বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০৭:১৯ পূর্বাহ্ন

অর্থের বিনিময়ে জন্মদান, দেশটি যেন সন্তান তৈরির কারখানা!

অর্থের বিনিময়ে জন্মদান, দেশটি যেন সন্তান তৈরির কারখানা!

দাম্পত্য জীবন ততদিন পর্যন্ত পূর্নতা লাভ করে না যতদিন পর্যন্ত না একটি সন্তানের জন্ম হয়। কিন্তু এমন অনেক দম্পতিই আছে যাদের সন্তান জন্মদানের ক্ষমতা নেই। আর এমন দম্পতিদের জন্যই ভরসাস্থল ইউক্রেন।

গর্ভ ভাড়া বা সারোগেসি পদ্ধতির মাধ্যমে পূর্ব ইউরোপের এই দেশটিতে সন্তান উৎপাদনে অক্ষম দম্পতিরা বাবা-মা হতে পারেন। আর একারণে দেশটি বর্তমানে ‘সন্তান তৈরির কারখানা’ হিসেবেও পরিচিত। আর এ নিয়ে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আনন্দবাজার পত্রিকা অনলাইন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউক্রেনে কিছু শর্ত মানার মধ্য দিয়ে বাবা-মা হতে পারবেন সন্তান উৎপাদনে অক্ষম দম্পতিরা। পরিসংখ্যান বলছে, বিদেশি দম্পতিদের জন্য প্রতিবছর আড়াই থেকে তিন হাজার সন্তানের জন্ম হয় ইউক্রেনে। এমনকি গর্ভ ভাড়া দেওয়ার মাধ্যমে সন্তান জন্মদানকে সম্পূর্ণ বাণিজ্যিক ও শিল্প পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছে দেশটি।

বার্তা সংস্থা এএফপির মতে, এই দম্পতিদের এক- তৃতীয়াংশই চীনের বাসিন্দা। মূলত ভারত ও থাইল্যান্ড বিদেশিদের জন্য সন্তান ধারণের বাণিজ্যিক সুবিধা বন্ধ করে দেয়ায় ভাগ্য খুলেছে ইউরোপের দেশটির।

বর্তমানে ইউক্রেনে সারেগেসির মাধ্যমে অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার ন্যূনতম খরচ ২৫ হাজার ইউরো (বাংলাদেশি মুদ্রায় ২৫ লাখ ১৬ হাজার টাকা)। এই খরচ বেড়ে ৭০ হাজার ইউরো (৭০ লাখ ৪৪ হাজার ৮৬১ টাকা) পর্যন্তও হয়।

কোনো দম্পতিরা চাইলে পুত্রসন্তান নিতে পারবেন, আবার কন্যসন্তানও নিতে পারবেন। ছেলে বা মেয়ে বেছে নিতে দু’বার চেষ্টা করতে পারবেন তারা। আবার পছন্দমতো না হওয়া পর্যন্তও চেষ্টা চালিয়ে যেতে পারবে। এক্ষেত্রে প্রথমটির মূল্য ৪৯ হাজার ৯০০ ইউরো এবং দ্বিতীয় পদ্ধতির ৬৪ হাজার ৯০০ ইউরো।

তবে এই পদ্ধতিতে সন্তান নিতে হলে দম্পতিদের কিছু শর্তও পালন করতে হয়। কেবল বিবাহিত নারী-পুরুষরাই সন্তান নিতে পারবেন এবং তারা যে সন্তান জন্ম দিতে অক্ষম সেটিরও মেডিকেল কাগজপত্র দেখাতে হবে। এছাড়া কোনো সমকামী দম্পতি এই প্রক্রিয়ায় সন্তান নিতে পারবে না।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com