শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৯:২৬ অপরাহ্ন

গণধর্ষণ মামলায় সাক্ষীর যাবজ্জীবন, আসামিরা খালাস

গণধর্ষণ মামলায় সাক্ষীর যাবজ্জীবন, আসামিরা খালাস

বরগুনায় এক গণধর্ষণ মামলায় সাক্ষীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং আসামিদের খালাস দিয়েছে আদালত।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হলেন- বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার বাইনচটকি গ্রামের সেকান্দার জোমাদ্দারের ছেলে সাবেক ইউপি সদস্য এমাদুল হক।

খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- ওই একই গ্রামের খবির গাজীর ছেলে মোহসিন ও অহেদ খানের ছেলে মোয়াজ্জেম।

নারী ও শিশু আদালতের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান দন্ডপ্রাপ্ত আসামি ও খালাস পাওয়া আসামিদের উপস্থিতিতে রোববার (০১ নভেম্বর) এ রায় ঘোষণা করেন। এসময় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি বরগুনা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে খালাস প্রাপ্ত আসামিদের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের মামলা করেন ওই একই গ্রামের এক গৃহবধূ।

প্রথমে বাদীর অভিযোগ ছিল- ২০১৫ সালে ১৭ ফেব্রুয়ারি রাতে তার দশম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়েকে গণধর্ষণ করে খালাসপ্রাপ্ত আসামিরা। ওই মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি এমাদুল হক চার নম্বর সাক্ষী ছিলেন। কিন্তু পরে মামলার বাদী জানতে পারেন প্রকৃতপক্ষে ওই সাক্ষী ই তার মেয়েকে ধর্ষণ করেন।দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির সঙ্গে খালাস পাওয়া আসামিদের বিরোধ থাকায় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি বাদীর মেয়েকে ধর্ষণ করে ওই খালাস পাওয়া আসামিদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করাতে প্ররোচিত করেন। এর প্রেক্ষিতে এই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি এমাদুল হকের বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ৮ জুলাই অভিযোগপত্র দেন।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com