মোটরসাইকেলে বসে বৃদ্ধ বাবাকে লাথি মেরে ফেলে দিলেন শিক্ষক ছেলে - বাংলা একাত্তরমোটরসাইকেলে বসে বৃদ্ধ বাবাকে লাথি মেরে ফেলে দিলেন শিক্ষক ছেলে - বাংলা একাত্তর

শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৪৬ পূর্বাহ্ন

মোটরসাইকেলে বসে বৃদ্ধ বাবাকে লাথি মেরে ফেলে দিলেন শিক্ষক ছেলে

মোটরসাইকেলে বসে বৃদ্ধ বাবাকে লাথি মেরে ফেলে দিলেন শিক্ষক ছেলে

পাবনার চাটমোহরে বাবাকে লাথি মারাসহ লাঞ্ছিত করার ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। ছেলের লাঞ্ছনার শিকার হয়েছেন এক বৃদ্ধ বাবা। অভিযুক্ত ছেলের নাম মো. মজনুর রহমান এবং বাবার নাম মো. আতাউর রহমান। মঙ্গলবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শিক্ষক ছেলের শাস্তির দাবি জানিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা।

জানা গেছে, চাটমোহর সরকারি আরসিএন অ্যান্ড বিএসএন মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ভোকেশনাল শাখার ট্রেড ইন্সট্রাক্টর মজনুর সকালে তার বাবা আতাউর রহমানের চাকরিস্থল মহেলা ডাকঘরে যায়। ডাকঘরে ঢুকে বাবাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করেন। একপর্যায়ে অফিসের কাগজপত্র তছনছ করে ডাকঘরের মোবাইল ফোনটি বাবার কাছ থেকে জোর করে ছিনিয়ে নেন।

পরে মোবাইল ফোনটি নিয়ে মোটরসাইকেলে উঠতে চাইলে বাবা বাধা দেন। তখন তিনি বাবাকে লাথি মারেন। এসময় বাবার সঙ্গে ধাক্কাধাক্কি ও দস্তাদস্তিও করেন।পরে আশপাশের লোকজন এসে মজনুরকে নিবৃত করে পিটুনি দিয়ে তাড়িয়ে দেয়।

ঘটনার পর আতাউর রহমানকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে তিনি চাটমোহর থানায় গিয়ে অভিযোগ করেন। এ সময় পুলিশ মজনুরকে ধরে থানায় নিয়ে আসে।রাত ১০টা পর্যন্ত উভয়ই থানায় অবস্থান করেন। পরে ছেলের নামে মামলা করেন বাবা। বাবার দায়ের করা মামলায় শিক্ষক ছেলে এখন পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন।

এই ব্যাপারে চাটমোহর সরকারি আরসিএন অ্যান্ড বিএসএন উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুস ছালাম বলেন, বিষয়টি খুবই লজ্জাকর ও দুঃখজনক। একজন শিক্ষকের কাছ থেকে এমন আচরণ কাম্য নয়। বিষয়টি আমি ইউএনও স্যারকে জানিয়েছি। চাটমোহর থানার ওসি তদন্ত হাসান বাছির জানান, ছেলের বিরুদ্ধে বাবা মামলা করেছেন। আসামি থানায় আছে।দুপুরে তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com