রবিবার, ১৩ Jun ২০২১, ০২:৫০ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
সাকিব ইস্যুতে ফেঁসে যাচ্ছেন আম্পায়াররা সাভারে পোশাক শ্রমিকদের অ’বরোধ-বি’ক্ষোভে পুলিশের গু’ লি, না’রী নি’হত গো’পনে ফি’লিস্তিনের দুই গো’য়েন্দা কর্মকর্তাকে গু’লি করে হ’ ত্যা করল ই’সরাইল দিনদুপুরে মা-ছে’লেসহ তিন জনকে গু’ লি করে পা’লানোর সময় সেই ঘা’ তককে ধরে পুলিশে দিলেন জনতা প্র’কাশ্যে দোকানে ঢুকে স্বামী-স্ত্রীসহ ছেলেকে গু” লি করে হ’ ত্যা ই’সরাইলি ড্রো’ন তৈরির ফ্যাক্টরি দ’খলে নিয়েছে ফি’লিস্তিনিরা! নেতানিয়াহু বি’রোধী বি’ক্ষো’ভে উত্তাল ই’সরায়েল ‘ফোন দিলে অবস্থা খারাপ হবে’ বলেই সার্জেন্টকে মা’র’ধ’র, নিজেকে ছাত্রলীগ কর্মী বলে পরিচয় বে’ইজ্জতি চ’রমে পৌঁছে গেছে, ভ’য়ে ফোন ধরছি না: পাপন নে’তানিয়াহুর জন্য ১০ বছরের কা’রাদ’ণ্ড অপেক্ষা করছে: ই’সরাইলি আইনজীবী
চিকিৎসার অভাবে মারা যাচ্ছে করোনা রোগী, অন্যদিকে গরুদের জন্য বরাদ্ধ অক্সিমিটার-থার্মাল স্ক্যানার

চিকিৎসার অভাবে মারা যাচ্ছে করোনা রোগী, অন্যদিকে গরুদের জন্য বরাদ্ধ অক্সিমিটার-থার্মাল স্ক্যানার

করোনায় আক্রান্ত রোগীরা চিকিৎসার অভাবে মারা যাচ্ছে। আর এদিকে গরুদের জন্য অক্সিমিটার-থার্মাল স্ক্যানার পাঠাচ্ছে প্রশাসন। ভারতের উত্তরপ্রদেশের সরকারি গোশালায় এসব চিকিৎসা সামগ্রী পাঠাচ্ছে রাজ্যের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার। রাজ্য সরকারের তরফে এক প্রেস বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। পরে এ নিয়ে বিতর্ক শুরু হলে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের দফতর থেকে দাবি করা হয়, গোশালায় কর্মরত কর্মীদের জন্যই এসব চিকিৎসা সামগ্রী পাঠানো হয়েছে।

এর আগে এক বিজ্ঞপ্তিতে যোগী আদিত্যনাথের দফতর জানায়, প্রত্যেক জেলায় সরকারি গোশালায় গরুদের দেখভালের জন্য হেল্পডেস্ক তৈরি করা এবং গরুদের সুরক্ষার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে জেলা প্রশাসনগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর দফতর থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।

সরকারি ফরমান অনুযায়ী, প্রতিটি গোশালায় কোভিড বিধি মানতে হবে। সেখানে মাস্ক পরা, থার্মাল স্ক্রিনিং বাধ্যতামূলক। একইসঙ্গে নির্দেশ, গোশালার গরুদের জন্য চিকিৎসা সামগ্রী যেন পর্যাপ্ত থাকে।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিচার করে প্রত্যেক জেলায় ৭০০টি হেল্পডেস্ক তৈরি করা হয়েছে গরুদের কল্যাণের জন্য। ৫১টি অক্সিমিটার, ৩৪১টি থার্মাল স্ক্যানার পাঠানো হয়েছে গরুদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য। রাজ্যের বিপুল সংখ্যক ভবঘুরে গবাদি পশুকে সরকারি গোশালায় আশ্রয় দেওয়া হচ্ছে। গোশালার সংখ্যাও দ্রুত বাড়ানো হচ্ছে।

রাজ্য সরকারের এমন বিবৃতির পরই সমালোচনা শুরু হয়। সমালোচকরা বলছেন, যেখানে মানুষ ঠিকমতো চিকিৎসা সরঞ্জাম পাচ্ছে না, সেখানে গরুর জন্য রীতিমতো তোড়জোড় শুরু করেছে সরকার। মানুষকে উপেক্ষা করে গরুর জন্য অক্সিমিটার, থার্মাল স্ক্যানানের মতো সামগ্রী পাঠানো হচ্ছে।

এমন সমালোচনার মুখেই পরে ভোল বদলায় মুখ্যমন্ত্রীর দফতর। দাবি করা হয়, গরুর জন্য নয় বরং গোশালার কর্মীদের জন্যই পাঠানো হয়েছে এসব চিকিৎসা সামগ্রী। সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Comments are closed.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 banglaekattor.com