দ্বিতীয় বিয়ে ও সংসার নিয়ে যা মুখ খুললেন শখ - বাংলা একাত্তরদ্বিতীয় বিয়ে ও সংসার নিয়ে যা মুখ খুললেন শখ - বাংলা একাত্তর

বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:২৭ পূর্বাহ্ন

দ্বিতীয় বিয়ে ও সংসার নিয়ে যা মুখ খুললেন শখ

দ্বিতীয় বিয়ে ও সংসার নিয়ে যা মুখ খুললেন শখ

দেশের টিভি নাটকে এক সময় জনপ্রিয় মুখ ছিলেন। নানা রকম বিজ্ঞাপনেও দেখা মিলতো। দেশের প্রায় সব বড় শহর ছেয়ে গিয়েছিল তার হাসিমাখা ছবির বিলবোর্ডে। সেই আনিকা কবির শখ দীর্ঘ দিন শোবিজে অনিয়মিত। এবার তিনি ফের আসলেন মিডিয়ার সামনে।১৫ নভেম্বর জাগো এফএমে লাইভ সাক্ষাৎকারে অংশ নেন অভিনেত্রী। সেখানে তিনি ব্যক্তিগত জীবনের নানা কথা বলেন। জানান বন্ধুত্ব-প্রেম, বিয়ে বিচ্ছেদ, সংসার ও অভিনয় নিয়ে অনেক কথা।

সাক্ষাৎকারের প্রথম দিকে নিজের ক্যারিয়ার এবং জনপ্রিয় ওয়ে ওঠার বিষয়ে শখ বলেন, আমরা যে সময়ে কাজ শুরু করি, তখন কাজের পরিবেশটা ভিন্ন ছিল। আমরা কোনো প্ল্যাটফরম থেকে আসি নাই। তখন কাজের প্রতিযোগিতা ছিল আলাদা। কাজ দিয়ে যুদ্ধ করে আগাতে হতো। এখন যেমন প্ল্যাটফরম দিয়ে আসলে পেছন থেকে একটা ব্যাকআপ পাওয়া যায়। আমাদের ক্ষেত্রে ওই সাপোর্টটা ছিল না। আমরা একদম নিজে নিজেই কাজ করে এসেছি।

ক্যারিয়ারের কঠিন সময়ের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, আমার ক্যারিয়ারের কঠিন সময় ছিল ২০১০-১১ সাল। তখন আমি ধুমছে কাজ শুরু করেছি। ফ্যামিলি বেশ সাহায্য করেছিল। বাবার হেল্প পেতাম সব সময়। নিজের অভিনয়কালে গুরুত্বপূর্ণ সময়ের বিষয়ে শখ বলেন, আমার অভিনয়ের টার্নিং পয়েন্ট ছিল ‘সিকান্দার বক্স’। এখানে ডিরেক্টর সাগর জাহান, আর মোশাররফ ভাই অনেক সাহায্য করেছেন। আসলে ‘সিকান্দার বক্স’ থেকেই অভিনয় ভালো হওয়া শুরু আমার। মোশাররফ ভাই, প্রত্যেকটা বিষয় ধরে ধরে বুঝিয়ে দিতেন। বলতেন, ‘শখ তুই এটা এভাবে বল, এভাবে কর।’

অভিনয়ের আগের জীবন এবং পরবর্তী জীবন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আগে কলেজের বন্ধুরা ‘তুই তুই’ করে বলতো। এখন ‘তুমি’ করে বলে। অনেক কিছুই পরিবর্তন হয়েছে বলে জানান এই অভিনেত্রী। তবে শখ জানান, এখনো আগের মতো রিকশায় ঘুরা, ফুচকা খাওয়া এসব উপভোগ করেন। মাঝেমধ্যে স্বামীকে নিয়ে বাইরেও ঘুরতে যান। অন্যান্য তারকাদের সঙ্গে সম্পর্ক কেমন রয়েছে- এ প্রশ্নে তিনি বলেন, সবার সঙ্গে ভালো সম্পর্ক আছে।

সম্প্রতি ইমনের সঙ্গে যোগাযোগের কথা উল্লেখ করে শখ বলেন, তার সঙ্গে প্রায় কথা হয়। সে খোঁজখবর নেয়। ও জানতো না আমি যে প্রেগন্যান্ট ছিলাম। একদিন আমাকে নক করেছিল, একটা টিভিসিতে কাজের জন্য। তারপরই তাকে বিষয়টি বললাম। সজলের সঙ্গেও আমার কথা হয়। লাস্ট সাকরাইন উৎসবের সময় তার সঙ্গে দেখা হয়েছিল। নায়িকা সারিকার সঙ্গেও দেখা হয়েছে বলে জানান তিনি।

