‘ভাইয়া গ্রুপ’ থেকে ধর্ম রক্ষায় প্রধানমন্ত্রী বরাবর খোলা চিঠি সাবেক ছাত্রলীগ নেতার - বাংলা একাত্তর‘ভাইয়া গ্রুপ’ থেকে ধর্ম রক্ষায় প্রধানমন্ত্রী বরাবর খোলা চিঠি সাবেক ছাত্রলীগ নেতার - বাংলা একাত্তর

শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:১০ অপরাহ্ন

‘ভাইয়া গ্রুপ’ থেকে ধর্ম রক্ষায় প্রধানমন্ত্রী বরাবর খোলা চিঠি সাবেক ছাত্রলীগ নেতার

‘ভাইয়া গ্রুপ’ থেকে ধর্ম রক্ষায় প্রধানমন্ত্রী বরাবর খোলা চিঠি সাবেক ছাত্রলীগ নেতার

চট্টগ্রামের পটিয়া আসনের এমপি ও জাতীয় সংসদের হুইপ সামসুল হক চৌধুরীকে নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। সর্বশেষ টিকা কেলেঙ্কারিতেও জড়ায় তার নাম। এর রেশ কাটতে না কাটতেই আবারও বিতর্কে জড়ালেন এ হুইপ।

এবার চট্টগ্রামের পটিয়ার এই সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর ‘ভাইয়া গ্রুপের’ হাত থেকে পূজা কমিটিসহ অন্যান্য দেবত্ব সম্পত্তির কমিটিগুলো রক্ষার দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর খোলা চিঠি লিখেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অভিজিৎ ধর বাপ্পি (১৯৮৪ ব্যাচ)। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে তিনি আক্ষেপ প্রকাশ করেন। ওই স্ট্যাটাসে হুইপ সামশুল হক চৌধুরীকে ‘সামশুল আলম বিচ্চু চক্রবর্তী’ বলে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়।

নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে দেওয়া স্ট্যাটাসে অভিজিৎ ধর হুইপ সামশুলকে উদ্দেশ্য করে প্রশ্ন তোলেন, ‘আমার ধর্মের কেউ তো আপনার মসজিদ কমিটি বা ঈদগা ময়দানে ইমামতি করতে যায় না, আপনি কেন আসবেন? আপনি কি বুঝেন আমার ধর্মীয় ইতিহাসের তত্ত্ব?’

পটিয়ার সাধারণ মানুষের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি আরও বলেন, জন্মাষ্টমীর সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবে ‘সামশুল আলম বিচ্চু চক্রবর্তী’। একমাত্র বাংলাদেশেই এই ‘ভাইয়া গ্রুপ’ দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় পূজা কমিটিসহ অন্যান্য দেবত্ব সম্পত্তির কমিটিগুলো।

অভিজিৎ ধর বাপ্পি যখন ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, তখন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের আধিপত্য ছিল। ছাত্রশিবিরকে কোণঠাসা করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের রাজনীতির সক্রিয় রাখতে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছিলেন। এই কারণে ছাত্রলীগ নেতা অভিজিৎ ধর বাপ্পিকে হত্যা মামলার আসামিও হতে হয়েছিল। তবে সেই হত্যা মামলার দায় থেকে তিনি মুক্তি পেয়েছিলেন আদালতের রায়ে।
আশির দশকের ডাকসাইটে এই ছাত্রলীগ নেতা বর্তমানে লন্ডনে আছেন। সেখানে বসে দেশের রাজনীতিসহ বিভিন্ন বিষয়ে তিনি লিখেন। এখনো চট্টগ্রামে ছাত্রলীগের অনেক নেতা অভিজিৎ ধর বাপ্পিকে রাজনৈতিক গুরু মানেন।

অভিজিৎ ধর বাপ্পির স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-
সামশুল আলম ‘বিচ্ছু চক্রবর্তী’ পটিয়া জন্মাষ্টমী কমিটির পবিত্র সভায় প্রধান অতিথি। ভাইয়া গ্রুপ থেকে আমার ধর্মকে রক্ষা করুন।
ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মদিন হিন্দু সনাতনী ধর্মাবলম্বীরা মহা আনন্দঘন ধুমধামে সারা পৃথিবীজুড়ে এই পবিত্র দিনটি পালন করে থাকে। আজ পরিবেশ পরিস্থিতির প্রক্ষায়নে লিখতে বাধ্য হচ্ছি, জাতীয় চেতনায় আমি বাঙ্গালি এবং ধর্মীয় চেতনায় আমি হিন্দু।

চট্টগ্রাম পটিয়া থেকে একজন খুবই আক্ষেপের সাথে বললেন, পটিয়া জন্মাষ্টমী পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত ধর্মীয় সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবে ‘সামশুল আলম বিচ্চু চক্রবর্তী’। একমাত্র বাংলাদেশেই এই ভাইয়া গ্রুপ দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় পূজা কমিটিসহ অন্যান্য দেবত্ব সম্পত্তির কমিটিগুলো।

আমার মতো অনেক নিরীহ সনাতনী হিন্দুদের প্রশ্ন, আমার ধর্মের কেউ তো আপনার মসজিদ কমিটি বা ঈদগা ময়দানে ইমামতি করতে যায় না, আপনি কেন আসবেন? আপনি কী বোঝেন আমার ধর্মীয় ইতিহাসের তত্ত্ব? জবাব দিন আমার চক্রবর্তী ভাইজানরা। সুত্রঃ কালের কন্ঠ

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com