ভাস্কর্য নির্মাণ হারাম ও নাজায়েজ ঘোষণা করে ফতোয়া প্রকাশ - বাংলা একাত্তরভাস্কর্য নির্মাণ হারাম ও নাজায়েজ ঘোষণা করে ফতোয়া প্রকাশ - বাংলা একাত্তর

মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:৪২ অপরাহ্ন

ভাস্কর্য নির্মাণ হারাম ও নাজায়েজ ঘোষণা করে ফতোয়া প্রকাশ

ভাস্কর্য নির্মাণ হারাম ও নাজায়েজ ঘোষণা করে ফতোয়া প্রকাশ

দেশে চলমান ভাস্কর্য ইস্যুতে দেশের শীর্ষ উলামাদের ব্যানারে ফতোয়া প্রদান করেছেন মাওলানাদের একাংশ। তারা বলেন, পূজার জন্য না হলেও যে কোনো ভাস্কর্য নির্মাণ ও স্থাপন ইসলাম সম্মত নয়।আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটিতে দেশের শীর্ষ উলামা ও মুফতিগণের ব্যানারে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন ফতোয়া প্রদান করেন তারা।

তারা বলেন, মানুষ বা অন্য কোনো প্রা’ণীর ভাস্কর্য আর মূর্তির মাঝে শরীয়তকতৃক নি’ষিদ্ধ হওয়ার ব্যাপারে কোনো পার্থক্য নেই। পূজার উদ্দেশ্য না হলেও তা স’ন্দেহাতীতভাবে নাজায়েয ও হারাম। ইসলামের সুস্পষ্ট বিধানকে পাশ কাটিয়ে প্রা’ণীর ভাস্কর্য আর মূর্তির মাঝে পার্থক্য করে প্রা’ণীর ভাস্কর্যকে বৈধ বলা সত্য গো’পন করা এবং কোরআন ও সুন্নাহের বিধান অমান্য করার নামান্তর।

তারা আরও বলেন, যারা বলছেন মূর্তি ও ভাস্কর্য এক নয় তারা ভু’ল বলছেন। সত্যকে গো’পন করছেন বলেও জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে ফতোয়া পাঠকারী ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার বসুন্ধারার মুফতি এনামুল হক বলেন, এটি কোরআন ও সুন্নাকে অমান্য করা। এসময় কোরান ও হাদিসের বিভিন্ন উদ্ধৃতি তুলে ধরেন ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার বসুন্ধরার মুফতি ইনামুল হক বলেন, ইসলামে ভাস্কর্য ও মূর্তি উভ’য়ে নি’ষিদ্ধ। এটি নির্মাণ ক’ঠোরভাবে হারাম ও পাপের।

এর আগে দুপুর ১২টায় হেফাজতে ইসলামের পক্ষ থেকে একই বি’ষয়ে একটি সংবাদ সম্মেলন ডাকা হলেও পরে তা হয়নি।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com