ফোনের এক পাশে প্রেমিক, অন্য পাশে ফ্যানের সঙ্গে ঝু লছিল তমা! - বাংলা একাত্তরফোনের এক পাশে প্রেমিক, অন্য পাশে ফ্যানের সঙ্গে ঝু লছিল তমা! - বাংলা একাত্তর

বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৩২ পূর্বাহ্ন

ফোনের এক পাশে প্রেমিক, অন্য পাশে ফ্যানের সঙ্গে ঝু লছিল তমা!

ফোনের এক পাশে প্রেমিক, অন্য পাশে ফ্যানের সঙ্গে ঝু লছিল তমা!

যশোরের মনিরামপুরে তমা বিশ্বাস (১৮) নামে এক কলেজছাত্রীর ঝু’লন্ত লা’শ উ’দ্ধার করেছেন স্বজনরা। শুক্রবার সকালে মামা বাড়িতে নিজ ঘরে গ’লায় ফাঁ’স দেন তমা। তিনি রাজগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী ছিলেন।তমা খুলনার ডুমুরিয়া উপজে’লার মঠবাড়িয়া গ্রামের সুভাষ বিশ্বাসের মেয়ে।

পাঁচ বছর বয়স থেকে তিনি মনিরামপুরের হানুয়ার গ্রামে মামা উত্তম বিশ্বাসের বাড়ি থাকতেন।মনিরামপুর উপজে’লার হাজরাকাটি গ্রামের সোহেল নামে এক যুবকের সাথে তমার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তাঁর সঙ্গে কথা বলতে বলতে তমা আত্মহ’’ত্যা করেছে এমনটি দাবি স্বজনদের। সোহেল যশোর শহরের একটি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র।

তমার স্বজন বিকাশ বিশ্বাস বলেন, ‘তমা আমার নাতনি। ৪-৫ দিন ধরে কার সঙ্গে যেন তমা মোবাইলে বারবার কথা বলছে। মোবাইলে তাঁদের দুজনের ঝ’গড়া হচ্ছে। কিন্তু তমা ছেলেটির বি’ষয়ে আমাদের কিছু জানায়নি। শুক্রবার সকালে ওই ছেলের সঙ্গে তমার কথা হয়।’

বিকাশ বিশ্বাস বলেন, সকাল পৌনে ৮টার দিকে আমার মোবাইলে একটা কল আসে। আমি ফোন ধরলে ওপাশ থেকে পুরুষ কণ্ঠে একজন জানান, ‘দ্রুত তমার ঘরে যান। দেখেন ও কি করছে।’ আমি লোকটার পরিচয় জানতে চাইলে তিনি নাম বলেননি। আমি দৌঁড়ে গিয়ে তমার ঘরের দরজা ভে’ঙে তাকে ফ্যানের সঙ্গে ঝু’লতে দেখি। নামিয়ে আনার পর তমাকে মৃ’ত অবস্থায় পাই।

মনিরামপুর থানার ওসি (সার্বিক) নূর-ই-আলম সিদ্দীকি বলেন, ‘এ ঘটনায় থানায় অপমৃ’ত্যু মা’মলা হয়েছে। লা’শ উ’দ্ধার করে ম’র্গে পাঠানো হয়েছে। ম’য়নাত’দন্তের রিপোর্ট পেলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com