যখন আমরা দ্বৈত-জীবন শুরু করি এসব চিন্তা মাথায় ছিল না। দুই পরিবারই তুলনামূলক রক্ষণশীল হওয়ায় তখন এতটা অন্তরঙ্গতা মেনে নিতেন না। তাই আমরা পরিবার এ সংক্রান্ত কিছুই জানতে দেইনি। পরস্পরের বোঝাপড়া দারুণ ছিল তাই পারিবারিক স্বীকৃতির কথা না ভেবেও আমরা একসাথে থাকা শুরু করেছিলাম।”

বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের চাকুরীজীবী একজন তরুণী বলছেন, ”একত্রে চাকরি করতে গিয়ে আমাদের দুজনের দুজনকে ভালো লাগে। কিন্তু ওর পরিবারে অনেক দায়িত্ব রয়েছে, এখন তার পক্ষে বিয়ে করা সম্ভব নয়। আমিও এখনি বিয়ে করতে চাই না।” ঢাকার একটি অভিজাত এলাকায় তারা একটি ছোট অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া নিয়ে থাকেন। ভাড়া নেয়ার সময় তারা স্বামী-স্ত্রী হিসাবে থাকবেন বলে পরিচয় দিতে হয়েছে।

এই তরুণী জানাম, তাদের দুজনকেই ঢাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতে হতো। একইসাথে থাকলে দুজনের খরচ যেমন কমবে, পাশাপাশি দম্পতি হিসাবে তারা কেমন হবেন, বোঝাপড়া কেমন হবে, সেটাও পরিষ্কার হবে। এসব ভেবেই একসঙ্গে বাসা ভাড়া করে থাকতে শুরু করেন তারা। তবে দুজনের পরিবার তাদের একত্রে থাকার বিষয়ে এখনো জানে না।

এদিকে, লিভ টুগেদারে বাংলাদেশের যুগলরা কতটা আগ্রহী হয়ে উঠেছে, এ নিয়ে বাংলাদেশে এখনো কোন গবেষণা হয়েছে বলে তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে যখন যুগলদের মধ্যে নানা সমস্যা দেখা দেয়, তখন তাদের পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে কোন আইনগত বা সামাজিক সম্পর্কের বাইরে গিয়ে এভাবে একত্রে বসবাসের বিষয়টি বেরিয়ে আসে।

‘খ’ জানাচ্ছিলেন, তার পরিচিত এরকম বেশ কয়েকটি যুগল রয়েছে, যারা এভাবে একত্রে বসবাস করছেন। কয়েকটি দম্পতি রয়েছে, যারা একসময় লিভ টুগেদার করতেন, তবে এখন বিয়ে হয়ে গেছে। আবার কেউ কেউ রয়েছেন, যারা একসময় লিভ টুগেদারে থাকলেও সেই সম্পর্ক এখন ভেঙ্গে গেছে। তবে অনেকের মধ্যেই এ ধরনের সম্পর্কের প্রতি আগ্রহ বাড়ছে বলে তিনি জানান।

বেসরকারি সংস্থা আইন ও শালিস কেন্দ্রের পরিচালক নীনা গোস্বামী বলছেন, ”আমাদের কাছে এমন অনেক অভিযোগ আসে, যে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে একত্রে বসবাস করেছেন। কিন্তু এখন বিয়ে করতে রাজি হচ্ছে না। তারা সরাসরি লিভ টুগেদার করার কথা বলে না। কিন্তু এ ধরণের অভিযোগের সংখ্যা একেবারে কম নয়।” এসব ক্ষেত্রে সাধারণত প্রতারণা বা বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com