স্ত্রীর হাত থেকে বাঁচতে স্বেচ্ছায় কারাগারে গেলেন স্বামী! - বাংলা একাত্তর স্ত্রীর হাত থেকে বাঁচতে স্বেচ্ছায় কারাগারে গেলেন স্বামী! - বাংলা একাত্তর

বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:৩৩ পূর্বাহ্ন

স্ত্রীর হাত থেকে বাঁচতে স্বেচ্ছায় কারাগারে গেলেন স্বামী!

স্ত্রীর হাত থেকে বাঁচতে স্বেচ্ছায় কারাগারে গেলেন স্বামী!

কারাগার মানেই বন্দী জীবন তাই মানুষ সাধারণত কারাগারে থাকতে ভয় পায। কারাবরণের হাত থেকে বাঁচতে বছরের পর বছরও পালিয়ে থাকার ঘটনা রয়েছে। তবে স্ত্রীর জ্বালাতনে অতিষ্ঠ হয়ে স্বেচ্ছায় কারাবরণ করেছেন এক ব্যক্তি।

জানা গেছে, সম্প্রতি স্ত্রীর কারণে ‘অতিষ্ঠ’ হয়ে বাড়িঘর ছেড়ে কারাগারে যেতে তিনি পুলিশের কাছে তাঁকে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন। গত রোববার ইতালির বিশেষ পুলিশ বাহিনী এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। তবে এতে ওই ব্যক্তির স্ত্রীর কতটুকু দায় রয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে। কারণ, ওই ব্যক্তি মাদকসংক্রান্ত অপরাধে আদালতের নির্দেশে কয়েক মাস গৃহবন্দী ছিলেন।

ইতালির তিভলি পুলিশের বিশেষ বাহিনী (কারাবিনিয়ারি) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ৩০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি রোমের উপকণ্ঠে গুইদোনিয়া মন্তেসেলিওর বাসিন্দা। তিনি আর কোনোভাবেই স্ত্রীর সঙ্গে এক ছাদের নিচে থাকতে চান না। এখন তাঁর দরকার স্বাধীনতা। স্ত্রীর কাছ থেকে মুক্তি। বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, অবস্থা এতটাই ভয়াবহ যে ওই ব্যক্তি বাড়িঘর ছেড়ে পালানোর কথাই বেশি ভাবছেন। তাই তিনি স্বতঃস্ফূর্তভাবে কারাবিনিয়ারি সদস্যদের কাছে হাজির হয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানোর অনুরোধ জানান।

তিভলি কারাবিনিয়ারির ক্যাপ্টেন ফ্রান্সিসকো জিয়াকোমো বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ওই ব্যক্তি মাদকসংক্রান্ত অপরাধের কারণে কয়েক মাস গৃহবন্দী ছিলেন। তাঁর সাজা আরও বাকি রয়েছে। বাড়িতে তিনি তাঁর স্ত্রী ও পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে থাকছিলেন। কিন্তু পরিবারের সদস্য, বিশেষ করে স্ত্রীর সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক মোটেও ভালো যাচ্ছে না। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওই সদস্য আরও বলেন, ‘তিনি (ওই ব্যক্তি) এসে জানান, শুনুন, আমার পারিবারিক জীবন নরকে পরিণত হয়েছে। আমি আর এটা নিতে পারছি না। আমি এখনই কারাগারে যেতে চাই।’

এদিকে,আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা অবশ্য ওই ব্যক্তিকে নিরাশ করেননি। গৃহবন্দী আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে ওই ব্যক্তিকে তৎক্ষণাৎ গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিচারিক কর্তৃপক্ষ তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com