জামা ছিঁড়ে দিয়ে আমার এই দুর্দশা করেছে পুলিশ - বাংলা একাত্তরজামা ছিঁড়ে দিয়ে আমার এই দুর্দশা করেছে পুলিশ - বাংলা একাত্তর

বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১২ পূর্বাহ্ন

জামা ছিঁড়ে দিয়ে আমার এই দুর্দশা করেছে পুলিশ

জামা ছিঁড়ে দিয়ে আমার এই দুর্দশা করেছে পুলিশ

উঠতি অভিনেতা-অভিনেত্রীদের টাকার প্রলোভন দেখিয়ে পর্ন সিনেমা বানানোর অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিলেন বলিউড অভিনেত্রী গহনা বশিষ্ঠ। চার মাস কারাগারে থাকার পর জামিনে মুক্ত হয়ে মুম্বাই পুলিশকে কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন এই মডেল ও অভিনেত্রী। তার অভিযোগ, পুলিশ সদস্যরা তার পোশাক ছিঁড়ে দিয়েছেন।

গেলো শনিবার (২৮ আগস্ট) ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেছেন গহনা। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, তার পরিহিত হলুদ রঙের সালোয়ারের হাতার নিচের অংশ ছিঁড়ে গেছে। হাত তুলে সেই ছেঁড়া অংশের ছবি পোস্ট করেছেন তিনি। ক্যাপশনে গহনা লিখেছেন, ‘পুলিশ আমার এই দুর্দশা করেছে। সব অ্যাকাউন্ট (ব্যাংক অ্যাকাউন্ট) বন্ধ করে দিয়েছে। টাকা নেই। বাড়ি ফিরতে পারছি না। ফিরলে পুলিশে গ্রেফতার করে নেবে। মোবাইল, ল্যাপটপ সব নিয়ে নিয়েছে।’

তার দাবি, যে মহিলারা তার বিরুদ্ধে জোর করে পর্নে অভিনয় করানোর অভিযোগ তুলেছেন, তাদের আসলে পুলিশই টাকা দিয়েছে। তার বিশ্বাস, খুব তাড়াতা়ড়়ি সমস্ত সত্যের উপর থেকে পর্দা সরে যাবে। তার ফোন পুলিশের হেফাজতে না থাকলে, তিনি এত দিনে সব কথা ফাঁস করে দিতেন। ঠিক কী ফাঁস করতে চান গহনা, সে কথা অবশ্য স্পষ্ট হয়নি।

পুলিশের উদ্দেশ্যে গহনার প্রশ্ন, এখনও মন ভরেনি আপনাদের? আর কত মিথ্যে গল্প বানাবেন? আর কত অত্যাচার করবেন? এই অভিনেত্রী আরও জানান, তিনি এখন যে বাড়িতে থাকেন, সেখানে আরও কয়েক জন অচেনা মানুষ আস্তানা গেড়েছেন। যারা প্রায় গোটা বাড়িটাই দখল করে নিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১২-র ‘মিস এশিয়া বিকিনি’ প্রতিযোগিতায় প্রথম হয়েছিলেন গহনা। তারপর প্রচুর নামী সংস্থার মডেল হয়েও কাজ করেছেন। বেশ কিছু বিজ্ঞাপনেও দেখা গিয়েছে তাঁকে। ইন্ডাস্ট্রিতে কর্মজীবন শুরু করেছিলেন টেলিভিশনে অভিনয় করেই। এরপর কিছু হিন্দি ছবিতেও দেখা গিয়েছে তাকে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত তার কোনে হিন্দি ছবি সেভাবে সফল হয়নি। ওয়েব সিরিজের অত্যন্ত পরিচিত মুখ তিনি।

গহনার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি নাকি ছবির দুনিয়ায় কাজের জন্য আসা নতুন এবং পরিশ্রমী অভিনেতা-অভিনেত্রীদের টাকার লোভ দেখাতেন। তাদের প্রতি পর্ন ভিডিওতে ১৫ থেকে ২০ হাজার করে টাকাও পারিশ্রমিক দিতেন গহনা। তারপর সেই ভিডিও বিভিন্ন নেট মাধ্যমে বিক্রি করে উপার্জন করতেন।

গহনা বশিষ্ঠ যে পর্ন ওয়েবসাইটটি চালাচ্ছিলেন, তাতে ৮৭টি অশ্লীল ভিডিও আপলোড করেন তিনি। ভিডিও দেখার জন্য যারা ওয়েবসাইটটি সাবস্ক্রাইব করতেন তাদের ২ হাজার টাকা করে দিতে হতো। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com