বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০৭:৩০ পূর্বাহ্ন

আবু ত্বহা আদনানকে নিয়ে আসিফের আবেগঘন স্ট্যাটাস

আবু ত্বহা আদনানকে নিয়ে আসিফের আবেগঘন স্ট্যাটাস

বর্তমান সময়ের আলোচিত ইসলামি বক্তা আবু ত্বহা মোহাম্ম’দ আদনান তাঁর গাড়ীচালক ও দুই সঙ্গীসহ গত ১০ জুন মধ্যরাতে নিখোঁজ হয়েছেন। প্রায় ৬ দিন পেড়িয়ে গেলেও এখনও তার সন্ধান মেলেনি। জানা যায়, রংপুর থেকে ঢাকা ফেরার পথে রাত আড়াইটায় স্ত্রীর সাথে সর্বশেষ কথা হয় আদনানের। এরপর আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি তার বা সঙ্গীদের।

ইসলামি এই বক্তার নি’খোঁজের সংবাদে ফেসবুকে সরব হয়েছেন অনেকেই। তারকা থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষজনও নি’খোঁজ আবু ত্বহা মোহাম্ম’দ আদনানের সন্ধান চাইছেন। তাদের মধ্যেরই একজন দেশের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আসিফ আকবর। বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) নি’খোঁজ আবু ত্বহা মোহাম্ম’দ আদনানের সন্ধান চেয়ে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি। বিডি২৪লাইভ-এর পাঠকদের জন্য স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হল-

আসিফের ফেসবুক স্ট্যাটাস
আবু ত্বহা মুহাম্ম’দ আদনান সাহেবকে আমি চিনিনা। কখনো উনার নাম শুনিনি, এটা হয়তো আমার অজ্ঞতা। নিউজে দেখলাম তিনি একজন মেধাবী তরুন ক্রিকেটার ছিলেন। আগে গীটারও বাজাতেন টুকটাক। এক সময় ইসলামের পথে নিজেকে উজাড় করে দিয়ে একজন তরুন ইসলামী বক্তা হয়ে উঠেন। গত ছয়দিন যাবত তিনি নি’খোঁজ। মিডিয়ায় আদনান সাহেবের স্ত্রী’র বক্তব্য শুনে মনটা খুব খা’রাপ হয়ে গেলো। একজন স্ত্রী হিসেবে ভদ্রমহিলা শুধু তার স্বামীর সন্ধান চান। আদনান সাহেব রাষ্ট্রবি’রোধী কোন কাজ করে থাকলে সেটারও বিচার চান। প্রয়োজনে দেশ ছেড়ে চলে যাবার কথাও বলেছেন।

জন্ম থেকে এসব দেখেই যাচ্ছি শুধু। আমার আর বাংলাদেশের বয়স সমান। মানুষ হা’রিয়ে যাওয়া অনেক ক’ষ্টের। একটা স্বাধীন দেশে এ ধরনের অনিয়ম মানা খুবই ক’ষ্টকর। মাঝে মধ্যে নিজেও ভাবি কখন যে উধাও হয়ে যাই। একটা সাধারন গৃহপালিত প্রানী হা’রিয়ে গেলেও অনেক এলোমেলো হয়ে যায় মন। সেখানে জ্বলজ্যান্ত মানুষ হা’রিয়ে গেলে পরিবারের যন্ত্রনা কি হতে পারে সেটা সহজেই অনুমেয়। আধুনিক প্রযুক্তির যুগে এ ধরনের নি’খোঁজ হওয়া ভি’কটিম’দের ব্যাপারে দেশের আইন শৃঙ্খলা বাহিনী যথেষ্ট স্মার্ট। আশা করি প্রশাসন আবু ত্বহা মুহাম্ম’দ আদনানের সন্ধান পাবেন এবং তিনিও তার পরিবারে কাছে ফিরে যেতে পারবেন।

একজন খেলোয়াড় ও সঙ্গীতপ্রেমী সব জাগতিক খায়েস ছেড়ে ইসলামের খেদমতে নিজের জীবন উৎস্বর্গ করেছেন। সংস্কৃতিমনা মানুষ যত কিছুই করুক না কেন কখনো নৃ’শংস হতে পারেনা, মানুষ খু’ন করতে পারেনা। শুধু আদনান সাহেব নয়, এই ধরনের ঘটনা যেন কখনোই না ঘটে সে বি’ষয়ে সামাজিক রাজনৈতিক এবং রাষ্ট্রীয় সচেতনতা খুব প্রয়োজন। আবু ত্বহা মুহাম্ম’দ আদনান এবং তাঁর নি’খোঁজ সঙ্গীরা সহিসালামত আমাদের মাঝে ফিরে আসুন, এই দোয়া করি, রাষ্ট্রের কাছেও দাবী রইলো। মহান আল্লাহ তাদের পরিবারকে ধৈর্য্য ধরার শক্তি দিন। আমীন…

উল্লেখ্য, আবু ত্বহা মোহাম্ম’দ আদনানের দাদা বাড়ি রাজশাহী শহরে। অনেক আগে স্বামী মা’রা যাওয়ার পর একমাত্র ছেলে ত্বহা ও একমাত্র মেয়েকে নিয়ে রংপুর নগরীর সেন্ট্রাল রোডে বাবার বাড়িতে ঠাঁই নেন আজেদা বেগম। ত্বহার ছোটবোন কারমাইকেল কলেজে অনার্সে পড়ালেখা করছেন। অনূর্ধ্ব-১৯ জাতীয় ক্রিকেট দলে সুযোগ পেয়েছিলেন ত্বহা। এক সময় রংপুরের ক্রিকেট অঙ্গনে সবার পরিচিত ছিলেন তিনি। রংপুর লায়ন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের গণ্ডি পেরিয়ে দর্শন বি’ষয়ে রংপুর কারমাইকেল কলেজে অনার্সে ভর্তি হন।

মাস্টার্সে প্রথম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হন। কারমাইকেলে পাড়াকালীন ধর্মীয় বিভিন্ন বি’ষয় নিয়ে ঝুঁকে পড়েন এই ক্রিকেটার। কোনো আরবি শিক্ষপ্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা না করলেও ইসলাম ধর্মের প্রচুর বই পড়তেন এবং গবেষণা করতেন। ফলে অল্প দিনেই হয়ে ওঠেন একজন ভালো ইসলামী বক্তা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, ইউটিউবসহ বিভিন্ন মসজিদে ইসলামিক বি’ষয়াদি নিয়ে আলেচনা করতেন। বিয়ের পর ত্বহা তার স্ত্রী এবং দেড় বছর বয়সী ছেলে ও তিন বছরের মেয়েকে নিয়ে শালবন মিস্ত্রীপাড়া চেয়ারম্যান গলিতে ভাড়াবাসায় থাকেন।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com