মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৩৭ পূর্বাহ্ন

স্বামীকে পিস্তল ঠেকিয়ে নিজের গাড়িতে গৃহবধূকে ধর্ষণ করলেন কাউন্সিলরের ভাই!

স্বামীকে পিস্তল ঠেকিয়ে নিজের গাড়িতে গৃহবধূকে ধর্ষণ করলেন কাউন্সিলরের ভাই!

নরসিংদীতে এক কমিশনারের ছোট ভাইয়ের বিরুদ্ধে স্বামীকে পিস্তলের মুখে জিম্মি করে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে নরসিংদীর পলাশে। অভিযুক্ত পাপ্পু খন্দকার পলাশ ভাগ্যেরপাড়া গ্রামের আবদুল ছাত্তার খন্দকারের ছেলে ও ঘোড়াশাল পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড কমিশনার আলম খন্দকারের ছোট ভাই। এ ঘটনায় আজ রবিবার সকালে ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে পলাশ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। থানায় মামলা দায়েরের পর থেকে অভিযুক্ত পাপ্পু খন্দকার পলাতক।

পুলিশ ও নির্যাতনের শিকার গৃহবধূর পরিবারের সূত্রে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার গৃহবধূর স্বামী অভিযুক্ত পাপ্পু খন্দকারের ব্যক্তিগত গাড়িচালক ছিল। কিন্তু গত কয়েকমাস যাবৎ ঠিকভাবে বেতন দিচ্ছিলেন না পাপ্পু। আর এর ফলে অর্থ সংকটে মানবেতর জীবন পার করতে হচ্ছিল স্ত্রীসহ ওই গাড়িচালককে। একপর্যায়ে তারা বাধ্য হয়ে পাওনা টাকা চাইতে গেলে পাপ্পু জানান তিনি ২৬ অক্টোবর রাতে টাকা দেবেন এবং টাকা নেয়ার জন্য গাড়িচালক ও তার স্ত্রীকে ব্যক্তিগত ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে যেতে বলেন। পরে সেখানে স্বামীকে পিস্তলের মুখে জিম্মি করে ব্যক্তিগত গাড়ির ভিতর ওই গৃহবধূকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে পাপ্পু এবং মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে ঘটনাটি কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি দেয়।

পরে ওই দম্পতি প্রাণভয়ে বিষয়টি কাউকে জানায়নি। কিন্তু গত ক’দিন ধরে অভিযুক্ত পাপ্পু পুনরায় ওই গৃহবধূকে তার কাছে এনে দেওয়ার জন্য বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করছিলেন। এরপর নিজেকে রক্ষা করতে বাধ্য হয়ে ওই গৃহবধূ রবিবার সকালে বাদী হয়ে ধর্ষণের অভিযোগে পাপ্পু খন্দকার ও তার সহযোগী শাহাদাত হোসেনের বিরুদ্ধে মামালা দায়ের করেন।

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে, পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. নাসির উদ্দিন জানান, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর অভিযুক্ত পাপ্পু খন্দকার ও তার সহযোগীকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চালানো হচ্ছে। বর্তমানে তারা পলাতক

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com