বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০৭:১২ পূর্বাহ্ন

যেভাবে ভাগ করবেন ব্যায়ামের সময়গুলো

যেভাবে ভাগ করবেন ব্যায়ামের সময়গুলো

ওজন নিয়ন্ত্রণ, রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণসহ শরীরকে সুস্থ রাখতে এবং মানসিক স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে ব্যায়ামের বিকল্প নেই। তবে যারা নতুন ব্যায়াম করা শুরু করেন তাদের অনেককেই ব্যায়ামের সময়সূচী নিয়ে দ্বিধায় ভুগতে দেখা যায়। আর এমন ব্যক্তিদের জন্যই সমাধান দিয়েছেন বযুক্তরাষ্ট্রের ব্রিগাম ইয়ং ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক স্টিভেন আদানা। তিনি বলেন, যারা নতুন করে ব্যায়াম শুরু করছেন তাদের উচিত, প্রথমে কয়েক সপ্তাহ সকালে, এরপর বিকেলে তারপর সন্ধ্যায় এভাবে ব্যায়াম করা অথবা যে সময়ে ব্যায়াম করতে সবচেয়ে ভালো লাগবে, সেই সময়টাকেই বেছে নেয়া। তবে ব্যায়ামের সময়টাকে এভাবেও ভাগ করে নেয়া যেতে পারে।

সকাল: অনেককেই ঘুম থেকে উঠে বিছানায় বসেই ব্যায়াম শুরু করতে দেখা যায়। কিন্তু সকালে শরীরে ভারী ব্যায়ামের জন্য পর্যাপ্ত এনার্জি থাকে না তাই এসময়ে ভারী ব্যায়াম না করাই ভালো। সকালে পর্যাপ্ত সময় না থাকলে ঘুম থেকে ওঠার আধা ঘণ্টা পর হালকা জগিং বা মর্নিং ওয়ার্ক করতে পারেন।

বিকেল: ব্যায়াম করার জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত সময় হচ্ছ ঘুম থেকে ওঠার ৬ ঘণ্টা পর এবং ১২ ঘণ্টার মধ্যে। অর্থাৎ বিকেলের টাইমটা ব্যায়াম করার জন সবচেয়ে ভালো। তাই যাদের ভারী এক্সারসাইজের পরিকল্পনা রয়েছে তারা দিনের এই সময়টায় ভারী ব্যায়াম করতে পারেন।

সন্ধ্যা: ব্যায়াম করার জন্য বেছে নিতে পারেন সন্ধ্যার সময়টাও। বিশেষ করে যোগব্যায়ামের জন্য এটা সর্বোত্তম সময়। এসময় চাইলে কিছু সময় হাঁটতে কিংবা সাইক্লিং করতেও পারেন। কিন্তু মনে রাখতে হবে ক্লান্তিভাব থাকলে ব্যায়ম করা যাবে না।

এছাড়া ব্যায়ামের ক্ষেত্রে আরেকটা বিষয় সবসময় মনে রাখতে হবে। সেটা হলো, কখনোই খালি পেটে ব্যায়াম করা যাবে না। যদি কারো পক্ষে ভারী ব্যায়াম বা অন্য কিছুই করা সম্ভব না হয় তাহলে তিনি সঙ্গীকে নিয়ে দিনে শুধুমাত্র ৩০ মিনিট হাঁটতে পারেন। এতেও শরীর অনেকটা সুস্থ থাকবে।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com