শিল্পী ইমন খানের ইউটিউব থেকে ২৮ দিনে ৪৪ লাখ টাকা আয়ের খবরটি ভুয়া - বাংলা একাত্তরশিল্পী ইমন খানের ইউটিউব থেকে ২৮ দিনে ৪৪ লাখ টাকা আয়ের খবরটি ভুয়া - বাংলা একাত্তর

সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৯:৫০ অপরাহ্ন

শিল্পী ইমন খানের ইউটিউব থেকে ২৮ দিনে ৪৪ লাখ টাকা আয়ের খবরটি ভুয়া

শিল্পী ইমন খানের ইউটিউব থেকে ২৮ দিনে ৪৪ লাখ টাকা আয়ের খবরটি ভুয়া

‘আজো প্রতি রাত জেগে থাকি তোমার আশায়’ খ্যাত গানের কণ্ঠশিল্পী ইমন খান মাঝে বেশ কয়েক বছর আড়ালে ছিলেন। তিনি আবারো গানে ফিরেছেন।বর্তমানে দিনের পর দিন তার গানের কাজ বেড়েই চলছে। কণ্ঠশিল্পী ইমন খান অন্য অডিও প্রয়োজনা সংস্থার পাশাপাশি নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে নিয়মিত গান প্রকাশ করেছেন তিনি। তাঁর একটি ইউটিউব চ্যানেলের নাম ‘আবর্তন মিডিয়া’।

আর এই চ্যানেলটি মাত্র ২৮ দিনে রেভেনিউ জমা পড়েছে ৫১ হাজার ৯৮১ ডলার,যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৪৪ লাখ টাকা। শিল্পী ইমন এতে বেশ উচ্ছাসিত। আনন্দের খবরটি তিনি আবার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন।সেখানে তাঁকে অনেক অভিনন্দন জানাচ্ছেন। এদিকে,দেশের একটি গণমাধ্যম সংবাদ প্রকাশ হয়েছে ইমন খানের নামে।সেই সংবাদে তিনি তাঁর ইউটিউব থেকে আয়ের পরিমাণের কথাও জানিয়েছেন এবং তার মন্তব্য প্রকাশ করেছেন।

কিন্তু এই শিল্পী ‘আবর্তন মিডিয়া’ নামের ইউটিউব চ্যানেলটি ঘুরে দেখা গেছে, তেমন কোনো ভিডিও কনটেন্ট নেই, যা দিয়ে তিনি এতো টাকা আয় করতে পারেন। তবে বেশকিছু বিদেশি ভিডিও কনটেন্ট রয়েছে তার চ্যানেলে,যা চোখ রাখলেই দেখা যাচ্ছে।এসব ভিডিও কেন জানতে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাঁর মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। তাই তাঁর এ বিষয়ে মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

তাঁর নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেল ‘ইমন খান’-এ ভিডিও ভিউয়ের সংখ্যা কম। তেমন কোনো ভিডিও মিলিয়ন ভিউয়ের সংখ্যা পার করেননি। তাহলে কিভাবে তিনি এতো টাকা আয় করলেন।এমন প্রশ্নের উত্তর খুজতে প্রতিঘণ্টা ডটকম-এর পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয় বাংলাদেশের বেশ কয়েকজন নামকরা ইউটিউবাদের সঙ্গে।

তাদের ভ্যাষমতে,এতো অল্প সময়ে এবং ভিউ সংখ্যা কম হলে বাংলাদেশ যে পরিমাণ রেভেনিউ দেওয়া হয় ইউটিউব থেকে সেই জায়গায় থেকে চিন্তা করলে এটা অসম্ভব বিষয় এবং সম্পন্ন গুজব একটি খবর। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দেশের একজন জনপ্রিয় ইউটিউবার প্রতিঘণ্টা ডটকমকে বলেন,আমার নিজের ইউটিউব চ্যানেলে প্রায় ১৫ লাখ সাবস্ক্রাইবার। আমি নিয়মিত ভিডিও আপলোড করি। আর ভিডিও কনটেন্ট ভিউ মিলিয়ন উপরে।

কিন্তু আমি এখনো একসঙ্গে এতো টাকা আয় করতে পারিনি।আপনি যে প্রশ্ন করেছেন।সেই প্রশ্নের উত্তর হিসেবে যদি বলি তাহলে বলবো।এটা সম্পন্ন মিথ্যা খবর এবং বৈধ উপায়ে এটা অসম্ভব বিষয়। আমার ইউটিউব কনটেন্ট তৈরি অভিজ্ঞতা এটাই বলে।এখন প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে ইমন খানের ইউটিউব থেকে আয়ের বিষয়টি সংবাদটি সঠিক নয়।তিনি ধাপ্পা বাজি করেছেন! সূত্রঃ প্রতিঘণ্টা ডটকম

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com