শনিবার, ২৪ Jul ২০২১, ১২:২২ পূর্বাহ্ন

১৯ দিনের ‘ছুটিতে’ দেশ

১৯ দিনের ‘ছুটিতে’ দেশ

পবিত্র ঈদুল আজহা বা কোরবানির ঈদের আগে সোমবার ছিল শেষ অফিস। আজ মঙ্গলবার থেকে ঈদের ছুটি শুরু। এর পরই শুরু হবে কঠোর লকডাউন বা বিধিনিষেধ। লকডাউন শেষে আবার রয়েছে সাপ্তাহিক ছুটি। সব মিলিয়ে টানা ১৯ দিনের ছুটির কবলে পড়লো দেশ।

গতকাল সোমবার শেষ অফিস করেছেন বাংলাদেশ সচিবালয়সহ দেশের অন্যান্য সরকারি ও বেসরকারি অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। দীর্ঘ ছুটির আগে সোমবার শেষ দিন হওয়ায় সচিবালয়সহ অন্যান্য অফিসে উপস্থিতি ছিল কম। আবার যারা অফিসে এসেছিলেন তাদের মধ্যে অনেকেই আগে চলে যান।

প্রসঙ্গত, মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা বা কোরবানির ঈদ আগামী ২১ জুলাই। ঈদ উপলক্ষে এবার তিন দিন অর্থাৎ ২০, ২১ ও ২২ জুলাই সরকারি ছুটি। এর পর আগামী ২৩ জুলাই ভোর ৬টা থেকে ৫ আগস্ট মধ্যরাত পর্যন্ত মোট ১৪ দিন সারাদেশে কঠোর লকডাউন বা বিধিনিষেধ চালু থাকবে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে, সরকার ঘোষিত দুই সপ্তাহের লকডাউনে বা বিধিনিষেধে জরুরি পরিষেবা ছাড়া সকল সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত এবং বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে। অবশ্য সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিধিনিষেধ চলাকালে স্ব স্ব কর্মস্থলে অবস্থান করতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে ভার্চুয়ালি (ই-নথি, ই-মেইল, এসএমএস, হোয়াটসঅ্যাপসহ অন্যান্য মাধ্যম) দাপ্তরিক কাজকর্ম সম্পন্ন করার কথা বলা হয়েছে।

তবে বিধিনিষেধের ১৪ দিন সব ধরনের শিল্প কারখানা, (অতি জরুরি ও নিত্যপ্রয়োজনীয় ছাড়া) সকল ধরনের গণপরিবহন এবং মার্কেট-শপিংমল ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে। এমনকি ঈদের পরের লকডাউনে বন্ধ থাকবে পোশাক কারাখানাও। তবে সংবাদ মাধ্যম ও জরুরি সেবার সঙ্গে জড়িত বিষয়াদি বরাবরের মতো চালু থাকবে।

দুই সপ্তাহের বিধিনিষেধ শেষে আগামী ৬ আগস্ট শুক্রবার এবং ৭ আগস্ট শনিবার দুই দিন সাপ্তাহিক ছুটি। অর্থাৎ ঈদের ৩ দিন, বিধিনিষেধের ১৪ দিন এবং সাপ্তাহিক ছুটি ২ দিন- সব মিলিয়ে মোট ১৯ দিনের ছুটির কবলে প্রবেশ করেছে দেশ। করোনা পরিস্থিতির উন্নতি সাপেক্ষে বিধিনিষেধের মেয়াদ যদি না বাড়ানো হয়, তাহলে আগামী ৮ আগস্ট রোববার থেকে সব কিছু স্বাভাবিক হতে পারে।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com