মনোনয়ন লাভে ব্যর্থ আ’লীগ নেতা প্রিজাইডিং অফিসার! - বাংলা একাত্তর মনোনয়ন লাভে ব্যর্থ আ’লীগ নেতা প্রিজাইডিং অফিসার! - বাংলা একাত্তর

বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:১৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
মনোনয়ন লাভে ব্যর্থ আ’লীগ নেতা প্রিজাইডিং অফিসার!

মনোনয়ন লাভে ব্যর্থ আ’লীগ নেতা প্রিজাইডিং অফিসার!

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় আগামী ২৮ নভেম্বর ৬টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত আওয়ামী লীগের দুই নেতাও প্রিজাইডিং (ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা) হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন। এদিকে নৌকা প্রতীকে চেয়ারম্যান পদে দলের মনোনয়ন বঞ্চিত আওয়ামী লীগ নেতাদের প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব দেয়ায় সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।

জানা গেছে, উপজেলার গোয়ালেরচর ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন উপজেলা তাঁতী লীগের সহ-সভাপতি এম এ রুহুল আমীন ও গোয়ালেরচর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি
শাহনেওয়াজ সাজু মাস্টার।

এম এ রুহুল আমীন জেলা তাঁতী লীগের সদস্য এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক পদেও আসীন রয়েছেন। এছাড়া তিনি স্থানীয় সভারচর মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। অন্যদিকে শাহনেওয়াজ সাজু স্থানীয় আহম্মেদপুর নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে কর্মরত। নির্বাচনে অংশ নেয়ার লক্ষ্যে তারা দু’জনই জেলা ও ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগের কার্যালয় থেকে দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে তা পূরণ করে জমা দিয়েছিলেন।

ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় মনোনয়ন পেতে তারা ব্যানার-ফেস্টুনে প্রচার-প্রচারণাও করেছেন। করেছেন এলাকায় গণসংযোগও। কিন্তু শেষমেষ তারা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন লাভে ব্যর্থ হন। এক্ষেত্রে মনোনয়ন পেয়েছেন ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান শেখ মোহাম্মদ হারুনুর রশীদ।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, শাহনেওয়াজ সাজু মাস্টার প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছে গাইবান্ধা ইউপি নির্বাচনে গাইবান্ধা সুরুজ্জাহান উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে। এম এ রুহুল আমীন প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন চরগোয়ালিনী ইউপি নির্বাচনে ডিগ্রিচর উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে।

গাইবান্ধা ইউপি নির্বাচনে ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক সরদার বলেন, ‘শাহনেওয়াজ সাজু মাস্টার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে এখন কিভাবে প্রিসাইডিং অফিসার হন? তাকে দিয়ে নিরপেক্ষ নির্বাচন হতে পারে না।’

গাইবান্ধা সুরুজ্জাহান উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার শাহনেওয়াজ সাজু মাস্টার বলেন, ‘দল আমাকে মনোনয়ন না দিয়ে ইউপির চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদকে মনোনয়ন দিয়েছে। আমি নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করতে চাইনি। কিন্তু কর্তৃপক্ষ আমাকে প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব দিয়েছে।’

চরগোয়ালিনী ইউপি নির্বাচনে ডিগ্রিচর উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার এম এ রুহুল আমীন বলেন, ‘আমি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়ে ছিলাম। কিন্তু দল আমাকে মনোনয়ন দেয়নি। প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। এটা আমার কোনো কিছু না।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জাহিদুর রহমান এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘বিষয়টি রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জানান। পরে আমি দেখবো।’ রিটার্নিং কর্মকর্তা ফারুক আল ফয়সাল বলেন, ‘এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে অবহিত করুন।’

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোছা: হোসনে আরা বলেন, ‘দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং কর্মকর্তারা আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম কিনে ছিলো কিনা, সেটা আমাদের জানা নেই। আমরা তাদের দায়িত্ব দিয়েছি শিক্ষক হিসেবে। বিষয়টি আগে জানালে ভালো হতো। এখন তো সময় কম। এরপরও বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।’ সূত্রঃ নয়া দিগন্ত

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com