২ হাজার তরুণীর নগ্ন ভিডিও নিয়ে ছিনিমিনি খেলছিল তিন তরুণ

| আপডেট :  ২ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৮ অপরাহ্ণ | প্রকাশিত :  ২ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৮ অপরাহ্ণ

প্রাথমিকের গণ্ডিও পেরোতে পারেননি। তৃতীয় শ্রেণিতেই ইতি টেনেছেন পড়াশোনার। তবে পড়াশোনায় বেশিদূর এগোতে না পারলেও ফেসবুক ব্যবহারে বেশ দক্ষ হয়ে ওঠেন। আর এ দক্ষ’তা ভালো কোনো কাজে লাগাননি। লাগিয়েছেন অন্যের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার কাজে। হ্যাক করেছেন দুই হাজার ত’রুণীর আইডি। নিয়েছেন ন’গ্ন ছবি-ভিডিও। ন’গ্ন ছবি-ভিডিও নিয়েই ক্ষান্ত হননি, ছিনিমিনি খেলেছিলেন তাদের জীবন নিয়েও।

এমনই এক সাইবার অ’পরাধ চ’ক্রের তিন তরুণকে গ্রে’ফতারের পর বেরিয়ে এসেছে এসব তথ্য। গ্রে’ফতার তিনজনের বাড়িই মাদারীপুরের শিবচরে। তারা হলেন- শামীম সরদার, সজিব খলিফা ও ওবায়দুর রহমান নোবেল। এর মধ্যে শামীম ও সজিব তৃতীয় শ্রেণিতেই শিক্ষাজীবনের ইতি টানেন। আর মুদি দোকান ছেড়ে তাদের সঙ্গে যোগ দেন নোবেল। তবে তারা সবাই ইউটিউব থেকে এ দীক্ষা নেন।

জানা গেছে, ফেসবুক আইডি হ্যাক করে অন্তরঙ্গ ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার নামে দুই হাজার ত’রুণীর সঙ্গে প্র’তারণা করেছেন শামীম, সজিব ও নোবেল। ভু’ক্তভোগী ত’রুণীদের ভ’য় দেখিয়ে তারা আদায় করতেন টাকা। আর টাকা না পেলে তাদের বিভিন্নভাবে হেয় করতেন।

গ্রে’ফতারদের প্রথম টার্গেট ত’রুণী। এরপর একের পর এক চলে তাদের আইডি হ্যাক করে গো’পনীয় ছবি ও ভিডিও নেয়া। পরে টাকা না দিলে দেওয়া হতো হু’মকি। তবে বারবার একই অঞ্চলের তরুণদের এমন অ’পরাধে জড়িয়ে পড়ার বি’ষয়টি ভাবিয়ে তুলেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে।

ভু’ক্তভোগীদের মধ্যে এক নববধূ জানান, একদিন দুপুরে এক বন্ধুর আইডি থেকে তার আইডিতে একটি লিঙ্ক যায়। লিঙ্কে ঢুকতেই লগইন করতে বলা হয়। লগইন করার পরই তার আইডি হ্যাক হয়ে যায়। এরপর নানাভাবে চেষ্টা করেও আইডিতে আর ঢুকতে পারেননি তিনি। ওইদিন সন্ধ্যার পর একটি মেসেজ যায় তার মুঠোফোনে। মেসেজে বলা হয়- তার স্বামীর কাছ থেকে কিছু অন্তরঙ্গ ছবি সংগ্রহ করেন তারা। এরপর আরেকটি আইডি দিয়ে সেসব ছবি তার কাছেও পাঠানো হয়। একই সঙ্গে শর্ত না মানলে এসব ছবি ভাইরাল করারও হু’মকি দেওয়া হয় বলে জানান ভু’ক্তভোগী নববধূ।

তিনি বলেন, আমার কাছ থেকে তারা টাকা দাবি করেন। ছবি যেন না ছাড়ে সেজন্য তাদের টাকা দেওয়া হয়। আমার এক বন্ধুর কাছ থেকেও পাঁচ হাজার টাকা নেন তারা। আমার আইডি থেকেই ওই বন্ধুর কাছে লিঙ্ক পাঠানো হয়।

ঢাকা মহানগর ডি’বি পুলিশের সাইবার স্পেশাল ও সিরিয়াস ক্রা’ইমের উপ-পুলিশ কমিশনার শরিফুল ইসলাম জানান, গ্রে’ফতার তিনজনের কাছ থেকে উ’দ্ধার করা ডিভাইসে প্রায় দুই হাজার আইডি হ্যাক করার তথ্য পাওয়া গেছে। এসব আইডি ব্যবহারকারীরা পরস্পর বন্ধু বা আত্মীয়। এ অনুসন্ধান করতে গিয়ে আমরা দেখেছি- মাদারীপুরের রাজৈর, শিবচর ও ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজে’লা এবং রাজবাড়ী সদরে অসংখ্য হ্যাকার রয়েছে। যাদের হ্যাকিংয়ের শি’কার হয়েছেন অনেক ভু’ক্তভোগী। এ পর্যন্ত আমরা দুইশ হ্যাকারকে গ্রে’ফতার করেছি।

প্রাথমিক জি’জ্ঞাসাবাদে গ্রে’ফতাররা জানান, তাদের আশপাশে আরো অনেক হ্যাকার রয়েছেন। যারা প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠেই নিজেদের শি’কার খোঁজার জন্য ডিভাইস নিয়ে বসেন। ফেসবুক ব্যবহারে আরো বেশি সচেতনতা বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন ডি’বি পুলিশের এ কর্মকর্তা। যাচাই-বাছাই ছাড়া কোনো ইউআর লিঙ্কে না ঢোকার জন্যও পরামর্শ দেন তিনি।