‘শাহরিয়ার কবির’কে যে কারণে ধন্যবাদ দিলেন সোহেল তাজ - বাংলা একাত্তর‘শাহরিয়ার কবির’কে যে কারণে ধন্যবাদ দিলেন সোহেল তাজ - বাংলা একাত্তর

শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০০ পূর্বাহ্ন

‘শাহরিয়ার কবির’কে যে কারণে ধন্যবাদ দিলেন সোহেল তাজ

‘শাহরিয়ার কবির’কে যে কারণে ধন্যবাদ দিলেন সোহেল তাজ

‘শাহরিয়ার কবির’কে যে কারণে ধন্যবাদ দিলেন সোহেল তাজ।
যদিও আইডিটি শাহরিয়ার কবিরের আসল আইডি নয় বলে অনেকে মন্তব্য করেছে।
সোহেল তাজ লিখেছেন,

শাহরিয়ার কবির ভাই- আপনাকে অনেক ধন্যবাদ আমার পোস্টে এই কমেন্ট করার জন্য I আমি আপনার বক্তব্যের সাথে সম্পূর্ণ একমত I আমি বেড়ে উঠেছি ৩ বোন এবং একজন মহিয়সী মায়ের আদলে এবং আমার দুই কন্যা সন্তানকে বেড়ে উঠতে দেখেছি একজন বাবা হিসেবে I আমিও স্বাভাবিক ভাবে চাইবো যেন তারা তাদের মেধা প্রয়োগ করতে পারবে এমন একটা সমাজে যেখানে নারী পুরুষ সমান অধিকার নিয়ে বেঁচে থাকবে I

আমি ব্যেক্তিগত ভাবে সব সময় নারী হয়রানি, ধর্ষণ এবং নারী নির্যাতনের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছি I এমনকি আমাদের সমাজে পুরুষদের দায়িত্ব কি কি হওয়া উচিত তা আমি বার বার বলে আসছি I একজন আসল পুরুষ মানুষ নারীকে সন্মান দিতে জানে এবং তার আচার আচরণে সে প্রমান করে মা জাতির প্রতি তার শ্রদ্ধাবোধ I

আমি হয়তো ভুল বুজেছি নারী আন্দোলনর লক্ষ্য কি I আমি ভেবেছিলাম এর লক্ষ্য পুরুষ শাসিত সমাজ ব্যাবস্থার অবসান ঘটিয়ে নারী পুরুষের সম অধিকার প্রতিষ্ঠিত করা I আর তা না হয়ে যদি নারীর আধিপত্য হয়ে থাকে বর্তমান লক্ষ্য তাহলে আমাদের ভবিষৎ অন্ধকার- ভেবে দেখবেন কারা অপেক্ষা করছে।

বিঃ দ্রঃ বানানে ভুল হলে ক্ষমা করে দিবেন- আমি ইংলিশ মিডিয়ামের ছাত্র ছিলাম আর আমার ফোনের বাংলা লেখার “app” টাও খুব ঝামেলা করে।
সোহেল তাজের যে লেখায় শাহরিয়ার কবির মন্তব্য করেছেন

আমি ব্যক্তি স্বাধীনতায় বিশ্বাসী I কে কি পোশাক পড়লো বা ধূমপান করলো কি না করলো এগুলো শুধু নারী স্বাধীনতাই না বরং ব্যক্তি স্বাধীনতার কাতারে পরে আর তাই আমি মনে করি যে একজন মানুষের (নারী বা পুরুষ) অধিকার আছে তার নিজের পছন্দ মত তার ব্যক্তিগত জীবন পরিচালনা করার I

সমস্যা হচ্ছে যখন আমরা উশৃংখল আচরনকে নারী/ব্যক্তি স্বাধীনতার সাথে মিলিয়ে ফেলি I বাংলাদেশে যখন মাদক একটি বিরাট সমস্যা যখন সোশ্যাল মিডিয়ার এডিকশন এর কারণে ছেলে মেয়েরা মানসিক ভাবে আক্রান্ত হচ্ছে (ডিপ্রেশন) তখন নতুন প্রজন্মের জন্য প্রয়োজন ইতিবাচক অনুপ্রেরণা যা আমরা পাই অনুকরণীয় ব্যক্তিত্বদের জীবন থেকে- আর সেটা কখনোই সম্ভব হবে না যদি কিছু উশৃংখল সেলিব্রিটিরা তাদের বেপরোয়া ব্যক্তি জীবনধারা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমাদের নতুন প্রজন্মের উপর চাপিয়ে দেয় I

আমাদের নতুন প্রজন্মের সামনে তুলে ধরতে হবে এমন ব্যক্তিত্বদের যারা তাদের দৃঢ়তা, মনোবল এবং আত্মবিশ্বাস কে কাজে লাগিয়ে সকল প্রতিকূলতা পার করে শুধু নারী অধিকারের লড়াই করেন নাই বরং সকল মানুষের কল্যানে কাজ করে গেছেন- এনাদের ইতিবাচক কর্মের মধ্যে রেখে গেছেন নতুন প্রজন্মের জন্য অনুপ্রেরণা

এডিট: এই তালিকায় এমনও কেও আছেন যাকে আমি ব্যক্তিগত ভাবে পছন্দ নাও করতে পারি কিন্তু তার মানে এই না যে সে আরেকজনের পছন্দের পাত্র হতে পারবে না (সব কিছু অন্ধ রাজনীতির চোঁখে দেখলে আমরা কোনোদিনই আগাতে পারবো না)

[সোহেল তাজের ফেসবুক থেকে]

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com