শনিবার, ২৪ Jul ২০২১, ০১:২২ পূর্বাহ্ন

কোপায় সর্বোচ্চ ফাউল ও হলুদ কার্ডের রেকর্ড আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়া ম্যাচে

কোপায় সর্বোচ্চ ফাউল ও হলুদ কার্ডের রেকর্ড আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়া ম্যাচে

ছন্দে থাকা আর্জেন্টিনাকে আটকে দিতে ম্যাচের শুরু থেকেই শারীরিক ফুটবলের প্রদর্শনীতে ব্যস্ত ছিল কলম্বিয়া। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে তাতে যোগ দেয় লিওনেল স্কালোনির দলও। ফাউল ও হলুদ কার্ডের রেকর্ড গড়া ম্যাচটি ৯০ মিনিটে শেষ হয় সমতায়। টাইব্রেকারে দুই বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের ত্রাতা ছিলেন গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেস। তিনটি শট ঠেকিয়ে দলকে তিনি নিয়ে যান ফাইনালে।

ব্রাসিলিয়ার মানে গারিঞ্চা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বুধবার সকালে নির্ধারিত সময়ে ম্যাচ ১-১ ড্র হয়। টাইব্রেকারে ৩-২ ব্যবধানে জেতে আর্জেন্টিনা।
আগামী রোববার রিও দে জেনেইরোর মারাকানা স্টেডিয়ামে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ব্রাজিলের মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা।

ম্যাচটিতে ব্যক্তিগত এবং দলগত কিছু পরিসংখ্যান তুলে ধরা হলো পাঠকদের জন্য।
কোপা আমেরিকায় তৃতীয়বারের মত আর্জেন্টিনা ও কলম্বিয়ার ম্যাচ গড়াল টাইব্রেকারে। প্রতিবারই জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। ১৯৯৩ আসরে
চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথে সেমি-ফাইনালে কলম্বিয়াকে টাইব্রেকারে হারিয়েছিল তারা।

লিওনেল স্কালোনির কোচিংয়ে কলম্বিয়ার মুখোমুখি হওয়া চার ম্যাচের কোনটিতেই ৯০ মিনিটে জয়ের দেখা পায়নি আর্জেন্টিনা (৩ ড্র, ১ হার)।
নিরপেক্ষ ভেন্যুতে কলম্বিয়ার বিপক্ষে সবশেষ ১০ ম্যাচে দুই বার জয়ের দেখা পেয়েছে আর্জেন্টিনা (৫ ড্র, ৩ হার)।
চলতি আসরে এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ৪৭টি ফাউল হয়েছে এই ম্যাচে, কলম্বিয়া করেছে ২৭টি এবং আর্জেন্টিনা ২০টি। দুইয়ে আছে কলম্বিয়া ও একুয়েডরের মধ্যকার টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ (৩৫টি ফাউল)।

এক ম্যাচে হলুদ কার্ডের সংখ্যা হিসেবে ম্যাচটি মহাদেশীয় প্রতিযোগিতার ইতিহাসে সর্বোচ্চ (১০টি)। কলম্বিয়ার খেলোয়াড়দের দেখানো হয়েছে ৬টি হলুদ কার্ড, আর্জেন্টিনাকে ৪টি।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com