‘সুখে’র সংজ্ঞা জানতে চাওয়া হলে শখ বলেন, সুখের সংজ্ঞা খুবই সিম্পল। মানুষের চাহিদা যতো কম, যতো অল্পতে সন্তুষ্ট থাকা যায়। ততোই সুখ।
সঠিক সঙ্গী খুঁজে পাওয়ার বিষয়ে বলেন, সঠিক সঙ্গী খুঁজে পাওয়া আসলে কঠিন। মানুষকে কখনো পুরোপুরি চেনা যায় না। এটা সত্য কথা। কারণ তারা বহুরূপী হয়। মানুষের কখনো একটা রূপ থাকে না। তারপরও যারা সঠিক মানুষটিকে খুঁজে পায়, তারা ভাগ্যবান। আমাদের সময় কঠিন ছিল। কারণ অনেক ভিড়ের মাঝে সেই একজনকে খুঁজে পাওয়া। তবে একসময় সঠিক মানুষ বের হয়ে আসে। খুঁজে নিতে হয় না, চলেই আসে।

নিজের জীবনের ভুলগুলোর বিষয়ে আক্ষেপ নেই বলে জানান শখ। বলেন, কারণ মানুষ জীবনের ভুল থেকে শেখে। আমি লাইফের প্রত্যেকটা ভুল থেকে শিখেছি।
সম্পর্ক গড়া, তারপর বিয়ে ভাঙা এসব বিষয়ে প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয় কি না- এমন প্রশ্নে অভিনেত্রী বলেন, আগে এটা ছিল। কিন্তু এখন নেই। মানুষ এখন বিষয়টা অনেক খোলাখুলিভাবে নিচ্ছে। কারণ জোড় করে সম্পর্ক হয় না। একটা মানুষের সঙ্গে বোঝাপড়া না থাকলে তো জোর করে থাকা সম্ভব না। জোর করে খারাপভাবে সম্পর্ক রাখার থেকে সুন্দরভাবে ভেঙে যাওয়াই ভালো।

মডেল ও অভিনেতা নিলয়ের সঙ্গে ডিভোর্স প্রসঙ্গে শখ জানান, তার পরিবার এটাকে স্বাভাবিকভাবেই নিয়েছে।
তিনি বলেন, কারণ এটার পেছনে আমারও কোনো ভুল ছিল না। বোঝাপড়া হয়নি। আমরা পারিবারিভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। বোঝাপড়া হয়নি বলেই দাম্পত্যে ইতি টেনেছি।
নিলয়ের সঙ্গে সৌদি আরব যাওয়ার প্রসঙ্গে বলেন, ২০১৬ সালের শেষ কি ২০১৭ এর শুরুর দিকে ওমরাহ হজে গিয়েছিলাম। আসলে ওমরাহটা মানুষের জীবনকে চেঞ্জ করে দেয়। এটা এমন একটা ফিলিং যা বলে বোঝাতে পারবো না। ওখানে যারা যায় তারাই বলতে পারবে। একটা অন্যরকম শান্তি সেখানে।

এদিকে নিলয়ের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর জনকে জীবন সঙ্গী করেন শখ। জনের সঙ্গে কীভাবে পরিচয় হলো- এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, একটি ফোটোশুটে তার সঙ্গে পরিচয়। ওর সঙ্গে প্রেম করার সময় হয়নি। সে একদিন সরাসরি আম্মুকে ফোন দিল। ওই দিনই সে আম্মুকে বললো, আমি শখকে পছন্দ করি। আমি তাকে বিয়ে করতে চাই। আম্মুও বললো আচ্ছা দেখি। এরপর দুই ফ্যামিলির সিদ্ধান্তে সরাসরি বিয়ে হয়। করোনার সময় বিয়ে হয় ঘরোয়াভাবে। তখন অনেকে বলেছিল, আমি না কি গোপনে বিয়ে করেছি। কিন্তু গোপন করার কিছু নেই। তখন ফেসবুক হ্যাকড ছিল। কারো সঙ্গে তেমন যোগাযোগ করার সুযোগ হয়নি।

জীবনে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার বিষয়ে শখ বলেন, আমি এখনো বাবা-মায়ের পরামর্শ নেই। আমার এখন স্বামী আছে তার পরামর্শ নেই। কোনো কাজের আগে আমি এখনো ওর কাছে জিজ্ঞেস করি। সব সময় পরিবারের কথা শুনি। পুনরায় মিডিয়াতে কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন আনিকা কবির শখ। তবে বর্তমানে পরিবার ও সন্তানকে সময় দিতে চান। এরপর পর্যায়ক্রমে শুরু করতে চান কাজ।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com