ইউপি নির্বাচনে স্বামীর প্রতিদ্বন্দ্বী স্ত্রী - বাংলা একাত্তর ইউপি নির্বাচনে স্বামীর প্রতিদ্বন্দ্বী স্ত্রী - বাংলা একাত্তর

বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৪০ পূর্বাহ্ন

ইউপি নির্বাচনে স্বামীর প্রতিদ্বন্দ্বী স্ত্রী

ইউপি নির্বাচনে স্বামীর প্রতিদ্বন্দ্বী স্ত্রী

আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। উক্ত নির্বাচনে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার চারিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন স্বামী এবং স্ত্রী। তবে তারা বলছেন, এটা তাদের একটি নির্বাচনী কৌশল।

দ্বিতীয় ধাপে জেলার সিংগাইর উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলার চারিগ্রাম ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মো. সাজেদুল আলম স্বাধীন ও তার স্ত্রী লিলি আক্তার একই পদে প্রার্থী হয়েছেন এবং তাদের বিপক্ষে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী দেওয়ান রিপন হোসেন। তবে চেয়ারম্যান পদে স্বামী-স্ত্রী প্রার্থী হওয়ায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শেখ মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান জানান, সিংগাইর উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের মধ্যে ১০টিতে চেয়ারম্যান পদে ৩৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ ছাড়া বায়রা ইউনিয়ন পরিষদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দেওয়ান জিন্নাহ লাঠু দ্বিতীয় বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। ১১টি ইউনিয়নে সাধারণ সদস্য (মেম্বার) পদে ২৯৭ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ১০২ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। দুটি ইউনিয়নে একজন সাধারণ সদস্য ও একজন সংরক্ষিত নারী সদস্য বিনা প্রতিদ্ধন্ধিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

চারিগ্রাম ইউনিয়নে বিএনপির সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী সাজেদুল আলম স্বাধীন বলেন, নির্বাচন আসলে আমি একাই করছি তবে আমার স্ত্রীকে নির্বাচনে প্রার্থী করার একটাই কারণ। তা হলো, কোন কারণে আমার মনোনয়ন ফরম বাতিল করতে পারে সে জন্য তাকে প্রার্থী করা হয়েছে। এখন আমার জন্য আমার স্ত্রী মানুষের দ্বারে দ্বারে ভোট কামনা করছেন।

তবে সরকার দলীয় প্রার্থীর লোকজন আমার পোষ্টার ছিঁড়ে ফেলছে এবং নানান ধরনের হুমকি দিচ্ছে আমার অনুসারীদের। আমি আশা করছি এবারও বিপুল ভোটের ব্যবধানে নির্বাচিত হতে পারব। আওয়ামী লীগের প্রার্থী দেওয়ান রিপন হোসেনের সঙ্গে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com