‘আনুশকার মৃত্যুর আলামতে ‘ধর্ষণ’ ও ‘ফরেন বডির’ প্রমাণ

| আপডেট :  ৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫৫ অপরাহ্ণ | প্রকাশিত :  ৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫৫ অপরাহ্ণ

রাজধানীর কলাবাগানে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ছাত্রী আনুশকা নূর আমিনের মৃত্যুর রহস্য খুঁজতে গিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য-প্রমাণ পাওয়া গেছে। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এ সংক্রান্তে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আলামত পেয়েছে তদন্তকারী সংস্থা।

জানা গেছে, তদন্তকারী সংস্থা এ মৃত্যুর পেছনে ‘ধর্ষণ’ ও ‘ফরেন বডি)-র আলামত খুঁজে পেয়েছে।পিবিআই’র বিশেষ পুলিশ সুপার (এসএসপি) আহসান হাবিব পলাশ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পিবিআই’র ভাষ্য অনুযায়ী- মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ছাত্রী আনুশকা নূর আমিনকে ‘ধর্ষণ’ করা হয়েছিলো। এছাড়া তার শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে ‘ফরেন বডি’ ব্যবহারের আলামত পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় দায়ের হওয়া ‘ধর্ষণ ও হত্যা মামলার’ তদন্ত কার্যক্রমের ডিএনএ রিপোর্টে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে এসেছে। শিগগির এ মামলায় চার্জশিট দেয়া হবে বলে জানা গেছে। তদন্ত সংস্থাটির একাধিক কর্মকর্তা একটি গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আনুশকা নূর আমিন ধানমন্ডির মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ‘ও’ লেভেলে পড়াশোনা করতো। চলতি বছরের ৭ জানুয়ারি তার অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়। ওইদিন দুপুরে আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কলাবাগান থানায় ফোন করে জানায়, এক তরুণ এক কিশোরীকে হাসপাতালে মৃত অবস্থায় এনেছেন। যার শরীর থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছে।

এরপরই কলাবাগান থানা পুলিশ আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতাল গিয়ে ইফতেখার ফারদিন দিহান নামে এক তরুণকে হাতেনাতে আটক করে। খবর পেয়ে তার ৩ বন্ধু হাসপাতালে গেলে পুলিশ তাদেরও আটক করে। মূলত দিহান ছিল আনুশকার খুব কাছের বন্ধু যা প্রেমের সম্পর্কে গিয়ে গড়ায়। চাঞ্চল্যকর এ মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে সে কারাগারে আছে।