ফেসবুকের মাধ্যমে ২৫ বছর পর মেয়েকে ফিরে পেলেন বাবা-মা

| আপডেট :  ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৪৬ পূর্বাহ্ণ | প্রকাশিত :  ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৪৬ পূর্বাহ্ণ

প্রায় ২৫ বছর আগে মেয়ে আকলিমাকে হারিয়ে ফেলেছিলেন মানিক মিয়া। এরপর মেয়েকে ফিরে পাওয়ার জন্য বহু সন্ধান চালালেও মেয়ের কোনো খোঁজ পাননি। একসময় মেয়েকে ফিরে পাওয়ার আশাই ছেড়ে দিয়েছিলেন। তবে প্রায় ২৫ বছর পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের কল্যাণে মেয়েকে ফিরে পেয়েছেন মানিক মিয়া।

আরজে কিবরিয়ার এফএম রেডিওর অনুষ্ঠানে (বর্তমানে) আঁখি নূরের একটি সাক্ষাতকার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে মেয়ের সন্ধান পান মানিক মিয়ার পরিবার। হারিয়ে যাওয়া মেয়ে বর্তমানে আশুলিয়া এলাকার মাসুম মোল্লার স্ত্রী। তাদের পরিবারে এক ছেলে ও এক মেয়ে। মানিক মিয়া মেয়ে-জামাতা, নাতি-নাতনিকে গ্রামের বাড়ি গফরগাঁও উপজেলার লংগাইর ইউনিয়নের মাইজবাড়ীতে নিয়ে আসেন।

বাবা মানিক মিয়া (৬০) জানায়, তার মেয়ে আকলিমাকে ১৯৯৬ সালে ঢাকায় নিয়ে যান। তখন আকলিমার বয়স ছয় বছর। সেদিন গুলিস্তান মোড় থেকে মেয়ে নিখোঁজ হন। তিনি ছিনতাইকারীদের কবলে পড়লে তাকে আটক রেখে টাকাপয়সা ছিনিয়ে ছেড়ে দিলেও মেয়েকে আর খুঁজে পাননি। দীর্ঘ ২৫ বছর বাংলাদেশের বহু জায়গায় তিনি মেয়েকে খুঁজে ফিরেছেন। সেসময় আকলিমারর সন্ধান চেয়ে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন ও থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়।

আকলিমা জানান, বাবাকে না পেয়ে কান্নাকাটি করে একটি বাসে উঠে পড়েন। এক লোক তাকে নিয়ে একটি আশ্রয় কেন্দ্রে দিয়ে আসেন। আশ্রয় কেন্দ্রেই বড় হয়ে ওঠেন। ফেসবুকে কিবরিয়ার অনুষ্ঠান দেখে সাক্ষাত করেন। পরে এই সাক্ষাতকার ভাইরাল হয়।

জানা যায়, আকলিমা এক সময় বিউটি পার্লার এর কাজ শুরু করেন। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আশুলিয়ার মাসুম মোল্লার সাথে পরিচয় ও সংসার। তাদের সংসারে এক ছেলে ও এক মেয়ে। দীর্ঘ ২৫ বছর পর এই মিলনে আকলিমা ও তার স্বামী মাসুম মোল্লা বেজায় খুশি।

গত বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বাবা-মাকে কাছে পেয়ে আকলিমা তাদের জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। জানা গেছে, উপজেলার লংগাইর ইউনিয়নের মাইজবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা মানিক মিয়ার দুই ছেলে ও দুই মেয়ে। আকলিমার বোন আমেনা বলেন, মায়ের বিশ্বাস ছিলো একদিন ঠিকই আকলিমা ফিরে আসবে। আজ মায়ের বিশ্বাস সত্যি হলো।